অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

শেষ হলো আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসব, প্রদর্শিত হয় ৭১ দেশের ২৫২টি সিনেমা


শেষ হলো ঢাকা আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবের ২১তম আসরের। ২২ জানুয়ারি, ২০২৩।
শেষ হলো ঢাকা আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবের ২১তম আসরের। ২২ জানুয়ারি, ২০২৩।

পর্দা নামলো ঢাকা আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবের ২১তম আসরের। রবিবার (২২ জানুয়ারি) বাংলাদেশের রাজধানী ঢাকার জাতীয় জাদুঘরের মূল মিলনায়তনে সন্ধ্যায় এই উৎসবের সমাপনী অনুষ্ঠান আয়োজন করা হয়। সমাপনীতে, অতিথি, জুরি, নির্মাতা ও প্রযোজকদের উপস্থিতিতে ঘোষণা করা হয় এবারের উৎসবে বিজয়ী চলচ্চিত্র, তথ্যচিত্র, নির্মাতা, অভিনেতা, অভিনেত্রী ও চিত্রগ্রাহকের নাম।

এই চলচ্চিত্র উৎসবের মূল আয়োজক রেইনবো চলচ্চিত্র সংসদ। এবারের উৎসবে দেখানো হয়েছে ৭১টি দেশের ২৫২টি সিনেমা। এবারের উৎসবেও এশিয়ান ফিল্ম প্রতিযোগিতা বিভাগ, রেট্রোস্পেকটিভ বিভাগ, বাংলাদেশ প্যানারোমা, সিনেমা অফ দ্য ওয়ার্ল্ড, চিল্ড্রেন ফিল্মস্, স্পিরিচুয়াল ফিল্মস, শর্ট অ্যান্ড ইন্ডিপেনডেন্ট ফিল্ম এবং উইমেন্স ফিল্ম মেকার বিভাগে চলচ্চিত্র প্রদর্শিত হয়।

এশিয়ান চলচ্চিত্র প্রতিযোগিতা বিভাগে রাশিয়ার সিনেমা ‘পোডেলনিকি’-এর জন্য সেরা সিনেমাটোগ্রাফি পুরস্কার বিজয়ী হন আর্টিওম আনিসিমভ। ভারতের ‘অপরাজিত’ সিনেমার জন্য সেরা স্ক্রিপ্ট রাইটার অনিক দত্ত এবং ভারতের ‘প্রপেদা’ সিনেমার জন্য সেরা অভিনেত্রীর পুরস্কার পান কেতকী নারায়ণ।

এছাড়া, জাপানের সিনেমা ‘নাকোডো-ম্যাচমেকারস’ এর জন্য সেরা অভিনেতা হয়েছেন ইক্কেই ওয়াতানাবে। ইরানি সিনেমা ‘জেন্দেগি ভা জেন্দেগি’ এর জন্য পুরস্কৃত হন পরিচালক আলী ঘাভিতান। শ্রেষ্ঠ চলচ্চিত্র পুরস্কার পায় ইরানি সিনেমা ‘দ্য মাদার’। বিশেষ অডিয়েন্স পুরস্কার জয়ী চলচ্চিত্র বাংলাদেশ থেকে ‘জে কে ১৯৭১’ এবং অডিয়েন্স পুরস্কার জয়ী সিনেমা হলো বাংলাদেশ থেকে ‘হাওয়া’।

স্পিরিচুয়াল ফিল্ম সেকশনে সেরা তথ্যচিত্র ‘মহাত্মা হাফকাইন (রাশিয়া), সেরা ফিচার ফিল্ম ‘ঘোর ফেরা’। বাংলাদেশ প্যানোরমা সেকশনে সেরা চলচ্চিত্র অ্যাওয়ার্ড পায় বাংলাদেশের সিনেমা ‘সাতাঁও’।

XS
SM
MD
LG