অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

জি৭ পররাষ্ট্রমন্ত্রীরা রাশিয়া ও চীন নিয়ে উদ্বেগের বিষয়টি উল্লেখ করলেন


যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যান্টনি ব্লিংকেন জি৭ পররাষ্ট্রমন্ত্রীদের সভা সমাপ্তির পর আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে বক্তব্য রাখছেন (কারুইজাওয়া, জাপান, ১৮ এপ্রিল, ২০২৩)
যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যান্টনি ব্লিংকেন জি৭ পররাষ্ট্রমন্ত্রীদের সভা সমাপ্তির পর আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে বক্তব্য রাখছেন (কারুইজাওয়া, জাপান, ১৮ এপ্রিল, ২০২৩)

আজ মঙ্গলবার জাপানে গ্রুপ অব সেভেন নেশনস (জি৭) সংগঠনের পররাষ্ট্রমন্ত্রীদের বৈঠক শেষে মন্ত্রীরা ইউক্রেনের বিরুদ্ধে রাশিয়ার যুদ্ধের প্রতি নিন্দা জানান এবং বৈশ্বিক চ্যালেঞ্জগুলোর মোকাবিলায় চীনকে সংযুক্ত করার প্রয়োজনীয়তার বিষয়টি উল্লেখ করেন।

এক সম্মিলিত বার্তায় জলবায়ু পরিবর্তন ও বৈশ্বিক স্বাস্থ্য নিরাপত্তা বিষয়ে চীনের সঙ্গে কাজ করার প্রয়োজনীয়তা উল্লেখের পাশাপাশি মন্ত্রীরা পূর্ব ও দক্ষিণ চীন সাগরে চীনের ভূমিকা ও তাইওয়ানের প্রতি দেশটির মনোভাব নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেন।

যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যান্টনি ব্লিংকেন জানান, চীনের বিষয়ে উদ্বেগ এবং এসব উদ্বেগ দূর করার সম্ভাব্য উপায় নিয়ে ব্রিটেন , কানাডা, ফ্রান্স, জার্মানি, ইতালি ও জাপানের পররাষ্ট্রমন্ত্রীদের সঙ্গে আলোচনায় তিনি “অসামান্য অভিন্নতা” খুঁজে পেয়েছেন।

চীনের পররাষ্ট্র মন্ত্রকের মুখপাত্র ওয়াং ওয়েনবিন সংবাদদাতাদের জানান, জি-৭ এর বার্তায় জাপানের অভ্যন্তরীণ বিষয়ে হস্তক্ষেপ করা হয়েছে এবং অশুভ উদ্দেশ্য নিয়ে তাদের দেশের অপমান করা হয়েছে।

জি৭ মন্ত্রীরা তাদের বার্তায় জানান, তারা “রাশিয়ার বিরুদ্ধে বিধিনিষেধকে আরও কঠোর” করার প্রতি অঙ্গীকারাবদ্ধ আছেন এবং রাশিয়া এবং অন্যান্যরা যাতে এসব উদ্যোগকে এড়িয়ে যেতে না পারে, সেটা নিশ্চিত করতে নিজেদের মাঝে সমন্বয় অব্যাহত রেখেছেন।

মন্ত্রীরা বলেন, “রাশিয়াকে তাৎক্ষণিক ও নিঃশর্তভাবে ইউক্রেন থেকে সকল বাহিনী ও সরঞ্জাম সরিয়ে নিতে হবে। যতদিন প্রয়োজন হয়, ততদিন পর্যন্ত আমরা ইউক্রেনকে সুরক্ষা দেওয়া, দেশটির মুক্ত ও গণতান্ত্রিক ভবিষ্যৎ নিশ্চিত করা এবং ভবিষ্যতে রাশিয়ার আগ্রাসন ঠেকানোর জন্য টেকসই নিরাপত্তা, অর্থনৈতিক ও সাংগঠনিক সহায়তা অব্যাহত রাখার অঙ্গীকার আবারও ব্যক্ত করছি।”

ব্লিংকেন জানান, গত বছর ইউক্রেনের বিরুদ্ধে রাশিয়ার পূর্ণ মাত্রার আগ্রাসন বিষয়ে জি-৭ সদস্যরা “বিশ্বকে মনে করিয়ে দেবে, কারা আগ্রাসনকারী এবং কারা ভুক্তভোগী।” তিনি আরও জানান, বিশ্বের যেসব অঞ্চলের মানুষের সবচেয়ে বেশি পরিমাণে খাদ্য প্রয়োজন, সেখানে ইউক্রেন থেকে শস্য রপ্তানি ঠেকিয়ে রেখে রাশিয়া প্রতিশ্রুতি ভঙ্গ করছে।

XS
SM
MD
LG