অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

ভারতে হরিয়াণায় বিশ্ব হিন্দু পরিষদের মিছিলে ছড়াল হিংসা, আহত অনেকে, নিয়ন্ত্রণে ব্যর্থ পুলিশ


ভারতে হরিয়াণায় বিশ্ব হিন্দু পরিষদের মিছিলে ছড়াল হিংসা, আহত অনেকে, নিয়ন্ত্রণে ব্যর্থ পুলিশ।
ভারতে হরিয়াণায় বিশ্ব হিন্দু পরিষদের মিছিলে ছড়াল হিংসা, আহত অনেকে, নিয়ন্ত্রণে ব্যর্থ পুলিশ।

সোমবার ৩১ জুলাই, ভারতের হরিয়াণায় আচমকাই এক ধর্মীয় মিছিলে প্রবল হিংসা ছড়িয়ে পড়ে। হিংসা এতটাই মারাত্মক আকার নেয় যে, তার মধ্যে পড়ে বাড়ি ফিরতে পারছেন না হরিয়ানার গুরুগ্রাম এলাকার বাসিন্দারা। মহিলা, শিশু-সহ প্রায় আড়াই হাজার মানুষ কোনও রকমে একটি মন্দিরে আশ্রয় নিয়েছে বলে সংবাদ সূত্রে জানা গেছে। গোটা এলাকাজুড়ে ছোড়া হচ্ছে পাথর, পোড়ানো হচ্ছে গাড়ি, চলছে গুলিও। ঘটনায় প্রায় ২০ জন আহত, গুলি লেগেছে একজনের গায়ে। জানা গেছে, পুলিশ ইতিমধ্যেই কাঁদানে গ্যাস ছুঁড়েছে, শূন্যে গুলি চালিয়েছে। তবু শান্ত হয়নি পরিস্থিতি।

পুলিশ সূত্রের খবর, এলাকায় ইতিমধ্যেই ইন্টারনেট পরিষেবা বিচ্ছিন্ন করা হয়েছে এবং বড় জমায়েত নিষিদ্ধ করার নির্দেশ জারি হয়েছে।

সংবাদ সূত্রে জানা গেছে, গুরুগ্রাম সংলগ্ন নুহ এলাকায় একটি ধর্মীয় মিছিল চলছিল। বিশ্ব হিন্দু পরিষদ আয়োজিত সেই মিছিল আদতে ছিল, ব্রিজ মণ্ডলের জলাভিষেক যাত্রা। সেই সময়েই গুরুগ্রাম-আলওয়ার জাতীয় সড়কে একদল যুবক সেই মিছিলে বাধা দেয় এবং পাথর ছোড়ে বলে অভিযোগ। ক্রমেই শুরু হয় হিংসা, সাধারণ মানুষও আক্রান্ত হন, যানবাহনের ক্ষতি হয়।

পুলিশ জানিয়েছে, ওই ধর্মীয় শোভাযাত্রায় অংশ নিতে আসা বহু মানুষ কাছেই একটি মহাদেব মন্দিরে আশ্রয় নিয়েছেন। তাঁদের গাড়িগুলো বাইরে রয়েছে, সেগুলির উপরে হামলা চালাচ্ছে দুর্বৃত্তরা। পুলিশ ভিড় সরাতে পারেনি বা নিরাপত্তা দিতে পারেনি আটকে থাকা ওই মানুষজনদের।

বজরং দলের কর্মী মনু মানেসরের সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করা একটি আপত্তিকর ভিডিওর কারণে এই সংঘর্ষের সূত্রপাত হয়। তার সঙ্গে ছিল কয়েকজন সহযোগীও। তাদের বিরুদ্ধে এলাকায় বহু অপরাধমূলক অভিযোগ রয়েছে অনেক দিন ধরেই। এই অবস্থায় তারা কয়েকদিন আগে বিতর্কিত ওই ভিডিওটি প্রচার করে, যেখানে তারা খোলাখুলিভাবে চ্যালেঞ্জ করেছিল, যে এইদিন মিছিলে তারা থাকবে, কার কী করার আছে করে নিক।

স্থানীয় সূত্রের খবর, এই ভিডিও দেখেই রাগ জমেছিল এলাকাবাসীর একাংশের মধ্যে। তাঁরাই মিছিলে মনু এবং তার দলবলকে দেখে প্রতিশোধ নিতে চায়। সেই থেকেই পরিস্থিতি এমন ভয়ঙ্কর হিংসার রূপ নেয়।

XS
SM
MD
LG