অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

বাংলাদেশে মহামারীর সময়ে শিশুরা নানা কারণে উচ্চ ঝুকির মধ্যে রয়েছে


শিশুদের নিয়ে কর্মরত বিভিন্ন আন্তর্জাতিক এবং দেশীয় সংস্থা বলছে, বাংলাদেশে করোনা মহামারীর এই সময় শিশুরা অত্যাচার, নির্যাতন, অবহেলা, পুষ্টিহীনতাসহ নানা কারণে উচ্চ ঝুকির মধ্যে রয়েছে। জাতিসংঘ শিশু তহবিল বা ইউনিসেফ সম্প্রতি প্রকাশিত একাধিক প্রতিবেদনে বলেছে, করোনা মহামারীকালে বাংলাদেশের শিশুরা দক্ষিণ এশিয়ার মধ্যে সবচেয়ে বেশি নাজুক অবস্থায় রয়েছে। বাংলাদেশে জরুরি স্বাস্থ্যসেবা থেকে বঞ্চিত হওয়া এবং পুষ্টি সংকটের কারণে আগামী ৬ মাসে আরো ২৮ হাজার শিশুর মৃত্যুর আশংকা করছে ইউনিসেফ। করোনার কারণে যানবাহন চলাচল বন্ধ হওয়া, সংক্রমণের ভয়ে স্বাস্থ্য কেন্দ্রগুলোতে না যাওয়া এবং শিশু পুষ্টি বঞ্চনার অন্যতম কারণেই এই পরিস্থিতি বলে মনে করছে সংস্থাটি। তাদের মতে, বাংলাদেশে খাদ্য নিরাপত্তাহীনতার কারণে চরম দরিদ্র্য পরিবারগুলো দিনে তিন বেলা খাবার যোগাড় করতে পারে না। ইউনিসেফ বলছে, করোনার কারণে দক্ষিণ এশিয়ার দেশগুলোতে চিকিৎসা সেবা বঞ্চিত ৪ লাখ ৯৫ হাজার মা এবং শিশুর জীবন মারাত্মক হুমকির মধ্যে রয়েছে। ইউনিসেফ বলছে, করোনার নেতিবাচব প্রভাবে দৃশ্যমান হওয়া দক্ষিণ এশিয়ার দুর্বল স্বাস্থ্য ব্যবস্থাপনা, শিক্ষা এবং শিশু অগ্রযাত্রার ক্ষেত্রে বাধা-বিঘ্নের কারণে দক্ষিণ এশিয়ার ৬০ কোটি শিশুর প্রতি সংশ্লিষ্ট সরকারগুলোকে মনযোগী হওয়া জরুরি।



বাংলাদেশের সক্রিয়বাদী সংস্থা ‘মানুষের জন্য ফাউন্ডেশন’-এর রোববার প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, গত মাসগুলোর তুলনায় জুন মাসে শিশু নির্যাতন ও বাল্যবিবাহের সংখ্যা আশংকাজনক হারে বেড়েছে। ওই প্রতিবেদন প্রকাশ উপলক্ষে এক সংবাদ সম্মেলনে ফাউন্ডেশনের প্রধান শাহীন আনাম বলেন, বাল্যবিবাহ ও পারিবারিক পর্যায়ে নির্যাতনের শিকার হচ্ছে শিশুরা। শিশু শ্রমও বেড়ে যাচ্ছে। মানুষের জন্য ফাউন্ডেশন শিশুদের সহায়তায় করোনাকালীন দুঃসময়ে সংশ্লিষ্টদের এগিয়ে আসার আহ্বান জানিয়েছে।

please wait

No media source currently available

0:00 0:02:16 0:00


XS
SM
MD
LG