অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

গাজার ইউএনআরডব্লিউএ-র সদর দপ্তরের নিচে হামাসের সুড়ঙ্গের সন্ধান পেয়েছে ইসরাইল


গাজা সিটিতে ইউএনআরডব্লিউএ কম্পাউন্ডের নীচে একটি "হামাস কমান্ড টানেল" বলে সেনাবাহিনী দাবি করে, এমন একটি সুড়ঙ্গের ভিতরে ইসরাইলি সৈন্যদের দেখা যাচ্ছে। (ইসরাইলি সামরিক বাহিনী আয়োজিত মিডিয়া ট্যুরের সময় তোলা। (৮ ফেব্রুয়ারি, ২০২৪)
গাজা সিটিতে ইউএনআরডব্লিউএ কম্পাউন্ডের নীচে একটি "হামাস কমান্ড টানেল" বলে সেনাবাহিনী দাবি করে, এমন একটি সুড়ঙ্গের ভিতরে ইসরাইলি সৈন্যদের দেখা যাচ্ছে। (ইসরাইলি সামরিক বাহিনী আয়োজিত মিডিয়া ট্যুরের সময় তোলা। (৮ ফেব্রুয়ারি, ২০২৪)

ইউএনআরডব্লিউএ'র গাজার সদর দপ্তরের মাটির নিচের কিছু অংশে ইসরাইলি বাহিনী কয়েকশ মিটার দীর্ঘ একটি সুড়ঙ্গ নেটওয়ার্কের সন্ধান পেয়েছে। ফিলিস্তিনিদের জন্য প্রধান ত্রাণ সংস্থাটির অধীনে হামাস জঙ্গিদের লুকিয়ে থাকার নতুন প্রমাণ হিসেবে এটিকে অভিহিত করছে ইসরাইলের সামরিক বাহিনী।

ইসরাইলি সেনাবাহিনীর প্রকৌশলীরা বিদেশি সংবাদমাধ্যমের সাংবাদিকদের টানেলের ভেতর দিয়ে নিয়ে যান।এই সফরের নেতৃত্বে থাকা সেনাবাহিনীর একজন লেফটেন্যান্ট কর্নেল জানিয়েছেন, গরম, সরু এবং মাঝে মাঝে আঁকাবাঁকা পথ দিয়ে ২০ মিনিট হাঁটার পর তারা ইউএনআরডব্লিউএ সদর দফতরের নিচে পৌঁছোন।

সামরিক বাহিনী জানিয়েছে, সুড়ঙ্গটি ৭০০ মিটার দীর্ঘ, ১৮ মিটার গভীর। মাঝে মাঝেই এটি দুই ভাগে ভাগ হয়ে গেছে। একটা অংশ অফিস হিসেবে ব্যবহার হয়েছে বোঝা যায়, স্টিলের সিন্দুক খোলা অবস্থায় রয়েছে। সেগুলো খালি করে ফেলা হয়েছে। ভেতরে টয়লেটের ব্যবস্থাও ছিল। একটি বড় খালি ঘরে কম্পিউটার সার্ভার এবং অপর একটিতে ভারী ব্যাটারির স্তূপ রাখা ছিল।

লেফটেন্যান্ট কর্নেল, যার প্রথম নাম ইডো, দাবী করেন, সমস্ত কিছু এখান থেকেই পরিচালনা করা হতো। তিনি মেঝেতে থাকা কিছু কাটা তার দেখিয়ে আরও বলেন, ইসরাইলি প্রতিরক্ষা বাহিনী বা আইডিএফ অগ্রসর হওয়া মাত্রই হামাস এখান থেকে সরে যায়। যাবার আগে তারা ইউএনআরডব্লিউএ সদর দফতরের বেসমেন্টের মেঝেতে থাকা যোগাযোগের তারগুলি কেটে দিয়ে গেছে।

ধারণা করা হচ্ছে, ইসরাইলের ভারী আক্রমণ এবং অব্যাহত শীতকালীন বৃষ্টিপাতও হামাসের সরে যাওয়ার পেছনে ভূমিকা রেখেছে। সুড়ঙ্গের বেশ কয়েকটি অংশ বালি ও হাঁটু সমান পানিতে ডুবে গেছে।

এদিকে, ইসরাইলের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ইসরাইল কাটজ সুড়ঙ্গটি আবিষ্কারের পর সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম প্ল্যাটফর্ম এক্স-এ একটি পোস্টে ইউএনআরডব্লিউএ কমিশনার জেনারেল ফিলিপ লাজারিনির পদত্যাগের দাবি তুলেছেন।

ঐ টানেলের অস্তিত্ব সম্পর্কে অবগত ছিলেন না জানিয়ে লাজারিনির দাবিকে কাটজ প্রত্যাখ্যান করেছেন।

এক বিবৃতিতে ইউএনআরডব্লিউএ জানিয়েছে, সন্ত্রাসী হামলার পাঁচ দিন পরই, ১২ অক্টোবর তারা সদর দফতর খালি করে দিয়েছিল। তাই ইসরাইলি অনুসন্ধানের বিষয়ে "নিশ্চিত বা অন্যথায় মন্তব্য করতে অক্ষম"।

জাতিসংঘের এই ত্রাণ সংস্থাটি বেশ কিছু সময় ধরে অভ্যন্তরীণ সঙ্কটকালীন সময় পার করছে। ইসরাইল অভিযোগ তুলেছে এর কিছু কর্মী হামাসের পক্ষে কাজ করছে। সংস্থাটি এই দাবির বিষয়ে নিজস্ব অভ্যন্তরীণ তদন্ত শুরু করেছে। বেশ কয়েকটি দাতা দেশ এই পরিপ্রেক্ষিতে তাদের তহবিল স্থগিত করে দিয়েছে।

যুক্তরাষ্ট্র ১৯৯৭ সালে হামাসকে সন্ত্রাসী সংগঠন হিসেবে চিহ্নিত করে। ইসরাইল, মিশর, ইউরোপীয় ইউনিয়ন এবং জাপানও হামাসকে সন্ত্রাসী গোষ্ঠী হিসেবে বিবেচনা করে।

এই প্রতিবেদনের কিছু তথ্য এপি, এএফপি এবং রয়টার্স থেকে নেয়া হয়েছে।

XS
SM
MD
LG