অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

উৎপাদন বাড়াতে কৃষি নিয়ে গবেষণা বাড়াতে বিজ্ঞানীদের প্রতি আহ্বান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার


প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কৃষি উৎপাদনে উৎকর্ষতা অর্জনে গবেষণায় অতিরিক্ত প্রচেষ্টা চালানোর জন্য বিজ্ঞানীদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন।

তিনি বলেন, “আমি সবসময় মনে করি, গবেষণা ছাড়া শ্রেষ্ঠত্ব অর্জন করা সম্ভব নয়। আমরা কৃষিনির্ভর দেশ হওয়ায় আমরা কৃষিকে বাড়তি গুরুত্ব দিয়েছি”।

বৃহস্পতিবার (২৩ ফেব্রুয়ারি) গাজীপুর জেলায় বাংলাদেশ ধান গবেষণা ইনস্টিটিউটের (ব্রি) ৫০তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী এবং “বঙ্গবন্ধু পিয়েরে ট্রুডো কৃষি গবেষণা কেন্দ্র” উদ্বোধন উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানে শেখ হাসিনা এসব কথা বলেন।

তিনি অবশ্য বলেন, সরকার অন্য খাতেও গবেষণার ওপর গুরুত্ব দিয়েছে।

শেখ হাসিনা বলেন, “আমরা স্বাস্থ্য, শিক্ষা ও বিজ্ঞানের ওপর গবেষণায় জোর দিয়েছি”।

খাদ্য উৎপাদন বাড়ানোর বিষয়ে ধারাবাহিক গবেষণার ওপর গুরুত্বারোপ করে তিনি বলেন, “ভৌগোলিক অবস্থান এবং জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাবে বাংলাদেশ প্রায়ই প্রতিকূল পরিস্থিতির সম্মুখীন হয়।… সুতরাং আমাদের ফসল উৎপাদন করতে হবে”।

কৃষি গবেষণায় সরকারের বিভিন্ন উদ্যোগের সংক্ষিপ্ত বর্ণনা দিয়ে শেখ হাসিনা বলেন, “বাংলাদেশ শুধু খাদ্যশস্য উৎপাদনেই নয়, সবজি, ফলমূল ও অন্য কৃষিপণ্যের ক্ষেত্রেও দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছে”।

এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, জলবায়ু পরিবর্তন ও পরিবেশের সঙ্গে তাল মিলিয়ে নতুন জাতের ফসল দিয়ে উৎপাদন অব্যাহত রাখতে হবে।

শেখ হাসিনা বলেন, দেশ চতুর্থ শিল্প বিপ্লবে প্রবেশ করতে চলেছে তাই সরকার দক্ষ জনশক্তি তৈরির পদক্ষেপ নিয়েছে।

তিনি বায়ো-ইনফরমেটিক্স, ন্যানো-টেকনোলজি, মেশিন লার্নিং, ইন্টারনেট অব থিংস এবং নতুন কৃষি প্রযুক্তি শেখার এবং উৎপাদনের ওপর জোর দেন।

অনুষ্ঠানে কৃষিমন্ত্রী মো. আব্দুর রাজ্জাক, কৃষিসচিব ওয়াহিদা আক্তার, আন্তর্জাতিক ধান গবেষণা ইনস্টিটিউটের (আইআরআরআই) মহাপরিচালক জিন বালি, বাংলাদেশ কৃষি গবেষণা কাউন্সিলের নির্বাহী চেয়ারম্যান ড. শেখ মোহাম্মদ বখতিয়ার, গ্লোবাল ইনস্টিটিউট ফর ফুড সিকিউরিটির নির্বাহী পরিচালক ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা ড. স্টিভেন ওয়েব এবং বিআইআরআইয়ের মহাপরিচালক ড. এম শাহজাহান কবিরও বক্তব্য দেন।

অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ সরকারের মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রী আ ক এম মোজাম্মেল হক এবং যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী মো. জাহিদ আহসান রাসেল।

অনুষ্ঠানে “ব্রির গর্ব ও সাফল্যের ৫০ বছর” শীর্ষক একটি তথ্যচিত্র প্রদর্শন করা হয়।

এর আগে, শেখ হাসিনা বৈশ্বিক জলবায়ু পরিবর্তন সহনশীল খাদ্য নিরাপত্তা ব্যবস্থা নিশ্চিত করতে কৃষি ক্ষেত্রে গবেষণা পরিচালনার লক্ষ্যে “বঙ্গবন্ধু পিয়েরে ট্রুডো কৃষি গবেষণা কেন্দ্র” উদ্বোধন করেন।

কেন্দ্রটি বাংলাদেশ ও কানাডার মধ্যে বিদ্যমান বাণিজ্যিক, গবেষণা কার্যক্রম, প্রযুক্তি বিনিময়, উন্নয়ন সহায়তা বৃদ্ধি করবে বলে আশা করা হচ্ছে।

কানাডা সরকারের প্রত্যক্ষ সহায়তা ও অর্থায়নে এই প্রথম এ ধরনের গবেষণা কেন্দ্র স্থাপন করা হলো।

কানাডার সাসকেচোয়ান বিশ্ববিদ্যালয়ের গ্লোবাল ইনস্টিটিউট ফর ফুড সিকিউরিটি এবং বাংলাদেশ কৃষি গবেষণা কাউন্সিলের মধ্যে বহু-বিষয়ক গবেষণা, টেকসই খাদ্য নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে প্রশিক্ষণ এবং উন্নয়ন অংশীদারি সহযোগিতার লক্ষ্যে সই করা একটি সমঝোতা স্মারক (এমওইউ) অনুসরণ করে বিআরআরআইতে প্রযুক্তি কেন্দ্রটি স্থাপন করা হয়েছে।

XS
SM
MD
LG