অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

বাংলাদেশ ও যুক্তরাজ্যের মধ্যে বাণিজ্য বৃদ্ধির লক্ষ্যে এফবিসিসিআই-এইচএসবিসি চুক্তি সই


বাংলাদেশ ও যুক্তরাজ্যের মধ্যে বাণিজ্য বৃদ্ধির লক্ষ্যে রাজধানী ঢাকার একটি হোটেলে চুক্তি সই করেছে এফবিসিসিআই ও এইচএসবিসি। ১৯ জুন, ২০২৩।
বাংলাদেশ ও যুক্তরাজ্যের মধ্যে বাণিজ্য বৃদ্ধির লক্ষ্যে রাজধানী ঢাকার একটি হোটেলে চুক্তি সই করেছে এফবিসিসিআই ও এইচএসবিসি। ১৯ জুন, ২০২৩।

যুক্তরাজ্য ও বাংলাদেশের বাণিজ্যকে আরো জোরদার করতে, একসঙ্গে কাজ করবে বাংলাদেশের ব্যবসায়ীদের র্শীষ সংগঠন ফেডারেশন অফ বাংলাদেশ চেম্বারস অফ কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রি (এফবিসিসিআই) এবং হংকং অ্যান্ড সাংহাই ব্যাংকিং করপোরেশন লিমিটেড (এইচএসবিসি)। এ লক্ষ্যে, সোমবার (১৯ জুন) বিকালে রাজধানী ঢাকার একটি হোটেলে চুক্তি সই করেছে এফবিসিসিআই ও এইচএসবিসি।

চুক্তির আওতায়, যুক্তরাজ্য ও বাংলাদেশের বাণিজ্যিক বাজার নিয়ে একটি সমীক্ষা পরিচালনা করবে আর্নস্ট এন্ড ইয়ং এবং কে এশিয়া। এই গবেষণার প্রাথমিক উদ্দেশ্য, বাংলাদেশ ও যুক্তরাজ্যের মধ্যে বিদ্যমান বর্তমান দ্বিপক্ষীয় ব্যবসা ও বিনিয়োগের উন্নয়ন।

দুই দেশের মধ্যে পারস্পরিক সহযোগিতার নতুন ক্ষেত্রগুলো খুঁজে বের করার লক্ষ্যে, ‘বাংলাদেশ-ইউকে বিজনেস করিডোর: লিগ্যাসি এন্ড দ্য ফিউচার’ শীর্ষক এই উদ্যোগের উদ্বোধন করেন বাংলাদেশের বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি।

টিপু মুনশি বলেন, “সমসাময়িক রপ্তানি নীতি ও দ্বিপক্ষীয় সুসর্ম্পকের মাধ্যমে, যুক্তরাজ্যের সঙ্গে আমাদের ব্যবসার পরিসর ক্রমশই বৃদ্ধি পেয়েছে। দেশটির সঙ্গে স্থাপিত চুক্তির মাধ্যমে এই সম্পর্ক ভবিষ্যতে আরো বৃদ্ধি পাবে। আর, এই ধরনের সমীক্ষা পরিচালনার উদ্যোগ গ্রহণে এইচএসবিসি ও এফবিসিসিআইকে আমি ধন্যবাদ জানাই। নিঃসন্দেহে এই সমীক্ষা, দুই দেশের ব্যবসা ও বিনিয়োগের সম্ভাবনাময় সুযোগ উন্মোচন করবে।”

এফবিসিসিআই সভাপতি মো. জসিম উদ্দিন বলেন, “যুক্তরাজ্য ও বাংলাদেশের মানুষদের মধ্যে রয়েছে এক চমৎকার আত্মিক সম্পর্ক। আর, বাংলাদেশের জন্য যুক্তরাজ্য একটি গুরুত্বপূর্ণ রপ্তানি গন্তব্য। বর্তমানে এই বাণিজ্যিক সম্পর্ক কিছু নির্দিষ্ট পণ্যে সীমাবদ্ধ। আমি মনে করি, এই বাণিজ্যিক সম্পর্কের উন্নয়ন ও বৈচিত্রকরণে, উভয় দেশের নীতিনির্ধারক এবং ব্যবসায়িক নেতাদের একসঙ্গে কাজ করা প্রয়োজন। ক্রমবর্ধমান ব্যবসা, বিনিয়োগ ও অর্থনৈতিক সম্পর্কের উন্নয়নে এই সমীক্ষা একটি সময়োপযোগী উদ্যোগ।”

এইচএসবিসি বাংলাদেশের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মো. মাহবুব উর রহমান, যুক্তরাজ্য-বাংলাদেশ ব্যবসায়িক সম্পর্কের ঐতিহাসিক গুরুত্বের পাশাপাশি উভয় দেশের মধ্যে বাণিজ্য উন্নয়নে এইচএসবিসির সক্ষমতার নতুন মাত্রা তুলে ধরেন।

তিনি বলেন, “যুক্তরাজ্য বাংলাদেশে দ্বিতীয় বৃহত্তম বিনিয়োগকারী এবং তৃতীয় বৃহত্তম রপ্তানি গন্তব্য। এই গবেষণা আমাদের নিজস্ব ব্যবসা ও বিনিয়োগ ব্যবস্থায় নতুন সম্ভাবনার সন্ধান পেতে সাহায্য করবে।আমি এই উদ্যোগে অংশীদারিত্বের জন্য এফবিসিসিআইকে এবং গবেষণায় সাহায্যের জন্য আর্নস্ট এন্ড ইয়ং এবং কে এশিয়াকে ধন্যবাদ জানাই।”

XS
SM
MD
LG