অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

বর্ষপূর্তির আগেই ভারতের মহারাষ্ট্রে শিবসেনা-বিজেপি শাসক জোটের মধ্যে ক্রমশ বাড়ছে বিবাদ


ভারতের মহারাষ্ট্রে শাসক জোটের ফাটল ক্রমে চওড়া হচ্ছে। কিছুদিন আগেই কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ মুখ্যমন্ত্রী একনাথ শিন্ডেকে দিল্লিতে ডেকে মন্ত্রিসভা থেকে পাঁচ শিবসেনা মন্ত্রীকে বাদ দেওয়ার ফতোয়া শুনিয়েছেন। শাহের নির্দেশ ঘিরে শাসক জোটের দুই শরিক শিবসেনা ও বিজেপির মধ্যে চাপানউতোর চলছে। ৩০ জুন রাজ্যের এই জোট সরকারের বর্ষপূর্তি। সংবাদ সূত্রে প্রকাশ তার আগে পাঁচ মন্ত্রীকে অপসারণের নির্দেশ নিয়ে বেজায় বিরক্ত মুখ্যমন্ত্রী শিন্ডে।

এরই মধ্যে সংবাদপত্রে পাতা জুড়ে বিজ্ঞাপন দিয়ে শিবসেনা দাবি করেছে, মহারাষ্ট্রে জনপ্রিয়তায় মুখ্যমন্ত্রী শিন্ডে এক নম্বরে। বিজ্ঞাপনের শিরোনাম অবশ্য ‘রাজ্যে শিন্ডে, দেশে মোদী।’

এই বিজ্ঞাপন ঘিরে তুমুল রেষোরেষি শুরু হয়েছে শাসক জোটের দুই শরিকের মধ্যে। মহারাষ্ট্রের সরকারে প্রধান শক্তি বিজেপি। জোট রাজনীতির ধর্ম মেনে তারা শিবসেনার একনাথ শিন্ডেকে মুখ্যমন্ত্রী করেছে। জোটধর্ম মেনেই দুবারের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী ফড়ণবিশ বিজেপির কেন্দ্রীয় নেতৃত্বের নির্দেশে শিন্ডের মন্ত্রিসভায় উপমুখ্যমন্ত্রী হিসাবে দায়িত্ব পালন করছেন। যদিও রাজনৈতিক মহল একবাক্যে মানে মহারাষ্ট্রের রাজনীতিতে ফড়ণবিশ খুবই ওজনদার নেতা এবং বিজেপির কর্মী-সমর্থকদের কাছে তাঁর বিপুল জনপ্রিয়তা রয়েছে।

শিন্ডের শিবসেনা সরকারের বর্ষপূর্তি উপলক্ষ্যে সমীক্ষা রিপোর্টসহ বিজ্ঞাপনটি প্রকাশ করেছে। তাতে যেভাবে শিন্ডেকে রাজ্যের জনপ্রিয়তম নেতা হিসাবে তুলে ধরে ফড়নবিশকে দ্বিতীয় স্থানে রাখা হয়েছে তা নিয়েই গোল বেঁধেছে। বিজ্ঞাপনটিকে প্রধানমন্ত্রী মোদীর ছবি রয়েছে। কিন্তু স্থান পায়নি ফড়ণবিশের ছবি।

শিবসেনার বক্তব্য, এটা সরকারি বিজ্ঞাপন নয়, দলের তরফে প্রচার করা হয়েছে। সেখানে বিজেপি নেতা ফড়ণবিশের ছবি থাকার প্রশ্নই ওঠে না।

বিজেপির অবশ্য আপত্তি শিন্ডেকে দলের বিজ্ঞাপনে নিজেকে রাজ্যের জনপ্রিয়তম নেতা হিসাবে তুলে ধরায়। গোড়ায় বিজেপি রাজ্য নেতৃত্ব বিজ্ঞাপনটি নিয়ে কড়া প্রতিক্রিয়া দেখাননি। কিন্তু সমাজমাধ্যমে দলের কর্মী-সমর্থকদের প্রতিক্রিয়া দেখে মুখ খোলেন অনেক নেতা-ই। তাঁদের বক্তব্য, শিবসেনার বিজ্ঞাপনটি রুচিহীন। পয়সা দিলে এমন অনেক সমীক্ষা বানিয়ে নেওয়া যায়। তবে বিজেপির প্রথমসারির নেতাদের প্রকাশ্যে কড়া প্রতিক্রিয়া না দেওয়াকেও অনেকেই ফাটলের আভাস মনে করছেন।

বিজ্ঞাপনটিতে অবশ্য দাবি করে হয়েছে, সমীক্ষায় জানা গিয়েছে, এখন ভোট হলে বিপুল আসন নিয়ে ক্ষমতায় ফিরবে শিবসেনা-বিজেপি জোটই। এই জোটের ঝুলিতে আসবে প্রায় ৪৬ শতাংশ ভোট। জোট জিতবে দুই তৃতীয়াংশ আসনে। অর্থাৎ শিবসেনা-বিজেপি জোটই রাজ্যের ভবিষ্যৎ এই দাবি করা হয়েছে। তবে ফল এমন ধরে নিলেও শিন্ডে আর মুখ্যমন্ত্রী হবেন কিনা তা নিয়ে সংশয় আছেই। সমীক্ষায় স্বভাবতই সেই প্রসঙ্গে কিছু বলা হয়নি।

XS
SM
MD
LG