অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

অগাস্ট মাস ঘিরে বিএনপি-জামায়াতের নেতৃত্বে নাশকতার ছক আঁকা হয়েছে—তথ্যমন্ত্রী হাছান মাহমুদ


তথ্যমন্ত্রী হাছান মাহমুদ। (ফাইল ছবি)
তথ্যমন্ত্রী হাছান মাহমুদ। (ফাইল ছবি)

ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও বাংলাদেশ সরকারের তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ বলেছেন, বাঙালির বেদনাবিধূর অগাস্ট মাস ঘিরে বিএনপি-জামায়াতের নেতৃত্বে নাশকতার ছক আঁকা হয়েছে।

হাছান মাহমুদ বলেন, “দেলাওয়ার হোসেন সাঈদীর স্বাভাবিক মৃত্যু হয়েছে। সেটিকে কেন্দ্র করে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টির অপচেষ্টা হচ্ছে গতরাত (১৪ আগস্ট) থেকে। এটি হচ্ছে বিএনপি-জামায়াত অগাস্ট মাসজুড়ে দেশব্যাপী যে নাশকতা-বিশৃঙ্খলার পরিকল্পনা করেছে তারই অংশ”।

মঙ্গলবার (১৫ অগাস্ট) বিকেলে রাজধানী ঢাকার কাকরাইলে তথ্য ভবনে জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে চলচ্চিত্র ও প্রকাশনা অধিদপ্তর (ডিএফপি) আয়োজিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

অগাস্ট মাস এলেই স্বাধীনতাবিরোধী অপশক্তি, জঙ্গিগোষ্ঠী তৎপর হয় উল্লেখ করে হাছান মাহমুদ বলেন, “১৫ অগাস্ট বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করা হয়েছে, ২১ অগাস্ট বঙ্গবন্ধুকন্যা শেখ হাসিনাকে হত্যার উদ্দেশ্যে গ্রেনেড হামলা করা হয়েছে। ১৭ অগাস্ট দেশের ৬৩ জেলার ৫০০ জায়গায় বোমা ফোটানো হয়েছে”।

অগাস্ট মাসকে বাঙালি জীবনের বেদনাবিধূর মাস হিসেবে বর্ণনা করে তিনি বলেন, এই অগাস্ট মাসেই সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে হত্যা করা হয়েছে। এই অগাস্ট মাসেই মহাপ্রয়াণ ঘটেছে কবিগুরু রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের, মৃত্যুবরণ করেছেন দ্রোহের কবি, জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম। এই অগাস্ট মাসেই ফাঁসির মঞ্চে নিজে গলায় দড়ি পরিয়েছেন ক্ষুদিরাম বসু।

হাছান মাহমুদ আরও বলেন, “বাঙালি জীবনের বেদনাবিধূর এই মাস এলেই বাঙালিবিরোধী, বাঙালিত্ববিরোধী, আমাদের কৃষ্টি-সংস্কৃতিবিরোধী, দেশবিরোধী অপশক্তি তৎপর হয়। সেজন্য আমাদের সবার সতর্ক দৃষ্টি রাখা প্রয়োজন। আমাদের দেশকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়া প্রয়োজন। আর দেশকে এগিয়ে নিতে হলে সবাইকে ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করতে হবে”।

সরকার সবসময় জঙ্গিদের নিয়ে নাটক করে—বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল

এদিকে বাংলাদেশের সরকার বিরোধী রাজনৈতিক দল বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দলের (বিএনপি) মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর অভিযোগ করে বলেছেন, চলমান আন্দোলন থেকে জনগণের দৃষ্টি সরাতে এবং বিদেশিদের জুজুর ভয় দেখানোর জন্য মৌলভীবাজার জেলার কুলাউড়ায় জঙ্গিবাদ বিরোধী অভিযান চালিয়ে সরকার নাটক করেছেন।

মির্জা ফখরুল বলেন, সরকার সবসময় জঙ্গিদের নিয়ে নাটক করে। “এটা একটা অশুভ লক্ষণ। এখন দেখবেন তারা জঙ্গিদের কথা বলে জনগণের দৃষ্টি অন্যদিকে সরিয়ে দেওয়ার চেষ্টা করবে। তারা আবার ক্ষমতায় না এলে বাংলাদেশে জঙ্গিবাদ নিয়ন্ত্রণ করা যাবে না—এই কথা বলে পশ্চিমা বিশ্বকে ভয় দেখানোর চেষ্টা করে তারা”।

ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটিতে (ডিআরইউ) এক আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। ১৩ আগস্ট, ২০২৩।
ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটিতে (ডিআরইউ) এক আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। ১৩ আগস্ট, ২০২৩।

রবিবার (১৩ অগাস্ট) ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটিতে (ডিআরইউ) আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে তিনি অভিযোগ করেন। বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমানের প্রয়াত ছোট ছেলে আরাফাত রহমান কোকোর ৫৪তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে বাংলাদেশ ক্রীড়া উন্নয়ন পরিষদ এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করে।

মির্জা ফখরুল বলেন, তারা (সরকার) কতটা ভয়ংকর তার প্রমাণ হলো তারা কুলাউড়ার একটি প্রত্যন্ত বাড়ি থেকে আকস্মিক জঙ্গিবাদ বিরোধী অভিযানের মাধ্যমে ৪ জন পুরুষ, ৫ জন মহিলা এবং ১ জন শিশুকে আটক করেছে। এ ছাড়া তারা ৩ কেজি বিস্ফোরক ও ডেটোনেটরও জব্দ করেছে।

মির্জা ফখরুল সন্দেহভাজন জঙ্গিরা হঠাৎ কোথা থেকে ওই বাড়িতে গেল এবং কারা তাদের নিয়ে এল এবং কীভাবে তারা সেখানে বিস্ফোরক ও ডেটোনেটর নিয়ে এসেছিল তা নিয়ে প্রশ্ন তোলেন।

মির্জা ফখরুল আরও বলেন, আওয়ামী লীগ সরকার যতই কৌশল অবলম্বন করুক না কেন এবার সরকারে অবশ্যই পরিবর্তন হবে।

দলের নেতাকর্মীদের উদ্দেশে মির্জা ফখরুল বলেন, আপনারা নিশ্চিন্ত থাকতে পারেন পরিবর্তন আসছে, পরিবর্তন আসবেই, সত্য ও সুন্দরের জয় হবে এবং গণতন্ত্রের জয় হবে ইনশাআল্লাহ।

মির্জা ফখরুল বলেন, তাদের দল জনগণের শক্তি এবং গণতন্ত্রের রাজনীতিতে বিশ্বাস করে, যা এখন সমগ্র বিশ্বের দ্বারা প্রশংসিত। এ কারণেই আমরা এখন এতটা আশাবাদী। অনেকেই আমাকে জিজ্ঞেস করেন কেন আমি সবসময় এমন হাসি মুখে থাকি। আমি হাসি কারণ আমি স্পষ্ট দেখতে পাচ্ছি যে এই ভয়ংকর দানব (সরকার) জনগণের উত্তাল ঢেউয়ের তোড়ে দিয়ে আমাদের বুক থেকে সরে যাচ্ছে।

ক্ষমতা হারানোর ভয়ে ক্ষমতাসীন দলের নেতারা নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন এবং পরস্পরবিরোধী মন্তব্য করছেন বলে উল্লেখ করে মির্জা ফখরুল বলেন, তত্ত্বাবধায়ক সরকারের অধীনে নির্বাচন হলে আওয়ামী লীগ ১০ শতাংশ আসনও পাবে না।

XS
SM
MD
LG