অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

সুন্দরবনের জেলেদের জালে ধরা পড়ল বিশাল এক তেলেভোলা মাছ


ভারতের প্রত্যন্ত সুন্দরবনের কপূরা নদীতে ধরা পড়া বিশালাকৃতির তেলেভোলা মাছ - ফটো- দ্য ওয়াল

ভারতের প্রত্যন্ত সুন্দরবনের কপূরা নদীতে মাছ ধরতে গিয়ে শুক্রবার এক বিশালাকৃতির তেলেভোলা মাছ জালে তোলেন জেলেরা। সেই মাছ ঘাড়ে করে ক্যানিং মাছ বাজারের আড়তে নিয়ে আসেন তারা। শনিবার রাত ১১টায় মাছটির দর ওঠে কেজি প্রতি ৪৯,৩০০ রুপি! শেষমেশ গোটা মাছটি বিক্রি হয় ৩৬ লক্ষ ৪৮ হাজার ২০০ রুপিতে।

দক্ষিণ ২৪ পরগনার গোসাবার দুলকির সোনাগাঁও গ্রাম থেকে বিকাশ বর্মন, রাহুল বর্মন, সৈকত বর্মন, কমলেশ বর্মন ও কালিপদ বর নামে পাঁচজন মৎস্যজীবী সুন্দরবনের নদীতে মাছ ধরার জন্য রওনা দিয়েছিলেন। জাল পেতে মাছ ধরার সময় শুক্রবার সন্ধ্যায় তাদের জালে ধরা পড়ে প্রায় সাত ফুট লম্বা বিশাল তেলেভোলা মাছটি। জানা যায়, এটি একটি পুরুষ মাছ। এরপর মৎস্যজীবীরা মাছটি নিয়ে চলে আসেন সোনাগাঁও গ্রামের বাড়িতে। পরে মাছটি বিক্রি করার জন্য শনিবার সন্ধ্যায় ক্যানিংয়ের প্রভাত মন্ডলের মাছের আড়তে আনা হয়। সন্ধ্যা থেকে মাছটির দর উঠতে থাকে। শেষ পর্যন্ত মাছটির দাম ওঠে প্রতি কেজি প্রায় ৪৯৩০০ রুপি। মাছটি কিনে নেয় কলকাতার কেএমপি।

মৎস্যজীবী বিকাশ বর্মন দীর্ঘদিন ধরে সুন্দরবনের নদীতে মাছ ধরে জীবিকা নির্বাহ করেন। প্রতিবছর মূলত ভোলা মাছই ধরতে যান তিনি। তবে এত বড় ভোলা মাছ এর আগে কখনো ধরা পড়েনি বলেই জানান তিনি।

অন্যদিকে মাছটি কেনার জন্য শুধুমাত্র জেলা নয়, বিভিন্ন এলাকা থেকে বহু ক্রেতা ভিড় করেন। পাশাপাশি বিশালাকৃতির মাছটি দেখতে ভিড় জমান হাজার হাজার মানুষ।

মাছটির এত দাম বেশি হওয়ায় কারণ, এই মাছের উপযোগিতা। মাছের পেটের মধ্যে থাকা পটকা দিয়ে বিভিন্ন ধরনের ঔষধি জিনিসপত্র তৈরি হয়। যা অস্ত্রোপচারের পর সেলাইয়ের কাজে ব্যবহার করা হয়। আপাতত সেই তেলেভোলার গল্প ছড়িয়ে পড়েছে এলাকাবাসীর মুখে মুখে। সেই মাছের সঙ্গে ছবি তোলারও হিড়িক পড়ে যায়।

XS
SM
MD
LG