অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

টোকিওর পশ্চিমে ভূমিধ্বসে অন্তত ১৯ জন নিখোঁজ


বার্তা সংস্থা দ্য এসোসিয়েটেড প্রেস জানিয়েছে যে টোকিওর পশ্চিমের একটি শহরে প্রচন্ড বৃষ্টিপাতের কারণে বাড়িগুলো নিমজ্জিত হয় এবং কাদার ধ্বসে কমপক্ষে ১৯ জন নিখোঁজ রয়েছে। শিজুকা জেলার মুখপাত্র তাকামিচি সুগিয়ামা বলছেন আতামি শহরে বহু বাড়ি কাদার ধ্বসে সম্ভবত ডুবে গেছে।  সেখানকার আত্মরক্ষা বাহিনী এই উদ্ধার অভিযানে পুলিশ ও দমকলবাহিনীর সঙ্গে যুক্ত হয়েছে এবং ব্যাপক এলাকা জুড়ে লোকজনকে নিরাপদ আশ্রয়ে সরে যাবার জন্য হুঁশিয়ার করে দেয়া হচ্ছে

বার্তা সংস্থা দ্য এসোসিয়েটেড প্রেস জানিয়েছে যে টোকিওর পশ্চিমের একটি শহরে প্রচন্ড বৃষ্টিপাতের কারণে বাড়িগুলো নিমজ্জিত হয় এবং কাদার ধ্বসে কমপক্ষে ১৯ জন নিখোঁজ রয়েছে। শিজুকা জেলার মুখপাত্র তাকামিচি সুগিয়ামা বলছেন আতামি শহরে বহু বাড়ি কাদার ধ্বসে সম্ভবত ডুবে গেছে। সেখানকার আত্মরক্ষা বাহিনী এই উদ্ধার অভিযানে পুলিশ ও দমকলবাহিনীর সঙ্গে যুক্ত হয়েছে এবং ব্যাপক এলাকা জুড়ে লোকজনকে নিরাপদ আশ্রয়ে সরে যাবার জন্য হুঁশিয়ার করে দেয়া হচ্ছে। ভিডিওতে ধারণ করা ছবিতে দেখা গেছে অত্যন্ত শক্তিশালী, নরম কালো মাটি পাহাড় বেয়ে নেমে আসছে এবং বাড়িঘরকে আঘাত করছে, পথে গাড়িকে যেন ভাসিয়ে নিয়ে যাচ্ছে। নিরুপায় হয়ে প্রতিবেশিরা এই ভয়াবহ দৃশ্য দেখেছেন, কেউ কেউ ফোনে রেকর্ড করেছেন।

সেখানকার সরকারি টেলিভিশন বলছে ২০ জন নিখোঁজ রয়েছেন কিন্তু সুগিয়ামা বলছেন জেলাটি নিশ্চিত করেছে এই সংখ্যা কমপক্ষে ১৯, তবে তা বাড়দে পারে। এ সপ্তার শুরু থেকেই মূষলধারে বৃষ্টিপাত জাপানের কোন কোন অংশে বড় রকমের আঘাত হেনেছে। শিজুকার গভর্ণর হেইতা কাওয়াকাতসু সংবাদ দাতাদের বলেন যে উপকুল রক্ষীরা দু জনকে উদ্ধার করেছে যারা এই ভূমি ধ্বসের কারণে সমুদ্রে গিয়ে পড়েছিল। তিনি বলেন তাদের হৃত্পিন্ড বন্ধ হয়ে গিয়েছিল কিন্তু আনুষ্ঠানিক ভাবে এটা ঘোষণা করা হয়নি যে তারা মারা গেছে।(এপি)

XS
SM
MD
LG