অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

ওমিক্রন বিভিন্ন দেশে ছড়িয়ে পড়েছে, বিশ্বব্যাপী সতর্কতা


ছবিতে লন্ডনের রিজেন্ট স্ট্রিটে করোনাভাইরাস থেকে নিরাপদ থাকার বার্তাসহ একটি পোস্টার দেখা যাচ্ছে। নভেম্বর ২৬, ২০২১।

দক্ষিণ আফ্রিকায় সনাক্ত হবার কয়েক দিনের মধ্যে করোনাভাইরাসের নতুন ধরণ ওমিক্রন শনিবার ইউরোপের বেশিরভাগ দেশে ছড়িয়ে পড়েছে। বিশ্ব জুড়ে সরকারগুলো ভাইরাসটির বিস্তার রোধে বিভিন্ন পদক্ষেপ নিয়েছে। ভাইরাসের এই নতুন ধরণটি আরও বেশি সংক্রামক হবার সম্ভাবনা রয়েছে।

যুক্তরাজ্যে ঐ ভাইরাসে আক্রান্ত দুইজন সনাক্ত হরার পর, শনিবার মাস্ক পরা এবং দেশটিতে ভ্রমণকারীদের করোনা পরীক্ষার বিষয়ে নিয়মকানুন কঠোর করা হয়েছে। শনিবার জার্মানি এবং ইতালিতেও ঐ ভাইরাসে আক্রান্ত মানুষ সনাক্ত হয়েছে। বেলজিয়াম, ইসরাইল এবং হংকং জানিয়েছে, ভ্রমণকারীদের মধ্যে করোনাভাইরাসের ঐ ধরণটি পাওয়া গেছে।

যুক্তরাষ্ট্র সরকারের শীর্ষ সংক্রামক রোগ বিশেষজ্ঞ ড. অ্যান্থনি ফাউচি বলেছেন, যদি যুক্তরাষ্ট্রে এরই মধ্যে করোনাভাইরাসের নতুন ধরণ ওমিক্রন থাকে, তবে তিনি অবাক হবেন না।

এনবিসি টেলিভিশনকে ফাউচি বলেন, আমরা এখনও ভাইরাসটি সনাক্ত করতে পারিনি, তবে ভাইরাসটি যখন এই মাত্রায় সংক্রমিত হচ্ছে তখন তা শেষ পর্যন্ত প্রায় সর্বত্র ছড়িযে পড়বে।

করোনাভাইরাসের এই নতুন ধরণটি টিকা সুরক্ষার বিরুদ্ধে আরও প্রতিরোধী হবার সম্ভাবনা রয়েছে। আর এই আশঙ্কার কারণেই বিশ্বজুড়ে উদ্বেগ বাড়ছে যে, মহামারী ও সংশ্লিষ্ট লকডাউনের বিধিনিষেধগুলো ধারণার চেয়ে বেশি সময় ধরে থাকতে পারে।

প্রায় দুই বছর ধরে চলা এই মহামারীতে বিশ্বজুড়ে ৫ মিলিয়নের বেশি মানুষ মারা গেছে। ফলে দেশগুলো উচ্চ পর্যায়ের সতর্ক অবস্থায় রয়েছে। অনেক দেশই দক্ষিণ আফ্রিকা থেকে আসা বিমানের উপর ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে। কারণ ঐসব দেশ বর্তমানের মারাত্মক ডেল্টা ভেরিয়েন্টের চেয়ে ওমিক্রন বেশি সংক্রামক কিনা তা মূল্যায়নের জন্য সময় নিচ্ছে।

XS
SM
MD
LG