অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাত্রলীগের উপদলীয় সংঘর্ষ, ৮ কক্ষ ভাঙচুর, আহত ৩ জন


চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাত্রলীগের উপদলীয় সংঘর্ষ
চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাত্রলীগের উপদলীয় সংঘর্ষ

সংঘর্ষে জড়িয়েছে বাংলাদেশ ছাত্রলীগের চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় শাখার উপ-গ্রুপগুলো। কথিত ‘বিজয়’ গ্রুপের দুই পক্ষের মধ্যে এই সংঘর্ষ হয়। সংঘর্ষের পর এক পক্ষ আলাওল ও এএফ রহমান হল এবং অপর পক্ষ সোহরাওয়ার্দী হলে অবস্থান নিয়েছে।

তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে শুক্রবার (২৪ ফেব্রুয়ারি) সন্ধ্যা ৬টার দিকে সোহরাওয়ার্দী হল মাঠে এই সংঘর্ষের সূত্রপাত হয়। এতে উভয় পক্ষের ইট পাটকেল নিক্ষেপে তিন ছাত্রলীগ কর্মী আহত হয়েছে। এছাড়া ভাঙচুর করা হয়েছে সোহরাওয়ার্দী হলের আটটি কক্ষ।

ক্যাম্পাস সূত্র জানায়, ছাত্রলীগের উপগ্রুপ বিজয়ের অনুসারীরা দুই ভাগে বিভক্ত। এক পক্ষ আলাওল হল ও এএফ রহমান হলে থাকে। অপরপক্ষ সোহরাওয়ার্দী হলে অবস্থান করে। ২০ ফেব্রুয়ারি দিবাগত রাতের সংঘর্ষের পর, উভয় পক্ষের মধ্যে উত্তেজনা দেখা দেয়। সেই রাতের সংঘর্ষের জের ধরেই শুক্রবার আবারও হামলার ঘটনা ঘটেছে।

দ্বন্দ্ব মীমাংসা না হওয়ায়, কয়েকদিন থেকেই উভয় পক্ষের মধ্যে উত্তেজনা চলছিলো। এ ঘটনার জেরে শুক্রবার আলাওল হল ও এএফ রহমান হলে অবস্থানরত বিজয় গ্রুপের কর্মীরা সোহরাওয়ার্দী হলে অবস্থানরত কর্মীদের ওপর আকস্মিক হামলা চালায়। পরে সোহরাওয়ার্দী হলের গ্রুপ পাল্টা আক্রমণের সিদ্ধান্ত নিলে সংঘর্ষ ছড়িয়ে পড়ে।

একপক্ষ সোহরাওয়ার্দী হলের ছাদে ও অপরপক্ষ সোহরাওয়ার্দী হলে মাঠে অবস্থান নেয়। এসময় উভয়পক্ষের মধ্যে তুমুল ইট-পাটকেল নিক্ষেপের ঘটনা ঘটে। সোহরাওয়ার্দী হলের কয়েকটি কক্ষও ভাঙচুর করা হয়।

পুলিশ ঘটনাস্থলে উপস্থিত হলে নেতাকর্মীরা যার যার হলের দিকে ফিরে যায়। বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর (ভারপ্রাপ্ত) ড. শহিদুল ইসলাম বলেন, “ঘটনার বিষয়ে জানার সঙ্গে সঙ্গে পুলিশ পাঠিয়েছি। পুলিশ সবাইকে যার যার হলে পাঠিয়ে দিয়েছে। আপাতত পরিস্থিতি শান্ত রয়েছে।”

XS
SM
MD
LG