অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

২০২২ সালের এসএসসি পরীক্ষা ফেব্রুয়ারিতে হচ্ছে না: শিক্ষামন্ত্রী


শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু - ফাইল ফটো- এপি

শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি জানিয়েছেন, ২০২২ সালের এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষা ফেব্রুয়ারিতে হবে না। ২০২১ সালের এসএসসি, দাখিল, এসএসসি (ভোকেশনাল) ও দাখিল (ভোকেশনাল) পরীক্ষা নিয়ে আজ সংবাদ সম্মেলনে তিনি এই কথা জানান।

ডা. দীপু মনি বলেন, ‘এবারের এসএসসি পরীক্ষা শেষ হবে ২৩শে নভেম্বর। সেক্ষেত্রে আগামী ১লা ফেব্রুয়ারি পরের এসএসসি পরীক্ষা নেওয়া সম্ভব হবে না। কারণ শিক্ষার্থীদের ক্লাসের বিষয় রয়েছে। কবে ও কীভাবে ২০২২ সালের এসএসসি পরীক্ষা নেওয়া হবে তা পরে জানাতে পারবো।’

প্রতি বছরের ফেব্রুয়ারির শুরুতে এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষা নেওয়া হয়। করোনার কারণে এ বছর তা পিছিয়ে যায়। আগামী ১৪ই নভেম্বর থেকে এই পরীক্ষা শুরুর সিদ্ধান্ত নিয়েছে মন্ত্রণালয়। মহামারি পরিস্থিতির কারণে এবার সংক্ষিপ্ত সিলেবাসে কেবল নৈর্বাচনিক তিনটি বিষয়ে পরীক্ষা হবে। এসএসসি ও সমমান পর্যায়ের পরীক্ষায় ২২ লাখ ২৭ হাজার ১১৩ জন শিক্ষার্থী অংশ নেবে। আগামী ১৪ নভেম্বর সারাদেশের ৩ হাজার ৬৭৯ টি কেন্দ্রে এ পরীক্ষা শুরু হবে।

শিক্ষামন্ত্রী জানান, আবশ্যিক বিষয়গুলোর পরীক্ষা না নিয়ে সাবজেক্ট ম্যাপিংয়ের মাধ্যমে মূল্যায়ন করা হবে। মূল্যায়ন নম্বরের সঙ্গে নৈর্বাচনিক তিনটি বিষয়ের পরীক্ষার নম্বর যোগ করে ফল দেওয়া হবে। পরীক্ষা শেষের দুই মাসের মধ্যে ফল পাবে শিক্ষার্থীরা।

সংবাদ সম্মেলনে শিক্ষামন্ত্রী আরও বলেন, গতবছর ২০ লাখ ৪৭ হাজার ৭৭৯ ছাত্র-ছাত্রী এই পরীক্ষায় অংশ নিয়েছিল। এবছর পরীক্ষার্থী বেড়েছে ১ লাখ ৭৯ হাজার ৩৩৪ জন। সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে দীপু মনি বলেন, এ বছর টেস্ট পরীক্ষা গ্রহণ করা হয়নি। টেস্ট পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হলে হয়তো কিছু শিক্ষার্থী বাদ যেত। এছাড়া বিদেশের ৯টি কেন্দ্রে ৪২৯ জন ছাত্র-ছাত্রী এসএসসি পরীক্ষায় অংশ নেবে।

ডা. দীপু মনি জানান, পরীক্ষা শুরু হওয়ার কমপক্ষে ৩০ মিনিট পূর্বে শিক্ষার্থীদের কেন্দ্রে প্রবেশ করতে হবে। এরপর কেউ প্রবেশ করলে তার নাম, রোল, বিলম্ব হওয়ার কারণ শিক্ষাবোর্ডে জানানো হবে কেন্দ্রের পক্ষ থেকে।

XS
SM
MD
LG