অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

পুতিন আক্রমণ জোরদার করার অঙ্গীকার করার পর ইউক্রেনের শহরগুলোতে রুশ হামলা


কিয়েভে রাশিয়ার হামলার পর আগুন ও ধোঁয়া উড়ছে। ২ জানুয়ারি, ২০২৪।
কিয়েভে রাশিয়ার হামলার পর আগুন ও ধোঁয়া উড়ছে। ২ জানুয়ারি, ২০২৪।

রাশিয়ার ব্যাপক ক্ষেপণাস্ত্র হামলায় কিয়েভ এবং খারকিভে অন্তত চারজন নিহত ও কয়েক ডজন মানুষ আহত হয়েছে। মঙ্গলবার ইউক্রেনের কর্মকর্তারা একথা জানান।

ইউক্রেনের বিমান বাহিনী বলেছে, বিমান ও সমুদ্র থেকে আক্রমণসহ রাশিয়ার বাহিনী ৩৫টি ড্রোন এবং ৯৯টি ক্ষেপণাস্ত্র নিক্ষেপ করেছে। ইউক্রেনের বিমান প্রতিরক্ষা বাহিনী সমস্ত ড্রোন এবং ৭২টি ক্ষেপণাস্ত্র ভূপাতিত করেছে।

ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেন্সকি বলেছেন, “৩১ ডিসেম্বর থেকে রাশিয়ার দানবরা ইতোমধ্যে ১৭০টি ‘শাহেদ’ ড্রোন এবং বিভিন্ন ধরনের কয়েক ডজন ক্ষেপণাস্ত্র নিক্ষেপ করেছে। সেগুলোর মধ্যে বেশিরভাগই বেসামরিক অবকাঠামোকে লক্ষ্যবস্তু করেছে।”

কিয়েভের মেয়র ভিটালি ক্লিটসকো বলেছেন, বিধ্বস্ত একটি ক্ষেপণাস্ত্র থেকে ধ্বংসাবশেষ পড়ে কমপক্ষে ২০ জন আহত হয়েছে এবং ইউক্রেনের রাজধানীতে একটি বহুতল ভবনে আগুন লেগেছে। তিনি শহরে একাধিক বিস্ফোরণের কথা জানিয়েছেন। বিমান প্রতিরক্ষা বাহিনী রাশিয়ার রকেট হামলার প্রতিক্রিয়ায় হামলা চালায়। অন্তত পাঁচটি জেলায় আগুন ছড়িয়ে পড়ে।

সকালে রাশিয়ার হামলায় কিয়েভের কিছু অংশে বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন হয়। গ্যাস লাইনও ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।

খারকিভের মেয়র ইহর তেরেখভ বলেছেন, শহরটিতে “ব্যাপক ক্ষেপণাস্ত্র হামলা” হয়েছে।

খারকিভের সেনা প্রশাসনের প্রধান ওলেগ সিনেগুবভ টেলিগ্রামে বলেছেন, রাশিয়ার হামলায় কমপক্ষে একজন নিহত ও চল্লিশজনের বেশি আহত হয়েছে।

সিনেগুবভ বলেন, হামলায় অবকাঠামোগত এলাকা ছাড়াও আবাসিক ও বাণিজ্যিক ভবন ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।

প্রতিবেশী পোল্যান্ডে, সেনাবাহিনী বলেছে, তারা রাশিয়ার হামলার মধ্যে তাদের আকাশসীমা রক্ষা করতে চারটি এফ-সিক্সটিন যুদ্ধবিমান পাঠিয়েছে।

রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের একটি সতর্কতার পরে মঙ্গলবারের এই হামলা হয়। পুতিন বলেছেন, রাশিয়া ইউক্রেনের ওপর হামলা জোরদার করবে। এর আগে রাশিয়ার শহর বেলগোরোডে শনিবার মারাত্মক একটি ইউক্রেনীয় হামলায় ২৪ জন নিহত এবং ১০০ জনের বেশি আহত হয়েছিল।

এই প্রতিবেদনের কিছু তথ্য এপি, এএফপি এবং রয়টার্স থেকে নেয়া হয়েছে।

XS
SM
MD
LG