অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

আফগানিস্তানের জন্য ৩১ মিলিয়ন ডলারের সহায়তা প্যাকেজ ঘোষণা করেছে চীন


চীনের সংবাদ সংস্থা সিনহুয়া প্রকাশিত এই ছবিতে, চীনের তিয়ানজিনে বৈঠকের সময় দেশটির পররাষ্ট্রমন্ত্রী ওয়াং ই এবং তালিবানের সহ-প্রতিষ্ঠাতা মোল্লা আব্দুল গনি বারাদারকে দেখা যাচ্ছে।

চীন বুধবার আফগানিস্তানের জন্য ৩১ মিলিয়ন ডলারের সহায়তা প্যাকেজ ঘোষণা করেছে। এটি তালিবান শাসিত দেশটির জন্য প্রথম নতুন বৈদেশিক সাহায্যের অঙ্গীকারের মধ্যে একটি বলে মনে করা হচ্ছে।

এই সহায়তার মধ্যে থাকবে খাবার, শীতকালের জন্য প্রয়োজনীয় সামগ্রী এবং কোভিড-১৯ এর টিকা।

চীনের রাষ্ট্রীয় সংবাদ সংস্থা সিনহুয়া জানিয়েছে, চীন আফগানিস্তানের জনগণের চাহিদা অনুযায়ী জরুরি ভিত্তিতে ৩০.৯৬ মিলিয়ন ডলার মূল্যের শস্যদানা, শীতকালের জন্য প্রয়োজনীয় সামগ্রী, টিকা ও ওষুধ সরবরাহ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

সহায়তা প্যাকেজের এই ঘোষণা সেদিন আসে, যে দিন চীন জানায় যে, তালিবান একটি অন্তর্বর্তী সরকার প্রতিষ্ঠায় 'প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ' নেয়ায় তারা তালিবান শাসকদের সঙ্গে যোগাযোগ বজায় রাখতে চলেছে।

পাকিস্তান, ইরান, তাজিকিস্তান, উজবেকিস্তান ও তুর্কমেনিস্তানের পররাষ্ট্রমন্ত্রীদের সঙ্গে কথা বলতে গিয়ে চীনের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ওয়াং ই বলেন, ঐ সহায়তা যুদ্ধবিধ্বস্ত দেশটিকে পুনর্গঠনে সাহায্য করবে। তিনি আরও বলেন, চীন সন্ত্রাসবাদ ও অবৈধ মাদকের ব্যবসা বন্ধের যুদ্ধে সহায়তা করবে।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী ওয়াং, জিনজিয়াংয়ে হামলার জন্য ইস্ট তুর্কিস্তান ইসলামিক মুভমেন্টকে দায়ি করে তালিবানকে সব সন্ত্রাসী গোষ্ঠির সঙ্গে সম্পর্ক ছিন্ন করার আহ্বান জানান।

সংবাদ সংস্থা সিনহুয়া জানিয়েছে, আফগানিস্তান থেকে আসা সন্ত্রাসী গোষ্ঠীগুলোকে ধরতে এবং নির্মূল করতে সব পক্ষের গোয়েন্দা তথ্য ভাগাভাগি এবং সীমান্ত নিয়ন্ত্রণে সহযোগিতা জোরদার করা উচিৎ বলে মন্তব্য করেন ওয়াং।

এই সপ্তাহে জাতিসংঘ সতর্ক করে দিয়েছে যে, আফগানিস্তানের স্থানীয় সম্প্রদায়গুলো এবং তাদের অর্থনীতিকে শক্তিশালী করার জন্য যদি আরও কিছু করা না হয়, তবে আগামী বছরের মাঝামাঝি দেশটি 'সার্বিক দারিদ্র্যের' মুখোমুখি হবে।

XS
SM
MD
LG