অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

পাকিস্তানের বেলুচিস্তানে নিরাপত্তা বাহিনীর অভিযানে ২৪ বিদ্রোহী নিহত


পাকিস্তানের কোয়েটা শহরের একটি বোমা বিস্ফোরণ স্থল পরিদর্শন করছেন নিরাপত্তা কর্মীরা; ১ ফেব্রুয়ারি, ২০২৪।
পাকিস্তানের কোয়েটা শহরের একটি বোমা বিস্ফোরণ স্থল পরিদর্শন করছেন নিরাপত্তা কর্মীরা; ১ ফেব্রুয়ারি, ২০২৪।

পাকিস্তান কর্তৃপক্ষ শুক্রবার জানিয়েছে, দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলীয় বেলুচিস্তান প্রদেশে নিরাপত্তা বাহিনীর অভিযানে, এক শীর্ষস্থানীয় কমান্ডারসহ ২৪ সশস্ত্র বিচ্ছিন্নতাবাদী নিহত হয়েছে। তিন দিন ধরে পরিচালিত এই বিদ্রোহ-দমন অভিযানের সময়, এই সশস্ত্র বিচ্ছিন্নতাবাদীরা নিহত হয়।

সামরিক বাহিনীর মিডিয়া শাখা এক বিবৃতিতে নিশ্চিত করেছে, মঙ্গলবার ভোরে মাখ শহরে এই সংঘর্ষ হয়। এ সময় ৪ নিরাপত্তা কর্মী এবং ২ বেসামরিক নাগরিকও নিহত হয়েছে। বিবৃতিতে বলা হয়েছে, সংঘর্ষকালে গুরুত্বপূর্ণ সরকারি স্থাপনায় হামলা করে বিদ্রোহীরা। এই হামলায় এ হতাহতের ঘটনা ঘটে।

সামরিক বাহিনী জানিয়েছে, “এই নির্মূল অভিযানেরর সময় এলাকাটিতে তন্ন তন্ন করে অনুন্ধান চালিয়ে সন্ত্রাসীদের খুঁজে বের করা হয়েছে। তাদের নির্মূল করার পর এবং এলাকাটি সুরক্ষিত করার পর, অভিযান শেষ হয়।” এর আগে দেয়া একটি বিবৃতিতে বলা হয়েছিলো যে নিহত বিদ্রোহীদের মধ্যে কয়েক জন ছিলো আত্মঘাতি বোমা হামলাকারী।

প্রায় ২৫ কোটি জনসংখ্যার এই দেশটিতে বর্তমান সময়ে জঙ্গি সহিংসতা অনেক বেড়ে গেছে। ফলে, ৮ ফেব্রুয়ারি অনুষ্ঠেয় পার্লামেন্ট নির্বাচনকে সামনে রেখে নিরাপত্তা নিয়ে উদ্বেগ দেখা দিয়েছে।

মাখ শহরের এই ঘটনাকে পরিকল্পিত হামলা উল্লেখ করে, বিচ্ছিন্নতাবাদী বেলুচ লিবারেশন আর্মি বা বিএলএ এর দায় স্বীকার করেছে। বলেছে, মাখ শহরে তারা পাকিস্তানি আধাসামরিক বাহিনীর ঘাঁটি লক্ষ্য করে হামলা চালিয়েছে।

বিএলএ শুক্রবার সাংবাদিকদের কাছে একটি বিবৃতি পাঠিয়েছে। এতে বলা হয়, বেশকিছু আত্মঘাতি বোমা হামলাকারীসহ অন্তত ৪০০ যোদ্ধা এই হামলায় অংশ নিয়েছে। হামলায় নিরাপত্তাবাহিনীর কয়েক ডজন সদস্য নিহত হয়েছে বলে দাবি করেছে বিএলএ। আর, এই সংঘর্ষে বিএলএ’র ১৩ জন যোদ্ধার মৃত্যুর খবর নিশ্চিত করা হয়েছে বিবৃতিতে।

বছরের পর বছর ধরে দারিদ্র্যপীড়িত এই প্রদেশে বহু দিন ধরে বালুচ জনগোষ্ঠীর বিদ্রোহ চলছে। এই অজুহাতে এখানে পাকিস্তানের সামরিক বাহিনী নিয়মিত বিদ্রোহ-দমন অভিযান পরিচালনা করে। তবে, এখানে রাষ্ট্রীয় নিপীড়ন চলছে বলে অব্যাহত অভিযোগ রয়েছে।

বেলুচিস্তানের মানবাধিকার সংগঠন এবং ক্ষতিগ্রস্থ পরিবারগুলো পাকিস্তান কর্তৃপক্ষের জবাবদিহিতা নিশ্চিত করতে নিয়মিত প্রকাশ্য প্রতিবাদ জানিয়ে আসছে। তারা, বিচার বহির্ভূত হত্যা ও বলপূর্বক গুম বন্ধ করার দাবি জানাচ্ছে। তবে পাকিস্তান কর্তৃপক্ষ সব সময় এই অভিযোগ অস্বীকার করে।

XS
SM
MD
LG