অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

সুদান যুদ্ধে লাখ লাখ মানুষের জীবন বিপন্ন


সুদানের দারফুর অঞ্চলে সংঘাত থেকে পালিয়ে আসা সুদানী শরণার্থীদের চাদের বোরোতায় সুদান ও চাদের সীমান্তের কাছে একটি অস্থায়ী শিবিরে দেখা যায়। (১৩ মে, ২০২৩।)
সুদানের দারফুর অঞ্চলে সংঘাত থেকে পালিয়ে আসা সুদানী শরণার্থীদের চাদের বোরোতায় সুদান ও চাদের সীমান্তের কাছে একটি অস্থায়ী শিবিরে দেখা যায়। (১৩ মে, ২০২৩।)

সুদানে যুদ্ধের চার মাসে নৃশংস সংঘাতের ফলে লক্ষ লক্ষ মানুষের জীবন ধ্বংস এবং যাদের মৌলিক মানবাধিকার লঙ্ঘিত হয়েছে তা মানবিক নেতারা তুলে ধরছেন।

মঙ্গলবার এক বিবৃতিতে জাতিসংঘ ও ২০টি আন্তর্জাতিক মানবিক সংস্থার প্রধান কয়েক মাস ধরে সুদানের জনগণকে আতঙ্কিত করে রাখা 'অবিলম্বে শত্রুতা বন্ধ' করার আহ্বান জানান। সেই সাথে সুদানকে সঠিক পথে ফিরিয়ে এনে এবং যুদ্ধের অবসান ঘটাতে কাজ করার কথা বলেন।

জাতিসংঘের মানবাধিকার দপ্তর জানিয়েছে, সুদানের সশস্ত্র বাহিনী এবং প্রতিদ্বন্দ্বী আধাসামরিক বাহিনীর র‍্যাপিড সাপোর্ট ফোর্স উভয়ই সংঘাতের সময় "আন্তর্জাতিক মানবিক ও মানবাধিকার আইন লঙ্ঘন” অন্যান্য মানবাধিকার আইনের গুরুতর লঙ্ঘন করেছে বলে বিশ্বাস করার "যুক্তিসঙ্গত কারণ" রয়েছে।

তুর্ক বলেন, বিপুল সংখ্যক মানুষকে জোর পূর্বক বাস্তুচ্যুত করা এবং যৌন সহিংসতা্”যুদ্ধাপরাধের শামিল হতে পারে” এবং এসব ও অন্যান্য অপরাধের অপরাধীদের অবশ্যই জবাবদিহিতার আওতায় আনতে হবে।

তিনি গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করে বলেন, এই বিশৃঙ্খল পরিস্থিতিতে সহিংসতা আরও বাড়তে পারে।

মানবাধিকার প্রধানের মুখপাত্র এলিজাবেথ থ্রসেল বলেন, যুদ্ধের তীব্রতার কারণে হতাহতের সঠিক সংখ্যা বের করা কষ্টকর হয়ে যাচ্ছে। শত শত বেসামরিক নাগরিকসহ এ পর্যন্ত চার হাজারেরও বেশি লোক নিহত হয়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে। প্রকৃত হতাহতের সংখ্যা আরও বেশি বলে মনে করা হচ্ছে।

XS
SM
MD
LG