অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

ভারতে বিহারের মুখ্যমন্ত্রীর বিরোধী সমাবেশের আগে মন্ত্রীর ইস্তফায় ফাটল রাজ্যের মহাজোটে


বিহারের মুখ্যমন্ত্রী নীতীশ কুমার। (ফাইল ছবি)
বিহারের মুখ্যমন্ত্রী নীতীশ কুমার। (ফাইল ছবি)

ভারতের বিহারে নীতীশ কুমারের মন্ত্রিসভা থেকে সরে গেল প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী জীতন রাম মাঝির দল হিন্দুস্থান আওয়াম মোর্চা। জীতনের পুত্র সন্তোষ ছিলেন নীতীশের মন্ত্রিসভার তফসিলি জাতি ও উপজাতি কল্যাণ মন্ত্রী।

সন্তোষের ইস্তফা আসলে মুখ্যমন্ত্রী নীতীশ কুমারের প্রতি অনাস্থা। সে কথা প্রকাশ্যে ঘোষণাও করেছেন পদত্যাগী মন্ত্রী। বলেছেন, "মুখ্যমন্ত্রী নীতীশ হিন্দুস্থানী আওয়াম মোর্চাকে শেষ করতে চান। দলের অস্তিত্ব রক্ষা করতেই ইস্তফা দিলাম।"

নীতীশের প্রতি তাঁর এতটাই অসন্তোষ যে পদত্যাগপত্র মুখ্যমন্ত্রীকে না দিয়ে সন্তোষ তা দিয়েছেন অর্থ ও পরিষদীয় মন্ত্রী জীতেন্দ্র চৌধুরীকে। নীতীশ অবশ্য পদত্যাগপত্র গ্রহণ না করে অর্থমন্ত্রীকেই বলছেন জীতনরাম ও সন্তোষের সঙ্গে কথা বলতে।

আগামী ২৩ জুন বিহারের পাটনাতেই নীতীশের ডাকে বসতে চলেছে বিরোধী দলগুলির সম্মেলন। তার আগে শরিক মন্ত্রীর ইস্তফাকে রাজ্যের মহাজোটে ফাটল বলেই মনে করছে রাজনৈতিক মহল। তাৎপর্যপূর্ণ হল, ২৩-এর সমাবেশে নীতীশ রাজ্যের এই শরিক দলকে আমন্ত্রণ জানাননি।

জীতন রামকে নিয়ে অনেক দিন ধরেই শাসক জোটে গোলমাল চলছে। ঘরোয়া আলোচনায় এই প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী আগামী লোকসভা ভোটে তাঁর দলের জন্য পাঁচটি আসন দাবি করেছেন। নীতীশ সেই দাবি মানতে নারাজ। ২০১৯-এর লোকসভা ভোটে জীতনের দল তিনটি আসনে লড়াই করে একটিতেও জিততে পারেনি।

এপ্রিলের শেষে আচমকাই দিল্লি গিয়ে কেন্দ্রের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহের সঙ্গে দেখা করেন প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী জীতন। বৈঠকের কারণ নিয়ে কেউই মুখ খোলেননি। তবে বিভিন্ন রাজনৈতিক সূত্রে খবর, জীতনকে বিহারে বিজেপির জোটে নিতে আগ্রহী শাহ। বিনিময়ে জীতন তাঁর নেতা প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী কর্পুরী ঠাকুরকে মরণোত্তর ভারতরত্ন ঘোষণার দাবি জানিয়েছেন। পর্যবেক্ষকদের মতে, প্রাক্তন এই দলিত মুখ্যমন্ত্রীর দলের অন্তত পাঁচ শতাংশ ভোট আছে। বিজেপি সেই কারণে শাসক মহাজোটে ফাটল ধরাতে মরিয়া।

XS
SM
MD
LG