অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

বাংলাদেশে ঈদযাত্রা: চাপ আছে অস্বস্তি নেই


ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কে যানবাহন পরিস্থিতি তুলনামূলকভাবে স্বাভাবিক। ৯ এপ্রিল, ২০২৪।
ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কে যানবাহন পরিস্থিতি তুলনামূলকভাবে স্বাভাবিক। ৯ এপ্রিল, ২০২৪।

ঈদের ছুটিতে স্বজন সান্নিধ্যে যাচ্ছে বাংলাদেশের মানুষ। ছুটির আগেই অনেকে গ্রামে গেছেন; ছুটি শুরু হওয়ায় কিছুটা চাপ বেড়েছে সড়ক, নৌ ও রেলপথে। তবে নৌপথে তেমন চাপ নেই বলে জানালেন প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরী। এদিকে, সড়ক, রেল ও নৌপথে স্বাভাবিক চাপ থাকলেও, এবারের ঈদযাত্রায় অস্বস্তি নেই বলে জানিয়েছেন যাত্রী ও কর্তৃপক্ষ।

গাজীপুরের যানবাহনের চাপ

শেষ মুহূর্তে যানজটের কিছুটা বিড়ম্বনা মাথায় নিয়েই ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়কের গাজীপুরের চন্দ্রা ত্রিমোড় হয়ে উত্তরবঙ্গের ২২ জেলার যাত্রীরা যাচ্ছেন তাদের গন্তব্যে।

চন্দ্রা ত্রিমোড়কে ঘিরে, মঙ্গলবার (৯ এপ্রিল) ভোর থেকে দেখা গেছে যানবাহনের দীর্ঘ সা‌রি। তবে ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কে যানবাহন পরিস্থিতি তুলনামূলকভাবে স্বাভাবিক।

চান্দনা চৌরাস্তা-সহ কয়েকটি পয়েন্টে যানবাহনের চাপ রয়েছে বেশি। দুটি মহাসড়কের বিভিন্ন গন্তব্যের জন্য অতিরিক্ত ভাড়া নেয়ার অভিযোগ রয়েছে যাত্রীদের।

ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়কের কালিয়াকৈর উপজেলার চন্দ্রায় ত্রিমোড় এলাকায় যাত্রী তোলার অপেক্ষায় দাঁড়িয়ে আছে বিভিন্ন ধরণের বাহন। সড়কের পাশে স্ট্যান্ড বা আলাদা জায়গা না থাকায়, স্থানীয় যানবাহনের চাপে দূরপাল্লার যানবাহন চলছে ধীরগতিতে।

কোথাও কোথাও লেগে যাচ্ছে যানজট। এই মহাসড়কের যাত্রীদের অভিযোগ, ঈদযাত্রাকে কেন্দ্র করে বাড়তি ভাড়া নেয়া হচ্ছে। রাজশাহী, দিনাজপুর, রংপুর, বগুড়াসহ উত্তরবঙ্গের বাসে স্বাভাবিক সময়ের চেয়ে অতিরিক্ত ভাড়া নেয়া হচ্ছে বলে জানান যাত্রীরা।

অপরদিকে, ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কের বোর্ডবাজার চন্দনা চৌরাস্তাসহ বিভিন্ন পয়েন্টে গাড়ির গতি কিছুটা কম হলেও থেমে নেই। এই মহাসড়কের ৭টি ফ্লাইওভার খুলে দেয়ায়, এবার তেমন সমস্যা হচ্ছে না। তবে ময়মনসিংহের দিক থেকে ঢাকাগামী যানবাহনগুলোকে চান্দনা চৌরাস্তায় এসে দীর্ঘ সারিতে অপেক্ষমান থাকতে হচ্ছে।

চান্দনা চৌরাস্তা থেকে ময়মনসিংহ, কিশোরগঞ্জ, শেরপুর যাওয়ার পথে অতিরিক্ত ভাড়া নেয়ার অভিযোগ রয়েছে যাত্রীদের।‌ পুলিশ কর্মকর্তারা বলছেন, সুনির্দিষ্ট অভিযোগ পেলে তারা তাৎক্ষণিক ব্যবস্থা নেবেন।

গাজীপুর মহানগর পুলিশের কমিশনার মাহবুব আলম সাংবাদিকদের বলেন, দুটো মহাসড়ক দিয়ে ঈদের ঘরমুখো লোকজনকে স্বাচ্ছন্দে ও নির্বিঘ্নে বাড়ি পৌঁছে দিতে হাইওয়ে পু‌লিশ, জেলা পু‌লিশ ও ট্রাফিক পু‌লিশ সমন্বয় করে কাজ করছে।

যানবাহন পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে অতিরিক্ত লোকবল মোতায়েন করা হয়েছে বলে জানান কমিশনার মাহবুব আলম। বলেন, সিসিটিভি ক্যামেরা দিয়ে সড়ক পর্যবেক্ষণ করে তাৎক্ষণিক ব্যবস্থা নেয়াসহ নানা পদক্ষেপের মাধ্যমে নিরন্তর চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে পুলিশ।পরিস্থিতি দ্রুত স্বাভাবিক হবে বলে তিনি আশা প্রকাশ করেন।

ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে স্বস্তি

ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে স্বস্তির ঈদযাত্রায় সন্তুষ্ট চালক ও যাত্রীরা। তবে, ঈদযাত্রার স্বাভাবিক চাপ রয়েছে, মহাসড়কে বেড়েছে যানবাহনের সংখ্যা ।

