অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

রাশিয়া-ইরান সামরিক সহযোগিতা নিয়ে ‘গভীরভাবে উদ্বিগ্ন’ জাতিসংঘে যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রদূত


ফাইল চিত্র—জাতিসংঘে যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রদূত টমাস-গ্রিনফিল্ড জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদের এক বৈঠকে বক্তব্য রাখছেন। ২৪ এপ্রিল, ২০২৩। জাতিসংঘের হেড-কোয়ার্টারে।
ফাইল চিত্র—জাতিসংঘে যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রদূত টমাস-গ্রিনফিল্ড জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদের এক বৈঠকে বক্তব্য রাখছেন। ২৪ এপ্রিল, ২০২৩। জাতিসংঘের হেড-কোয়ার্টারে।

জাতিসংঘে যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রদূত লিন্ডা টমাস-গ্রিনফিল্ড শুক্রবার বলেছেন, রাশিয়া ও ইরানের মধ্যে “ক্রমবর্ধমান সামরিক সহযোগিতা নিয়ে গভীরভাবে উদ্বিগ্ন” তিনি। এর কারণ,”ইউক্রেনের বিরুদ্ধে নৃশংস যুদ্ধ চালাতে রাশিয়াকে” এটি সক্ষম করবে।

এক বিবৃতিতে টমাস -গ্রিনফিল্ড এক বিবৃতিতে বলেছেন, যুক্তরাষ্ট্রের নথি দফতর সম্প্রতি তথ্য দিয়ে জানিয়েছে ইরান কীভাবে রাশিয়াকে শত শত একমুখী, মানবশূন্য বায়ুযান ও ইউএভি উৎপাদনকারী সরঞ্জাম দিয়েছে এবং “সাম্প্রতিক কয়েক সপ্তাহে কিভে হামলা করতে, ইউক্রেনীয় পরিকাঠামো ধ্বংস করতে ও ইউক্রেনীয়দের হত্যা ও সন্ত্রস্ত করতে” রাশিয়াকে সক্ষম করেছে সে বিষয়টি তুলে ধরে যুক্তরাষ্ট্র সম্প্রতি তথ্য প্রকাশ করেছে।

তিনি বলেন, রাশিয়া ও ইউক্রেনের ক্রিয়াকলাপ জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদের ২২৩১-নম্বর প্রস্তাব লঙ্ঘন করছে। এই প্রস্তাবে “জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদের স্থায়ী সদস্যসহ সমস্ত দেশকে ইরান থেকে এই ধরনের অস্ত্র আনার বিষয়ে নিষেধ করা হয়েছে।”

টমাস-গ্রিনফিল্ড জানান, ইউক্রেন ও যুক্তরাষ্ট্রসহ বহু দেশ এই লঙ্ঘনের বিষয়ে নিরাপত্তা পরিষদকে জানিয়েছে। প্রয়োজনীয় তথ্য ও বিশ্লেষণও দিয়েছে তারা।

তিনি বলেন,”এই লঙ্ঘনের বিষয়ে তদন্ত করতে আন্তর্জাতিক গোষ্ঠীর আহ্বানে আশু সাড়া দেওয়া জরুরি মহাসচিবের ।এতে অনেকের জীবন রক্ষা পেতে পারে।”

XS
SM
MD
LG