অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

বাংলাদেশের রাজনীতিতে নতুন এক ধারা


বাংলাদেশের রাজনীতিতে নতুন এক ধারার সূচনা হয়েছে। সংবিধান প্রণেতা ড. কামাল হোসেন এই ধারার নেতৃত্বে রয়েছেন। ডান, বাম ও মধ্যপন্থার দলগুলো এতে যোগ দিয়েছে। প্রধান বিরোধী দল বিএনপির অংশগ্রহণ এতে নতুন মাত্রা যোগ হয়েছে। শনিবার মহানগর নাট্যমঞ্চে ড. কামাল হোসেন জাতীয় ঐক্য প্রক্রিয়ার শুভ সূচনা করেন। ঐক্য প্রক্রিয়ার সঙ্গে একাত্মতা প্রকাশ করেন সাবেক প্রেসিডেন্ট অধ্যাপক বদরুদ্দোজা চৌধুরী, বিএনপির মহাসচিব মীর্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, জাসদের সভাপতি আ. স. ম. আবদুর রব, নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক মাহমুদুর রহমান মান্না ও গণসংহতি আন্দোলনের প্রধান সমন্বয়ক জুনায়েদ সাকী, সাবেক তত্ত্বাবধায়ক সরকারের উপদেষ্টা ব্যারিস্টার মঈনুল হোসেন, ডা. জাফরউল্লাহ চৌধুরী ও ডাকসুর সাবেক ভিপি সুলতান মনসুর। জামায়াত ছাড়া কয়েকটি ইসলামী দলও এতে অংশ নেয়।। সূচনা বক্তব্যে জাতীয় ঐক্যের আহ্বায়ক ড. কামাল হোসেন বলেন, দেশের মানুষ ভোটাধিকার থেকে বঞ্চিত। এই অধিকার ফিরিয়ে আনার জন্যই আমরা লড়াইয়ে নেমেছি। তিনি বলেন, জাতীয় ঐক্যের ভিত্তি হচ্ছে কার্যকর গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠা। রাষ্ট্রের আর্থিক শৃঙ্খলা নিশ্চিত করে জনগণের মত প্রকাশের স্বাধীনতা নিশ্চিত করা।

সমাবেশ থেকে সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তি দাবি করা হয়। বলা হয়, বিচারের স্বাভাবিক প্রক্রিয়াকে অগ্রাহ্য, ব্যাহত ও অকার্যকর করে তাকে কারারুদ্ধ করে রাখা হয়েছে। কোটা সংস্কার ও নিরাপদ সড়ক আন্দোলনে নেতৃত্বদানকারী ছাত্রছাত্রীদের বিরুদ্ধে আনীত মিথ্যা মামলা প্রত্যাহারের দাবি জানানো হয়। সমাবেশের ঘোষণায় সরকারকে ৩০শে সেপ্টেম্বর পর্যন্ত সময় বেঁধে দেয়া হয়েছে। বলা হয়েছে, এই সময়ের মধ্যে রাজনৈতিক দলগুলোর সঙ্গে আলাপ-আলোচনার মাধ্যমে নির্বাচনকালীন সরকার গঠন ও নির্বাচন কমিশন পুনর্গঠন করতে হবে।

please wait

No media source currently available

0:00 0:00:57 0:00


XS
SM
MD
LG