অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

ক্ষমতা ভোগ করতে নয়, জনগণকে কিছু দিতে এসেছি—প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা


ঢাকার বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে (বিআইসিসি) বাংলাদেশ অ্যাডমিনিস্ট্রেটিভ সার্ভিস অ্যাসোসিয়েশনের (বিএএসএ) বার্ষিক সম্মেলনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নিজেকে জনগণের সেবায় নিবেদিতপ্রাণ হিসেবে বর্ণনা করে বলেছেন, “আমি ক্ষমতা ভোগ করতে নয়, জনগণকে কিছু দিতে এসেছি।… সরকার ২০৪১ সালের মধ্যে বাংলাদেশকে একটি উন্নত দেশে পরিণত করতে চায়, যেখানে মাথাপিছু আয় হবে কমপক্ষে ১২ হাজার ডলার।

মঙ্গলবার (২৪ জানুয়ারি) ঢাকার বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে (বিআইসিসি) বাংলাদেশ অ্যাডমিনিস্ট্রেটিভ সার্ভিস অ্যাসোসিয়েশনের (বিএএসএ) বার্ষিক সম্মেলনে এ কথা বলেন তিনি।

শেখ হাসিনা বলেন, “আমরা ২০৪১ সালের মধ্যে বাংলাদেশকে উন্নত দেশ হিসেবে গড়ে তুলতে চাই। আমরা আমাদের মাথাপিছু আয় ২ হাজার ৮২৪ (ইউএস) ডলারে উন্নীত করতে সক্ষম হয়েছি। কিন্তু আমরা এই পর্যায়ে থেমে থাকতে চাই না, বরং পর্যায়ক্রমে এগিয়ে যেতে চাই। আমাদের লক্ষ্য হল ২০৪১ সালের মধ্যে মাথাপিছু কমপক্ষে ১২ হাজার ডলার আয় করা”।

তিনি আরও বলেন, “বাংলাদেশ ইতিমধ্যে পাঁচ ধাপ এগিয়ে বিশ্বের ৩৫তম বৃহত্তম অর্থনীতির দেশে পরিণত হয়েছে, যা ছোট বিষয় নয়। তবে মনে রাখবেন, আপনি যত দ্রুত এগিয়ে যাবেন, তত বেশি ষড়যন্ত্র ও চক্রান্তের মুখোমুখি হবেন”।

শেখ হাসিনা বলেন, “অনেকেই চায়নি বাংলাদেশ স্বাধীন হোক। তাই, অনেকেই আমাদের অগ্রগতি পছন্দ করেন না। আমাদের মুক্তিযুদ্ধের সময় যারা আমাদের সমর্থন করেনি তারা এখন ভাবতে পারে যে, আমরা (বাংলাদেশ) তাদের উপেক্ষা করে এগিয়ে যাচ্ছি”।

সরকার দেশকে ডিজিটাল বাংলাদেশ হিসেবে গড়ে তুলেছে উল্লেখ করে শেখ হাসিনা বলেন, “তারা এখন ঘোষণা করেছেন, ২০৪১ সালের মধ্যে দেশকে উন্নত, সমৃদ্ধ ও স্মার্ট বাংলাদেশ হিসেবে গড়ে তোলা হবে। স্মার্ট বাংলাদেশে আইটি জ্ঞান, স্মার্ট অর্থনীতি ও স্মার্ট সরকার (ই-গভর্নেন্স) দিয়ে সজ্জিত একটি স্মার্ট জনসংখ্যা থাকবে”।

প্রধানমন্ত্রী সরকারী কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের তাদের আন্তরিক কাজের ধন্যবাদ জানিয়ে বলেন, “তাদের জন্যই আজ বাংলাদেশ এগিয়ে যেতে পেরেছে। কোভিড-১৯ মহামারির সময়েও আমাদের অর্থনীতির চাকা সচল ছিল। তাই, আমি আপনাদের সবাইকে ধন্যবাদ জানাতে চাই। এটি সম্ভব হয়েছে কারণ প্রত্যেকে আন্তরিকতার সঙ্গে কাজ করেছেন”।

অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য দেন জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন, মন্ত্রিপরিষদ সচিব মাহবুব হোসেন ও প্রধানমন্ত্রীর মুখ্য সচিব এম তোফাজ্জল হোসেন মিয়া।

স্বাগত বক্তব্য দেন বিএএসএর সভাপতি ও নৌ পরিবহনসচিব মো. মোস্তফা কামাল। ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন মহাসচিব ও শিল্প মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব এস এম আলম।

XS
SM
MD
LG