অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

বাংলাদেশে মাথাপিছু আয় ২৫০০ ডলার ছাড়িয়েছেঃ পরিসংখ্যান ব্যুরো 


বাংলাদেশের রাজধানী ঢাকার অদূরে একটি গ্রামে ধান মাড়াই করছেন কৃষকরা। দেশের মোট দেশজ উৎপাদন বা জিডিপিতে কৃষি খাতের অবদান রয়েছে যা মানুষের মাথাপিছু আয় বৃদ্ধিতে সহায়তা করেছে। (ফাইল ফটো- মুনির উজ-জামান/এএফপি)

বাংলাদেশ পরিসংখ্যান ব্যুরো বা বিবিএস এর সর্বশেষ হিসাবে দেশে গড় মাথাপিছু আয় আড়াই হাজার ডলার ছাড়িয়ে গেছে।

বিবিএস এর এই হিসাব অনুযায়ী দেশের মানুষের গড় মাথাপিছু আয় বর্তমানে ২ হাজার ৫৫৪ আমেরিকান ডলার যা ২০২০-২১ অর্থবছরে ছিল ২,২২৭ ডলার । সংস্থাটির হিসাব মতে গড় মাথাপিছু আয় বেড়েছে ৩২৭ ডলার যার বর্তমান বাজার মূল্যে বাংলাদেশি মুদ্রায় ২৯,৪৩০ টাকা। বিবিএস ২০১৫-২০১৬ অর্থবছরকে ভিত্তি বছর ধরে এই মাথাপিছু আয়ের হিসাব করেছে বলে বৃহস্পতিবার সংবাদ মাধ্যমের খবরে বলা হয়েছে।

ভয়েস অফ অ্যামেরিকার পক্ষে সেন্টার ফর পলিসি ডায়ালগ (সিপিডি) এর সন্মানিত ফেলো ড. মোস্তাফিজুর রহমানের কাছে বাংলাদেশের মানুষের গড় মাথাপিছু আয় বৃদ্ধি সম্পর্কে তাঁর মন্তব্য জানতে চাইলে তিনি বলেন একদিকে যেমন দেশে অর্থনৈতিক কর্মকাণ্ড বেড়েছে আবার অন্যদিকে কৃষি, শিল্প এবং সেবা খাতের নতুন যে সকল কর্মকাণ্ড আগে মোট দেশজ উৎপাদন বা জিডিপি পরিমাপের মধ্যে ছিল না সেগুলোকে এখন অন্তর্ভুক্ত করায় জাতিয় আয় বেড়েছে। এ কারনে মানুষের মাথাপিছু আয় বেড়েছে বলে উল্লেখ করে তিনি বলেন এটা মনে রাখতে হবে এই মাথাপিছু আয় একটি গড় হিসাব।

ড. মোস্তাফিজুর রহমান বলেন গড় মাথাপিছু আয় বাড়ার অর্থ এই নয় যে মানুষের আয় বৈষম্য কমেছে। অনেক মানুষ আছেন যাদের আয়ের সাথে এই গড় মাথাপিছু আয়ের বিরাট পার্থক্য রয়েছে বলে উল্লেখ করে তিনি বলেন দেশে এখনও দারিদ্র সীমার নিচে ২০ শতাংশ এবং চরম দারিদ্র সীমার নিচে ৯ শতাংশ মানুষ রয়েছেন। তিনি বলেন গড় মাথাপিছু আয় বাড়লেই হবেনা এর সুষম বণ্টনও নিশ্চিত করতে হবে যাতে দেশ থেকে দারিদ্রের মূলোৎপাটন করা সম্ভব হয়।

এদিকে ২০২০ সালের মত এবছরও মাথাপিছু জিডিপিতে ভারতকে ছাড়িয়ে যাচ্ছে বাংলাদেশ। গত অক্টোবর মাসে দেওয়া আন্তর্জাতিক মুদ্রা তহবিল (আইএমএফ) এর পূর্বাভাস অনুযায়ী ২০২১ সালে চলতি মূল্যে বাংলাদেশের মাথাপিছু জিডিপি হবে ২ হাজার ১৩৮ ডলার এবং ভারতের মাথাপিছু জিডিপি হবে ২ হাজার ১১৬ ডলার।

XS
SM
MD
LG