অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

বিএনপি নেতা মির্জা ফখরুল আরেকটি মামলায় এবং আমীর খসরু দুটি মামলায় জামিন পেয়েছেন


বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর ও স্থায়ী কমিটির সদস্য আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী।
বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর ও স্থায়ী কমিটির সদস্য আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী।

বিরোধী রাজনৈতিক দল বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দলের (বিএনপি) মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরকে রাজধানী ঢাকার পল্টন মডেল থানায় দায়ের করা আরেকটি মামলায় জামিন দিয়েছেন আদালত।

এ ছাড়া, পুলিশ কনস্টেবল আমিরুল ইসলাম পারভেজ হত্যা মামলাসহ দুই মামলায় দলটির স্থায়ী কমিটির সদস্য আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরীকেও জামিন দিয়েছেন একই আদালত।

বুধবার (১৭ জানুয়ারি) ঢাকার চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট (সিএমএম) আদালতের ম্যাজিস্ট্রেট তাহমিনা হক ১০ হাজার টাকা মুচলেকায় তাঁদের জামিন মঞ্জুর করেন।

এর আগে ১০ জানুয়ারি রাজধানী ঢাকার রমনা ও পল্টন মডেল থানায় দায়ের করা নয়টি মামলায় মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরকে জামিন দেন ঢাকার অতিরিক্ত মুখ্য মহানগর হাকিম সুলতান সোহাগ উদ্দিন।

২০২৩ সালের ২৮ অক্টোবর নয়াপল্টনে বিএনপির জনসভাকে কেন্দ্র করে সহিংসতার ঘটনায় মির্জা ফখরুলের বিরুদ্ধে ১১টি এবং আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরীর বিরুদ্ধে ১০টি মামলা দায়ের করা হয়।

মির্জা ফখরুল ১১টি মামলার মধ্যে এ পর্যন্ত ১০টিতে এবং আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী মাত্র দুটি মামলায় জামিন পেয়েছেন।

আইনজীবী জয়নুল আবেদীন বলেন, আরও একটি মামলায় জামিন না পাওয়ায় মির্জা ফখরুলকে এখনই কারাগার থেকে মুক্তি দেওয়া হবে না।

২০২৩ সালের ২৮ অক্টোবর বিএনপির সমাবেশ চলাকালে প্রধান বিচারপতির বাসভবনে ভাংচুর ও হামলার অভিযোগে ২৯ অক্টোবর রমনা থানায় মামলা দায়ের করে পুলিশ।

মামলায় মির্জা ফখরুল ছাড়াও বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাসসহ ৫৯ নেতাকর্মীকে অভিযুক্ত করা হয়।

ওই মামলায় ২৯ অক্টোবর ফখরুলকে গ্রেপ্তার করা হয় এবং এরপর থেকে তিনি কারাগারে রয়েছেন।

XS
SM
MD
LG