অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

নিউইয়র্ক শীর্ষ বৈঠকের পর মধ্য এশিয়ায় সঙ্গে ঘনিষ্ঠ সম্পর্কের সম্ভাবনা দেখছে যুক্তরাষ্ট্র


জাতিসংঘের সাধারণ অধিবেশনের ফাঁকে প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন কাজাখস্তান, কিরগিজস্তান, তাজিকিস্তান, তুর্কমেনিস্তান ও উজবেকিস্তানের নেতাদের সঙ্গে বৈঠক করেন; ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২৩।( কাজাখ প্রেসিডেন্টের দপ্তর থেকে)
জাতিসংঘের সাধারণ অধিবেশনের ফাঁকে প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন কাজাখস্তান, কিরগিজস্তান, তাজিকিস্তান, তুর্কমেনিস্তান ও উজবেকিস্তানের নেতাদের সঙ্গে বৈঠক করেন; ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২৩।( কাজাখ প্রেসিডেন্টের দপ্তর থেকে)

চলতি সপ্তাহে যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন মধ্য এশিয়ার ৫ দেশের নেতাদের সঙ্গে প্রথম বারের মতো নিউইয়র্কে বৈঠক করেছেন। বৈঠকের পর, যুক্তরাষ্ট্রের জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তারা এই দেশগুলোর সঙ্গে সম্পর্ক উন্নয়নের ব্যাপক সম্ভাবনা দেখছেন।

২০১৫ সালে এই তথাকথিত সি-ফাইভ প্লাস ওয়ান কূটনৈতিক প্ল্যাটফর্মের গোড়াপত্তন হয়। তবে, এ সপ্তাহের বৈঠকের আগে শুধু একবার সদস্য দেশগুলোর পররাষ্ট্রমন্ত্রীরা জাতিসংঘের সাধারণ অধিবেশনের ফাঁকে বৈঠক করেন। যুক্তরাষ্ট্রের কর্মকর্তারা ভবিষ্যতে রাষ্ট্রপ্রধান পর্যায়ের আরো বৈঠক আয়োজনের সম্ভাবনার কথা জানিয়েছেন।

যুক্তরাষ্ট্রের দক্ষিণ ও মধ্য এশিয়া বিষয়ক সহকারী সেক্রেটারি ডনাল্ড লু বলেন, “আমি শুনেছি, মধ্য এশিয়ার নেতারা জানিয়েছেন, তারা নিয়মিত এ ধরনের বৈঠকের আয়োজন চান”। তিনি ভয়েস অফ আমেরিকাকে জানান, এই সম্মেলন বার্ষিক আয়োজনে রূপ নিতে পারে।

যুক্তরাষ্ট্রের কর্মকর্তারা বলেন, ওয়াশিংটন অনুধাবন করে, এই অঞ্চলের দেশগুলো দুই শক্তিশালী প্রতিবেশী রাশিয়া ও চীনের সঙ্গে ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক ত্যাগ করবে না।তার পরও, তারা এই দেশগুলোকে একটি বিকল্প রুপকল্প দিতে খুবই আগ্রহী।

লু জানান, বাইডেন বৈশ্বিক নেতাদের উপদেশ দেয়া থেকে বিরত থাকার চেষ্টা করছেন, যার মধ্যে মধ্য এশিয়ার নেতারাও রয়েছেন। তিনি স্বীকার করেন, যুক্তরাষ্ট্রের নাগরিকরা “ আমাদের নিজ দেশে গণতন্ত্র রক্ষায় বড় আকারের সমস্যা মোকাবেলা করছেন।”

তিনি বলেন, সি-ফাইভ প্লাস ওয়ানে বাইডেন গণতন্ত্র ও মানবাধিকারের মতো বিষয়গুলোতে “কীভাবে সকলে একত্রে কাজ করতে পারে”, সে বিষয়ের ওপর জোর দিয়েছেন। তিনি আরো বলেন, “আমি যা শুনেছি, তাতে মনে হয়েছে পাঁচ নেতাই এ বিষয়ে খুবই ইতিবাচক মনোভাব পোষণ করেন এবং তারা নিজ নিজ দেশে সংস্কারের কথা ভাবছেন”।

লু নিশ্চিত করেন, মধ্য এশিয়ার পাঁচ দেশের প্রত্যেক নেতাই বাইডেনকে তাদের দেশ সফর করার আমন্ত্রণ জানিয়েছেন। লু বলেন, “তিনি (বাইডেন) আফগানিস্তানে অনেকটা সময় ব্যয় করেছেন, তিনি পাকিস্তান সফর করেছেন, কিন্তু তিনি মধ্য এশিয়ার কোনো দেশ সফর করেননি; আর, তিনি এই দেশগুলো সফর করতে খুবই আগ্রহী।”

XS
SM
MD
LG