অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

আফগানিস্তানে চার নারীর হত্যাকাণ্ড তদন্ত করছে তালিবান


ফাইল ছবিতে দেখা যাচ্ছে, আফগানিস্তানের কাবুলে একটি দুর্ঘটনার পর তালিবান যোদ্ধারা একটি রাস্তা বন্ধ করে দিয়েছে। নভেম্বর ০২, ২০২১।

তালিবান কর্তৃপক্ষ একজন অধিকার সক্রিয়বাদীসহ চারজন নারীকে হত্যার সঙ্গে জড়িত সন্দেহে দুইজন পুরুষকে গ্রেপ্তারের বিষয়টি নিশ্চিত করেছে। আফগানিস্তানের উত্তরাঞ্চলের একটি বাড়িতে গত সপ্তাহে ঐ মহিলাদের মৃতদেহ পাওয়া যায়।

কাবুলে শনিবার স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র ক্বারী সাঈদ খোস্তি জানিয়েছেন, আটককৃতরা প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে স্বীকার করেছেন যে, তারা মাজার-ই-শরীফের উত্তরের শহরটির ঐ বাড়িতে নিহত ঐ মহিলাদের আমন্ত্রণ জানিয়েছিলেন।

সন্দেহভাজনরা হত্যাকান্ডের কথা স্বীকার করেছে কিনা বা নিহতদের পরিচয় বা উদ্দেশ্য সম্পর্কে খোস্তি কিছু বলেননি। টুইটারের প্রকাশিত এক ভিডিও বিবৃতিতে খোস্তি বলেন, 'আরও তদন্ত চলছে এবং মামলাটি আদালতে পাঠানো হয়েছে'।

নিহত অধিকার সক্রিয়বাদীর নাম ফ্রোজান সাফি। ২৯ বছর বয়সী সাফি মাজার-ই-শরীপের একটি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক। সাফি কাজ করতেন জয়নুদ্দিন মোহাম্মদ বাবর সাংস্কৃতিক কেন্দ্রে। সেখানকার পরিচালক সাইয়েদ আজিম সাদাত জানান, ইসলামপন্থী তালিবান গত আগস্টে আফগানিস্তানের ক্ষমতা দখলের পর সাফি দেশ ছেড়ে চলে যেতে মরিয়া হয়েছিলেন।

অ্যাসোসিয়েটেড প্রেসকে সাদাত বলেন, আফগানিস্তান থেকে চলে যেতে সাহায্য করতে পারবেন-- এমন দাবি করা এক ব্যক্তির সঙ্গে দেখা করার জন্য তিন সপ্তাহ আগে সাফি বাড়ি ছেড়েছিলেন। জানা গেছে, অপর তিন মহিলাও একই ধরনের প্রস্তাব পান এবং ঐ একই বাড়িতে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছিল, যেখানে পরবর্তীতে তাদের মৃতদেহ পাওয়া যায়।

XS
SM
MD
LG