অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

হাইকোর্ট থেকে তিন মাসের আগাম জামিন পেলেন নিপুণ রায়


বাংলাদেশের রাজধানী ঢাকার উপকন্ঠে, কেরাণীগঞ্জ এলাকায় আওয়ামী লীগ ও বিএনপি নেতাকর্মীদের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনায় দায়ের করা মামলায় , বিএনপি নেত্রী নিপুণ রায় চৌধুরীকে তিন মাসের আগাম জামিন দিয়েছেন হাইকোর্ট।

সোমবার (২৯ মে) অ্যাম্বুলেন্সে করে আদালতে হাজির হয়ে জামিন আবেদন জানান নিপুণ রায়। পরে, বিচারপতি হাবিবুল গণি ও বিচারপতি আহমেদ সোহেলের বেঞ্চ তাকে আগাম জামিন দেন। তার পক্ষে আদালতে শুনানি করেন অ্যাডভোকেট নিতাই রায় চৌধুরী ও ব্যারিস্টার বদরুদ্দোজা বাদল।

রাজধানী ঢাকার একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন নিপুণ রায়। গ্রেপ্তার হতে পারেন, এমন আশঙ্কায় তিনি হাসপাতাল থেকে সরাসরি হাইকোর্টে আসেন।

গত শনিবার কেরাণীগঞ্জের জিনজিরায় আওয়ামী লীগ ও বিএনপি নেতাকর্মীদের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনায় বিএনপির ঢাকা জেলার সাধারণ সম্পাদক নিপুণ রায় চৌধুরীসহ দলটির ১০৮ নেতাকর্মীর নামে মামলা হয়। মামলায় অনকে অজ্ঞাতনামা ব্যাক্তিকেও অভিযুক্ত করা হয়েছে।

কেরাণীগঞ্জ মডেল থানায় এই মামলা দায়ের করেন জিনজিরা ইউনিয়ন স্বেচ্ছাসেবক লীগের সহ-সভাপতি এসএম সুমন। মামলার এজাহারে আওয়ামী লীগ অফিস ভাংচুর, হত্যার উদ্দেশ্য মারধর করে গুরুতর জখম, চুরি ও প্রাণনাশের হুমকি দেয়ার অভিযোগ করা হয়।

পুলিশ জানায়, এই মামলায় ঢাকা জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক নিপুণ রায় চৌধুরী, নির্বাহী কমিটির সদস্য নাজিম উদ্দীন মাস্টার, দক্ষিণ কেরাণীগঞ্জ থানা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক মোজাদ্দেদ আলী বাবু, দক্ষিণ কেরাণীগঞ্জ থানা বিএনপির সহ-সভাপতি ওমর শাহনেওয়াজ, দক্ষিণ কেরাণীগঞ্জ থানা যুবদলের সাবেক সভাপতি মোকাররম হোসেন সাজ্জাদসহ ১০৮ জনের নাম উল্লেখ ও অজ্ঞাতনামা আরো অনেককে অভিযুক্ত করা হয়েছে।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা মডেল থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মুন্সি আসিকুর রহমান বলেন, “মামলায় এজাহারভুক্ত ৯ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। তারা হলেন; কাইয়ুম, মাহবুব, আহসান হাবিব, কবির, সেলিম, জাকির, আসিক, নবাব আলী ও সোবহান। অন্যদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।”

XS
SM
MD
LG