অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

আবার ডলারের দাম বেড়েছে বাংলাদেশের খোলা বাজারে


আবার ডলারের দাম বেড়েছে বাংলাদেশের খোলা বাজারে।
আবার ডলারের দাম বেড়েছে বাংলাদেশের খোলা বাজারে।

আবার ডলারের দাম বেড়েছে বাংলাদেশের খোলা বাজারে। প্রতি ডলারের বিনিময় মূল্য এখন অন্তত ১২০ টাকা। সম্প্রতি খোলা বাজারে বেশি দামে ডলার বিক্রির অভিযোগে, বাংলাদেশ ব্যাংক ও আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী মানি চেঞ্জারদের বিরুদ্ধে অভিযান পরিচালনা করে। এর পর, ডলার সংকট তীব্রতর হয়।

সংশ্লিষ্টরা জানান, অনেকেই তাদের নেটওয়ার্কের মাধ্যমে ডলার কেনা-বেচা করছেন। সূত্র জানিয়েছে, যারা চিকিৎসা, শিক্ষা ও অন্যান্য জরুরি প্রয়োজনে বিদেশে ভ্রমণ করছেন, তাদের জন্য ডলারের একমাত্র উৎস হয়ে উঠেছে এই নেটওয়ার্ক।

রাজধানী ঢাকার মতিঝিল এলাকার একটি মানি এক্সচেঞ্জ হাউজের মালিক নাম প্রকাশ না করার অনুরোধ জানিয়ে, শনিবার ইউএনবিকে বলেন, “আমরা ১১৫ টাকায়ও ডলার কিনতেও পারি না। আমরা কীভাবে প্রতি ডলার ১১৩ দশমিক ৩০ টাকায় বিক্রি করবো।”

এক মাসের ব্যবধানে খোলা বাজারে ডলারের বিনিময় হার ১১২ টাকা থেকে ১২০-১২১ টাকায় পৌঁছেছে। বাজার সংশ্লিষ্টরা বলছেন, বাংলাদেশে ডলারের ব্যাপক ঘাটতি রয়েছে। বৈদেশিক মুদ্রার দাম অনিয়ন্ত্রিতভাবে বাড়ছে এবং টাকার মান কমছে। ফলে খোলা বাজারে ডলারের দাম ১২০ টাকা ছাড়িয়েছে।

বিভিন্ন এক্সচেঞ্জ হাউজ এবং ডলার ব্যবসার সঙ্গে জড়িতদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে যে বেশিরভাগ মানি চেঞ্জারের কাছে ডলার নেই। মানি চেঞ্জার অ্যাসোসিয়েশন অফ বাংলাদেশের মহাসচিব শেখ হেলাল সিকদার বলেন, “মানি চেঞ্জারদের জন্য ডলারের ক্রয়মূল্য ১১১ দশমিক ৮০ টাকা এবং ১১৩ দশমিক ৩০ টাকা বিক্রয়মূল্য নির্ধারণ করে দিয়েছে বাংলাদেশ ব্যাংক। এই দামে কেউ ডলার পাচ্ছে না। তাই, মানি চেঞ্জার প্রতিষ্ঠানগুলো এখন খালি হাতে বসে আছে।”

খোলা বাজারে ডলারের ঘাটতি সম্পর্কে এক প্রশ্নের জবাবে বাংলাদেশ ব্যাংকের নির্বাহী পরিচালক ও মুখপাত্র মেজবাউল হক বলেন, “ডলার লেনদেন হচ্ছে, কিন্তু সবাই তা বিক্রি করছে না।”

XS
SM
MD
LG