অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

বাংলাদেশে সাইবার অপরাধ বাড়ছে


বাংলাদেশে সাইবার অপরাধ অনেকটা জ্যামিতিক হারে বাড়ছে। গত ৬ বছরে বিভিন্ন থানা ও সাইবার ট্রাইব্যুনালে ২০৪৪টি মামলা হয়েছে। গত বছর মামলা হয় ৯২৫টি। পরিসংখ্যান থেকে দেখা যায়, ২০১৩ সনে মামলা হয়েছিল মাত্র ৩টি। সাইবার অপরাধে সাজা হয় মাত্র তিন ভাগ অপরাধীর। এর মূল কারণ হচ্ছে ঢালাওভাবে মানহানির মামলা দায়ের। যেগুলো আদালতে প্রমাণ করা সম্ভব হয় না। মিথ্যা মামলাও দায়ের হয় পাইকারি ভাবে।

এর মধ্যে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাড়ায় চরিত্র হনন করার একটি গ্রুপকে চিহ্নিত করেছে পুলিশের সাইবার অপরাধ বিভাগ। দুইজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। তারা পয়সার বিনিময়ে বিভিন্ন জনের কুৎসা রটনা করতো। জিজ্ঞাসাবাদে তারা জানিয়েছে, রাজনৈতিক নেতানেত্রী, ব্যবসায়ীসহ বিভিন্ন শ্রেণী-পেশার ব্যক্তিরা প্রতিপক্ষকে ঘায়েল করার জন্য তাদের সাহায্য নিতেন।

সাইবার অপরাধে গ্রেপ্তারকৃতদের বেশিরভাগই মামলা থেকে খালাস পেয়ে যাচ্ছে। এর কারণ প্রসিকিউশন সন্দেহাতীতভাবে অভিযোগ প্রমাণ করতে পারেনি। আইনে সর্বোচ্চ ১৪ বছর ও সর্বনিম্ন ৭ বছরের জেলের বিধান রাখা হয়েছে। কিন্তু সাজা হচ্ছে খুব কম অপরাধীর।

এসব মামলায় অভিজ্ঞ আইনজীবী ব্যারিস্টার জ্যোতির্ময় বড়ুয়া মনে করেন, তদন্তে অদক্ষতা এবং বেশিভাগ ক্ষেত্রে মিথ্যা মামলা দায়ের করার কারণে অভিযোগ প্রমাণ করা কঠিন হয়ে পড়ে।

সাইবার অপরাধের স্পেশাল পাবলিক প্রসিকিউটর এডভোকেট নজরুল ইসলাম শামীমের অভিজ্ঞতা হচ্ছে, অনেক ক্ষেত্রে আইটি এবং ফরেনসিক রিপোর্ট ছাড়াই পুলিশ সাইবার অপরাধের মামলায় চার্জশীট দিয়ে দেয়।

please wait

No media source currently available

0:00 0:00:51 0:00


XS
SM
MD
LG