অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

উন্নয়নশীল দেশগুলিতে ক্যান্সার আক্রান্ত শিশুদের বিনামূল্যে চিকিৎসার উদ্যোগ


ইয়েমেনের রাজধানী সানার একটি হাসপাতালে চিকিৎসা নিচ্ছে ব্লাড ক্যান্সার বা লিউকেমিয়ায় আক্রান্ত একটি শিশু। ৪ ফেব্রুয়ারি, ২০২১।
ইয়েমেনের রাজধানী সানার একটি হাসপাতালে চিকিৎসা নিচ্ছে ব্লাড ক্যান্সার বা লিউকেমিয়ায় আক্রান্ত একটি শিশু। ৪ ফেব্রুয়ারি, ২০২১।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা এবং যুক্তরাষ্ট্রের শীর্ষস্থানীয় ক্যান্সার নিরাময় কেন্দ্র সেন্ট জুড চিলড্রেনস রিসার্চ হাসপাতাল, যৌথভাবে উন্নয়নশীল দেশগুলির শিশুদের জন্য বিনামূল্যে ক্যান্সারের ওষুধ সরবরাহের পরিকল্পনা করছে৷

ক্যান্সার বিশ্বব্যাপী মৃত্যুর একটি প্রধান কারণ, প্রতি বছর প্রায় ১ কোটি মানুষ ক্যান্সারে মারা যায়। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার মতে, বিশ্বব্যাপী প্রতি বছর ৪ লাখ শিশু ক্যান্সারে আক্রান্ত হয়, এর মধ্যে মারা যায় প্রায় ১ লাখ।

শৈশবে আক্রান্ত ক্যান্সারের মধ্যে রয়েছে: লিউকেমিয়া, মস্তিষ্কের ক্যান্সার, লিম্ফোমাস এবং টিউমার। ডব্লিউএইচও জানিয়েছে, ক্যান্সারে আক্রান্ত প্রতি ১০ জনের মধ্যে নয়জন শিশু নিম্ন ও মধ্যম আয়ের দেশে বাস করে।

ডব্লিউএইচও’র অসংক্রামক রোগ ডিপার্টমেন্টের ক্যান্সার বিভাগের প্রধান আন্দ্রে ইলবাউই বলেছেন, উচ্চ আয়ের দেশগুলিতে ক্যান্সারে আক্রান্ত প্রায় ৮০ শতাংশ শিশু বেঁচে থাকে - গত কয়েক দশকে এটি একটি বড় অর্জন এবং উন্নতি।

তিনি বলেন, “কিন্তু নিম্ন ও মধ্যম আয়ের দেশে বসবাসকারী শিশুদের ক্ষেত্রে সেই অগ্রগতি অর্জিত হয়নি, যেখানে মাত্র ৩০ শতাংশ বা তার চেয়ে কম শিশু ক্যান্সার নির্ণয়ের পর বেঁচে থাকে”। “ক্যান্সার চিকিৎসার অন্যতম অনুষঙ্গ হল যত্ন, যা থেকে ওইসব দেশের শিশুরা বঞ্চিত থাকে। এছাড়া প্রয়োজনীয় ওষুধের নিশ্চয়তা শৈশব ক্যান্সারের চিকিত্সার একটি গুরুত্বপূর্ণ অংশ”।

ডব্লিউএইচও এবং সেন্ট জুড হাসপাতাল এই পরিস্থিতি পরিবর্তন করার উদ্দেশ্যে, একটি যৌথ প্ল্যাটফর্ম প্রতিষ্ঠা করেছে, যা নাটকীয়ভাবে বিশ্বজুড়ে শৈশবে ক্যান্সারের ওষুধ প্রাপ্তির সুবিধা বাড়িয়ে দেবে।

নতুন প্ল্যাটফর্মটির লক্ষ্য, ২০২২ থেকে ২০২৭ সালের মধ্যে প্রায় এক লক্ষ ২০ হাজার শিশুকে নিরাপদ এবং কার্যকর ক্যান্সারের ওষুধ সরবরাহ করা। স্বাস্থ্যখাত সংশ্লিষ্টরা বলছেন, ভবিষ্যতে আরও অনেক সুবিধাভোগীকে অন্তর্ভুক্ত করার জন্য এই প্রোগ্রামটির কার্যক্রম বর্ধিত করা হবে।

XS
SM
MD
LG