অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

গাজীপুর সিটি করপোরেশন নির্বাচনের ভোটগ্রহণ শান্তিপূর্ণভাবে শেষ হয়েছে


শান্তিপূর্ণভাবে শেষ হয়েছে গাজীপুর সিটি করপোরেশন (জিসিসি) নির্বাচনের ভোটগ্রহণ।

বৃহস্পতিবার (২৫ মে) কড়া নিরাপত্তা ব্যবস্থার মধ্যে কোনো সহিংসতার খবর ছাড়াই জিসিসির ভোটগ্রহণ শেষ হয়। সকাল ৮টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত একটানা ভোটগ্রহণ করে নির্বাচন কমিশন। ভোটগ্রহণ শেষ হওয়ার পরপরই শুরু হয়েছে ভোট গণনা।

সকাল ১০টার দিকে কানাইয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ভোটকেন্দ্রে ভোট দেওয়ার পর সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে গাজীপুর সিটি করপোরেশনের (জিসিসি) নির্বাচনে স্বতন্ত্র মেয়র প্রার্থী জায়েদা খাতুন বলেছেন, ভোট শান্তিপূর্ণ হয়েছে এবং আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতিও ভালো রয়েছে।

তিনি বলেন, ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিন (ইভিএম) ব্যবহারের বিরুদ্ধে এখন পর্যন্ত কোনো অভিযোগ আসেনি।

তিনি আরও বলেন, নির্বাচনে আমার জয়ের ব্যাপারে আমি আশাবাদী।

এদিকে গাজীপুর সিটি করপোরেশনের (জিসিসি) সাবেক মেয়র জাহাঙ্গীর আলমও তাঁর মায়ের সঙ্গে একই ভোটকেন্দ্রে ভোট দিয়েছেন।

নির্বাচনে মেয়র পদে ৮ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন এবং কাউন্সিলর পদে ২৪৮ জন এবং মহিলা কাউন্সিলর প্রার্থী ৭৯ জন।

গাজীপুর সিটি করপোরেশন নির্বাচনে মোট ভোটার ছিলেন ১১ লাখ ৭৯ হাজার ৪৭৬ জন। এর মধ্যে পুরুষ ভোটার ৫ লাখ ৯২ হাজার ৭৬৪ জন, নারী ভোটার ৫ লাখ ৮৬ হাজার ৬৯৬ জন এবং ট্র্যান্সজেন্ডার ভোটার ১৮ জন।

গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের (জিএমপি) কমিশনার মোল্লা নজরুল ইসলাম বুধবার (২৪ মে) বলেছিলেন, নির্বাচনকালে আইনশৃঙ্খলা রক্ষায় মোট ১৩ হাজার আইনশৃঙ্খলা বাহিনী মোতায়েন করা হয়েছে।

রিটার্নিং অফিসার ফরিদুল ইসলাম জানিয়েছিলেন, র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব) ও আনসার সদস্যদের ৩০টি টিমের পাশাপাশি বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি) সদস্যদের ২০ প্লাটুন মোতায়েন করা হয়েছে।

XS
SM
MD
LG