মঙ্গলবার (৯ এপ্রিল) সকালে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের কুমিল্লার দাউদকান্দির টোলপ্লাজা থেকে চৌদ্দগ্রামের মোহাম্মদ আলী পর্যন্ত ১০৫ কিলোমিটার অংশে নির্বিঘ্নে যানবাহন চলাচলের কথা জানিয়েছে হাইওয়ে পুলিশ।

ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে বেড়েছে যানবাহনের সংখ্যা।
ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে বেড়েছে যানবাহনের সংখ্যা।

কুমিল্লা দাউদকান্দি হাইওয়ের থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শাহিনুল ইসলাম জানান, সোমবার (৮ এপ্রিল) দিবাগত রাতে মহাসড়কের যানবাহনের বেশ চাপ ছিলো। বিশেষ করে, ঢাকা থেকে চট্টগ্রাম অভিমুখী লেনে যানবাহনের চাপ বেশি দেখা গেছে। যাত্রীবাহী যানবাহনের সঙ্গে রয়েছে রপ্তানিমুখী পণ্য ও সবজিবাহী ট্রাক ও কাভার্ডভ্যান।

মহাসড়কে যানবাহন চলাচল স্বাভাবিক রাখতে, কাজ করছেন হাইওয়ে পুলিশ, জেলা পুলিশ ও উপজেলা প্রশাসন। মহাসড়কের দাউদকান্দি, গৌরীপুর, ইলিয়টগঞ্জ, মাধাইয়া, চান্দিনা, নিমসার, ক্যান্টনমেন্ট, আলেখারচর, পদুয়ার বাজার, গুয়াগাজী, মিয়াবাজার, চৌদ্দগ্রাম, চিওড়াসহ যানজটের আশঙ্কা আছে। এ কারণে, বাজারগুলোতে হাইওয়ে পুলিশের তৎপর রয়েছে।

অন্যদিকে, পদ্মা সেতুর টোল প্লাজায় তুলনামূলক বেশি সময় অপেক্ষা করতে হচ্ছে দক্ষিণাঞ্চলের যাত্রীদের।

গত বৃহস্পতিবার থেকেই রাজধানী ছাড়তে শুরু করেছে মানুষ। ঢাকা ও আশপাশের কিছু এলাকার তৈরি পোশাক কারখানায় ঈদের ছুটি হয়েছে সোমবার। ফলে, রাত থেকে ঈদে বাড়ি ফেরা মানুষের চাপ বেড়েছে। অনেক অফিস ছুটি হয়েছে মঙ্গলবার থেকে।

নৌপথে চাপ থাকলেও ভোগান্তি নেই: প্রতিমন্ত্রী

ঈদুল ফিতরের ছুটিতে ঘরে ফেরা মানুষের ভোগান্তি হচ্ছে না বলে জানিয়েছেন নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরী। তিনি বলেন, “নৌপথে চাপ থাকলেও কোনো ভোগান্তি নেই।”

মঙ্গলবার (৯ এপ্রিল) সচিবালয়ের সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে তিনি কথা বলেন। প্রতিমন্ত্রী বলেন, “স্বস্তির ঈদযাত্রার জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রতি কৃতজ্ঞতা জানাবো। কারণ, বাংলাদেশের তিনি বহুমুখী যোগাযোগ ব্যবস্থা চালু করেছেন।”

নৌপথে ভোগান্তির বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, এটাকে ভোগান্তি বলা যাবে না, চাপ বলা যেতে পারে। “মধুচৌধুরী ঘাটে আজকের (৯ এপ্রিল) চিত্রের কথা বলি, সেখানে অতিরিক্ত চাপ ছিলো, ভোগান্তি ছিলে না;” বলেন নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী।

ট্রেনযাত্রয়ায় ছাদভ্রমণ

বরাবরের মতোই, কমলাপুর রেলওয়ে স্টেশন থেকে ছাদে চেপে রাজধানী ঢাকা ছাড়ছেন উত্তরাঞ্চলের মানুষ। আর বেশ কিছু ট্রেন দেরিতে ছেড়ে গেছে বলে জানিয়েছেন যাত্রী ও রেল কর্মকর্তারা।

অনেক চেষ্টা করেও ছাদে ওঠা থেকে যাত্রীদের ঠেকানো যায়নি। প্রতীকী ছবি।
অনেক চেষ্টা করেও ছাদে ওঠা থেকে যাত্রীদের ঠেকানো যায়নি। প্রতীকী ছবি।

কমলাপুর রেলওয়ে কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, উত্তরাঞ্চলগামী একতা এক্সপ্রেস ও রংপুর এক্সপ্রেসের যাত্রীরা ছাদে চেপে গেছেন। পুরুষের পাশাপাশি নারী, শিশুদেরও ছাদে চেপে যাত্রা করতে দেখা গেছে।

অনেক চেষ্টা করেও ছাদে ওঠা থেকে যাত্রীদের ঠেকানো যায়নি বলে দাবি করেছেন কমলাপুরের স্টেশন ম্যানেজার মোহাম্মদ মাসুদ সারওয়ার।

আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী নিবৃত্ত করার চেষ্টা করলেও, যাত্রীদের ছাদে ভ্রমণ ঠেকানো যাচ্ছে না; জানান তিনি।

XS
SM
MD
LG