অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

কেন্দ্রের 'মেক ইন ইন্ডিয়া' কর্মসূচীতে ভারতে স্মার্টফোন উৎপাদন ২ বিলিয়ন ছাড়িয়েছে


মানুষের চাহিদা মেটাতে আগামী ৬-১২ মাসে ভারতে মোবাইল ফোন তৈরির জন্য প্রায় ৬০ হাজার চাকরি তৈরির সম্ভাবনা রয়েছে।
মানুষের চাহিদা মেটাতে আগামী ৬-১২ মাসে ভারতে মোবাইল ফোন তৈরির জন্য প্রায় ৬০ হাজার চাকরি তৈরির সম্ভাবনা রয়েছে।

প্রযুক্তি এবং বিজ্ঞানগত দিক দিয়ে বিগত কয়েক বছরে উল্লেখযোগ্য উন্নতি করেছে ভারত। বিদেশের উপর নির্ভরশীল না থেকে ভারতেই এখন নানারকম ইলেকট্রনিক্স প্রোডাক্ট উৎপাদন হচ্ছে। মোবাইল ফোন উৎপাদনে ভারত যেমন বহু আগেই দ্বিতীয় স্থানে উঠে এসেছিল। আর এবার সাম্প্রতিক রিপোর্টে জানা গেল, কেন্দ্রীয় সরকারের ‘মেক ইন ইন্ডিয়া’ কর্মসূচির জেরে এদেশে স্মার্টফোন তৈরির হার ব্যাপকভাবে বেড়েছে। রিপোর্ট অনুযায়ী, ভারতে তৈরি স্মার্টফোনের ইউনিট পরিসংখ্যান বর্তমানে ২ বিলিয়ন অতিক্রম করেছে। শিপমেন্টের ক্ষেত্রে রেজিস্টার হয়েছে ২৩% কম্পাউন্ড অ্যানুয়াল গ্রোথ রেট-ও।

সংবাদ সূত্রের খবর, ‘অ্যাপল’, ‘স্যামসং’, ‘রেডমি’, ‘ওপ্পো’-এর মতো সমস্ত কোম্পানির পোর্টফোলিওতেই প্রচুর ‘মেক ইন ইন্ডিয়া’ ফোন রয়েছে বলে জানা গিয়েছে।

বিশেষজ্ঞদের মতে, এরফলে একটা বিষয় পরিষ্কার হয়ে যায় যে, ভারত ফোন তৈরিতে নতুন রেকর্ড গড়ার পথে হাঁটছে। বছরখানেক আগেই যদিও এক কেন্দ্রীয় মন্ত্রী জানিয়েছিলেন যে, মোবাইল ফোন উৎপাদনে ভারত দ্বিতীয় বৃহত্তম দেশ। তুলে ধরেছিলেন, ২০১৪ সাল থেকে ২০১৯ সাল পর্যন্ত ভারতে মোবাইল তৈরির পরিসংখ্যানও তুলে ধরেছিলেন তিনি। তবে মোদী সরকারের দ্বিতীয় আমলেও যে এর পরিবর্তন ঘটেনি, তা স্পষ্ট জানিয়ে দিয়েছেন কাউন্টার পয়েন্ট রিসার্চের ডিরেক্টর তরুণ পাঠক।

তিনি জানান যে, তারা এই কয়েক বছরে ক্রমশই স্থানীয় উৎপাদনে বৃদ্ধি দেখছেন। শুধুমাত্র ২০২২ সালেই সামগ্রিক ভারতীয় বাজারে ৯৮ শতাংশের বেশি শিপমেন্টে ছিল ‘মেক ইন ইন্ডিয়া’ প্রোডাক্ট। রিপোর্ট অনুযায়ী, বর্তমান সরকার যখন ২০১৪ সালে ক্ষমতায় আসে, তখন ‘মেক ইন ইন্ডিয়া’ প্রোডাক্টের শিপিংয়ের হার ছিল মাত্র ১৯%।

পর্যবেক্ষকদের একাংশের মতে, বর্তমান সরকার আত্মনির্ভর ভারত-এর মতো যেসব স্কিম চালু করেছে তাতেই উপকৃত হচ্ছে দেশীয় বাজার। উল্লেখ্য, অনুমান করা হচ্ছে যে, ভারত মোবাইল উৎপাদনে বিশ্বে দ্বিতীয় বৃহত্তম দেশ হওয়ার কারণে বহুল পরিমাণে কর্মসংস্থান হতে পারে। মানুষের চাহিদা মেটাতে আগামী ৬-১২ মাসে ভারতে মোবাইল ফোন তৈরির জন্য প্রায় ৬০ হাজার চাকরি তৈরির সম্ভাবনা রয়েছে। তবে এই নিয়োগ পুরোপুরি চাহিদার উপর ভিত্তি করেই হবে।

XS
SM
MD
LG