অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

বাংলাদেশকে মৎস্য খাতে ভর্তুকি কমাতে পরামর্শ দিয়েছে ডব্লিউটিও


জেনেভায় হোটেল প্রেসিডেন্টের সভাকক্ষে, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে ডব্লিউটিও'র মহাপরিচালক ড. ওকোনজো ইওয়েলার সাক্ষাৎ।
জেনেভায় হোটেল প্রেসিডেন্টের সভাকক্ষে, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে ডব্লিউটিও'র মহাপরিচালক ড. ওকোনজো ইওয়েলার সাক্ষাৎ।

বাংলাদেশকে মৎস্য খাতে ভর্তুকি কমানোর পরামর্শ দিয়েছে বিশ্ব বাণিজ্য সংস্থা (ডব্লিউটিও)। বৃহস্পতিবার (১৫ জুন) জেনেভায় হোটেল প্রেসিডেন্টের সভাকক্ষে, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে সাক্ষাৎকালে ডব্লিউটিও'র মহাপরিচালক ড. ওকোনজো ইওয়েলা এমন পরামর্শ দেন।

পরে বাংলাদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন বৈঠক সম্পর্কে সাংবাদিকদের অবহিত করেন। তিনি ডব্লিউটিও মহাপরিচালকের উদ্ধৃতি দিয়ে বলেন, তার সংস্থা এ বিষয়ে বাংলাদেশের সঙ্গে একটি চুক্তি করতে আগ্রহী।

আব্দুল মোমেন বলেন, “যদিও বাংলাদেশ মৎস্য খাতে ব্যাপক ভর্তুকি দেয় না; আমরা বলেছি যে আমরা এটা (ভর্তুকি ইস্যু) বিবেচনা করবো।” তিনি বলেন, ডব্লিউটিও-এর বিরোধ নিষ্পত্তিকারী সংস্থা কার্যকর করার বিষয়ে ডব্লিউটিও মহাপরিচালক বলেছেন যে কয়েকটি বড় দেশের কারণে কয়েকে এটা বছর ধরে নিষ্ক্রিয় রয়েছে।

মোমেন জানিয়েছেন যে আগামী সেপ্টেম্বরে নয়াদিল্লিতে অনুষ্ঠেয় জি-২০ সম্মেলনে এবং অন্যান্য আন্তর্জাতিক ফোরামে এ বিষয়টি উত্থাপনের জন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে অনুরোধ করেছেন ওকোনজো ইওয়েলা। ড. মোমেন জানান, প্রধানমন্ত্রীকে তিনি বলেছেন, “এটাই বিশ্ব বাণিজ্য সংস্থার প্রধান শক্তি।”

ডব্লিউটিও’র মহাপরিচালক বাংলাদেশকে এর বানিজ্য-ঝুড়িতে বৈচিত্র্য আনতে বলেন। এ প্রসঙ্গে তিনি আশা করেন যে বাংলাদেশ তৈরি পোশাক রপ্তানির ওপর নির্ভরতা কমিয়ে ওষুধ ও তথ্যপ্রযুক্তি খাতের ওপর গুরুত্বারোপ করবে।

গভীর সমুদ্রে মাছ ধরা প্রসঙ্গে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, “এ খাতে বাংলাদেশের সক্ষমতার অভাব রয়েছে।” গভীর সমুদ্রে মাছ ধরার ক্ষেত্রে জাপান, থাইল্যান্ড ও মালদ্বীপের অভিজ্ঞতা থেকে শিক্ষা গ্রহণের ওপর গুরুত্বারোপ করেন ওকোনজো ইওয়েলা। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা জানান, এ বিষয়ে তিনি ইতোমধ্যে মালদ্বীপ ও জাপানের সঙ্গে কথা বলেছেন।

এর আগে কাতারের শ্রম মন্ত্রী ড. আলী বিন সামিক আল মারি একই স্থানে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে কথা বলেন। ড. আলী বিন সামিক আল মারি বলেন, তার দেশে প্রায় ৩ লাখ ৭০ হাজার বাংলাদেশি কাজ করছেন।বাংলাদেশি শ্রমিকদের দক্ষতায় তারা সন্তুষ্ট বলেও জানান কাতারের শ্রম মন্ত্রী।

পররাষ্ট্র আব্দুল মোমেন জানান, “বাংলাদেশ থেকে আরো জনশক্তি নিতে আগ্রহ প্রকাশ করেছে কাতার। তারা এই উদ্দেশ্যে একটি চুক্তি সই করবে।”

XS
SM
MD
LG