অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

ইউক্রেন চায় ভারতের সাথে আরো দৃঢ় সম্পর্ক, মোদীর সফর: ইউক্রেনের মন্ত্রী


ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী ইন্দোনেশিয়ার বালির নুসা দুয়ায় জি টুয়েন্টি নেতাদের সম্মেলনে বক্তব্য রাখছেন; (ফাইল ফটো), ১৫ নভেম্বর, ২০২২।

ইউক্রেনের উপ-পররাষ্ট্রমন্ত্রী সোমবার বলেছেন, কিয়েভ চায় নয়াদিল্লি রাশিয়ার সাথে তার বিরোধ সমাধানে আরো ভালোভাবে জড়িত হোক। তিনি ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী এবং অন্য শীর্ষ কর্মকর্তাদের কিয়েভে সফরের জন্য আমন্ত্রণ জানান।

এমিন ঝাপারোভা এক সাক্ষাৎকারে, সম্প্রচার প্রতিষ্ঠান সিএনবিসি টিভি১৮-কে বলেন, কিয়েভ এ-ও আশা করেছিলো যে, ভারত ইউক্রেনের কর্মকর্তাদের জি-২০ সম্মেলনের বিভিন্ন অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণের জন্য আমন্ত্রণ জানাবে এবং কিয়েভের সাথে রাজনৈতিক সংলাপ জোরদার করবে।

ভারত এই বছর গ্রুপ অফ টুয়েন্টি-র সভাপতির দায়িত্ব পালন করছে।এই দায়িত্ব সদস্যদেশগুলোর মধ্যে আবর্তিত হয়। সেপ্টেবরে ভারত গ্রুপ অফ টুয়েন্টি-র শীর্ষ সম্মেলনের আয়োজন করে। ইউক্রেনে আগ্রাসনের জন্য নয়াদিল্লি অন্যদের মতো মস্কোর সমালোচনা করেনি; এমনকি যখন অন্যরা রাশিয়ার তেল কম কিনতে বা ক্রয় নিষিদ্ধ করার চেষ্টা করেছে, তখন ভারত তেল কেনার গতি বাড়িয়েছে। তেল উৎপাদন রাশিয়ার অর্থনীতির প্রাণশক্তি।

ভারত ইউক্রেনের সংঘাতের কূটনৈতিক সমাধান চেয়েছে। সেপ্টেম্বরে মোদী রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনকে বলেছিলেন, এখন “যুদ্ধের যুগ নয়।”

রাশিয়ার তেল আমদানিতে ইউরোপের নিষেধাজ্ঞার পর, ব্যাপক ছাড়ের সুযোগ নিয়ে ভারত রাশিয়ার তেল ক্রয় আরো বাড়িয়েছে।

রাশিয়া, আগের সোভিয়েত ইউনিয়নের মতো, কয়েক দশক ধরে ভারতের অস্ত্র এবং প্রতিরক্ষা সরঞ্জামের প্রধান উৎস। বর্তমানে রাশিয়া, ইরাককে হটিয়ে ভারতের শীর্ষ অপরিশোধিত তেল সরবরাহকারী দেশ।

ঝাপারোভা তার সফরকালে, ভারতের উপ-জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা এবং একজন কনিষ্ঠ পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সাথে সাক্ষাৎ করবেন এবং আন্তর্জাতিক বিষয়ক এক চিন্তক গোষ্ঠীর সমাবেশে বক্তব্য রাখবেন।

XS
SM
MD
LG