অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

বাংলাদেশে প্রতিমা ভাঙচুর ও হামলার প্রতিবাদে এবার উৎসব হচ্ছে না দীপাবলীতে


প্রতিমা ভাঙচুর, লুটপাট, হামলা, অগ্নিসংযোগের প্রতিবাদে বাংলাদেশে এবার দীপাবলীতে মন্ডপের সামনে কালো কাপড়ে মুখ ঢেকে প্রতিবাদ কর্মসূচি পালনের ঘোষণা দিয়েছে বাংলাদেশ পূজা উদযাপন পরিষদ। (ছবি- বাংলাদেশ প্রতিদিন)

সহস্র প্রদীপ জ্বালিয়ে দেশের সনাতন ধর্মাবলম্বীরা আজ বাংলাদেশ ও ভারতে পালিত হচ্ছে দীপাবলি উৎসব ও শ্যামা পূজা। আজ শুভ দীপাবলী। কিন্তু দুর্গা প্রতিমা ভাঙচুর, লুটপাট, হামলা, অগ্নিসংযোগের প্রতিবাদে এবার বাংলাদেশে উৎসব হচ্ছে না দীপাবলীতে। উদযাপনের পরিবর্তে মন্ডপের সামনে কালো কাপড়ে মুখ ঢেকে প্রতিবাদ কর্মসূচি পালনের ঘোষণা দিয়েছে বাংলাদেশ পূজা উদযাপন পরিষদ।

পুরাণ মতে অশুভ শক্তিকে পরাজিত করে শুভ শক্তির বিজয়ের প্রতীক দীপাবলি। দুষ্টের দমন শিষ্টের পালনের বার্তা দিতে, অন্যায়-অত্যাচার দূর করতেই মা কালীর মর্ত্যে আগমন। কার্তিক মাসের অমাবস্যা তিথিতে শ্যামা পূজা বা কালী পূজা অনুষ্ঠিত হয়। দীপাবলির সন্ধ্যায় সারি সারি প্রদীপ আর মোমের স্নিগ্ধ আলোয় মন্দির প্রাঙ্গণ, বাড়ি, ব্যবসা প্রতিষ্ঠান সেজে ওঠে । সনাতন ধর্মাবলম্বীদের কাছে তাই শ্যামা দেবী শান্তি, সংহতি ও সম্প্রীতি প্রতিষ্ঠার ক্ষেত্রে সংগ্রামের প্রতীক। কিন্তু তারপরও এবার কেন উৎসব হচ্ছে না এমন প্রশ্নের জবাবে পূজা উদযাপন পরিষদের সাধারণ সম্পাদক নির্মল কুমার চ্যাটার্জী বলেন, ‘দুর্গাপূজায় প্রতিমা ভাঙচুর, হামলা, অগ্নিসংযোগ, লুটপাটের প্রতিবাদে এবার শ্যামাপূজায় দীপাবলি উৎসব হবে না।

বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা ছয়টা থেকে ছয়টা ১৫ মিনিট পর্যন্ত মন্ডপের সামনে কালো কাপড়ে মুখ ঢেকে ‘সাম্প্রদায়িক অপশক্তির বিরুদ্ধে রুখে দাড়াও’ শীর্ষক প্রতীকী প্রতিবাদ কর্মসূচি পালন করা হবে।’ তিনি আরো বলেন, ‘রাজধানীর যেসব মন্দিরে দুর্গাপূজা হয়েছে তার অধিকাংশগুলোতে কালী পূজা হবে। এ ছাড়াও অনেকে ব্যক্তিগতভাবে প্রতিমা পূজা করবেন। তাই কতগুলো পূজা হচ্ছে রাজধানী কিংবা দেশজুড়ে তা নির্দিষ্ট করে বলা যাচ্ছে না। মন্ডপগুলোতে নিরাপত্তার কারণে যতটুকু আলো দরকার তার ব্যবস্থা করা হয়েছে। অন্য বছরের মতো বর্ণিল আলোকসজ্জা থাকছে না মন্ডপগুলোতে।’

ঢাকার শাঁখারী বাজার, তাঁতী বাজার ও সূত্রাপুরসহ পুরান ঢাকার অনেক এলাকায় মন্ডপে বেশ ঘটা করে শ্যামা পূজা হয়। রমনা কালীমন্দির ও মা আনন্দময়ী আশ্রম, সিদ্ধেশ্বরী কালীমন্দির, বরদেশ্বরী কালীমাতা মন্দির, ঢাকেশ্বরী জাতীয় মন্দিরে কালী পূজার আয়োজন রয়েছে। মহানগর সর্বজনীন পূজা কমিটির উদ্যোগে ঢাকেশ্বরী জাতীয় মন্দিরে কেন্দ্রীয়ভাবে শ্যামা পূজা করা হবে। রাতে দেবী পূজা শেষে অঞ্জলি প্রদান করবেন ভক্তবৃন্দ, এবার সঙ্গে যুক্ত হয়েছে প্রতিবাদও।

XS
SM
MD
LG