অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

খালেদা জিয়াকে বিদেশে চিকিৎসার অনুমতি দিতে ৫৮২ জন বিশিষ্ট নাগরিকের আহ্বান


বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া। (ফাইল ছবি)
বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া। (ফাইল ছবি)

বাংলাদেশের সাবেক প্রধানমন্ত্রী ও বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তি এবং বিদেশে উন্নত চিকিৎসার অনুমতি দিতে, সরকারের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন ৫৮২ জন বিশিষ্ট নাগরিক। বৃহস্পতিবার (৭ সেপ্টেম্বর) এক যৌথ বিবৃতিতে তারা এ আহবান জানান।

বিশিষ্ট নাগরিকরা বলেন, “খালেদা জিয়া গুরুতর অসুস্থ হয়ে বর্তমানে রাজধানীর এভারকেয়ার হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। তিনি অসুস্থ হয়ে পড়লে, ৯ আগস্ট তাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, তিনি এখন জীবন-মৃত্যুর সন্ধিক্ষণে রয়েছেন। দেশে তার চিকিৎসা করার মতো কিছুই অবশিষ্ট নেই।”

তারা আরো বলেন, “খালেদা জিয়াকে বাঁচাতে হলে তাকে চিকিৎসার জন্য বিদেশে একটি উন্নত কেন্দ্রে নিয়ে যাওয়া প্রয়োজন। আমরা সরকারকে রাজনীতির ঊর্ধ্বে গিয়ে, মানবিক দিক বিবেচনা করে, খালেদা জিয়োকে অবিলম্বে বিদেশে উন্নত চিকিৎসার সুযোগ দেয়ার আহ্বান জানাচ্ছি।”

স্বাক্ষরকারী বিশিষ্ট ব্যক্তিদের মধ্যে রয়েছেন; অধ্যাপক আনোয়ারউল্লাহ চৌধুরী, অধ্যাপক আ ফ ম ইউসুফ হায়দার, অধ্যাপক সিরাজ উদ্দিন আহমেদ, আইনজীবী এ জে মোহাম্মদ আলী, আইনজীবী জয়নুল আবেদীন, সাংবাদিক আলমগীর মহিউদ্দিন ও রুহুল আমিন গাজী

তারা বিদেশে চিকিৎসার সুবিধার্থে আদালতের মাধ্যমে বিএনপি চেয়ারপার্সন-কে স্থায়ী জামিনে মুক্তি দেয়ার জন্য সরকারের প্রতি আহ্বান জানান। ৭৮ বছর বয়সী খালেদা জিয়া দীর্ঘদিন ধরে লিভার সিরোসিস, আর্থ্রাইটিস, ডায়াবেটিস, কিডনি, ফুসফুস, হার্ট, চোখের সমস্যা, কোভিড পরবর্তী জটিলতাসহ বিভিন্ন রোগে ভুগছেন।

জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায়, ২০১৮ সালের ৮ ফেব্রুয়ারি ৫ বছরের কারাদণ্ড দেয়া হলে, খালেদা জিয়াকে কারাগারে পাঠানো হয়। পরে হাইকোর্ট তার সাজা বাড়িয়ে ১০ বছর করেন। ২০২০ সালের ২৫ মার্চ সরকার তাকে ৬ মাসের জন্য কারাগার থেকে শর্ত সাপেক্ষে মুক্তি দেয়। শর্তের মধ্যে রয়েছে, তিনি রাজধানীতে তার বাড়িতে থাকবেন এবং দেশ ত্যাগ করবেন না।

XS
SM
MD
LG