অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

টানা ১ মাস ধরে চলছে দার্জিলিং পাহাড়ে বনধ


টানা ১ মাস ধরে চলছে দার্জিলিং পাহাড়ের বনধ। দার্জিলিং এর অর্থনীতি পর্যটন আর চা শিল্পের ওপর নির্ভর করে। দুটিই বন্ধ। দার্জিলিং টি অ্যাসোসিয়েশনের চেয়ারম্যান বিনোদ মোহন বলছেন, বছরে দার্জিলিং চায়ের ব্যবসা হয় ৪৫০/৫০০ কোটি টাকার। বাগান বন্ধ থাকায় ইতিমধ্যেই লোকসান হয়েছে ২০০ কোটি টাকা। পাহাড়ের ৮৭টি চা বাগানে ৫৫,০০০ মানুষ কাজ করেন। এ ছাড়াও নষ্ট হয়েছে আন্তর্জাতিক বাজারে দার্জিলিং চায়ের সুনাম। বড় সমস্যা হল, বছরে যে ৪ বার চা গাছ থেকে পাতা তোলা হয়, তার মধ্যে প্রথম দুটি - ফার্স্ট ও সেকেন্ড ফ্লাশ - পাতা ওঠে জুন-জুলাই মাসেই। এই চা-ই সেরা। এ বছরের পুরো উৎপাদন মার খাওয়ায় ও গাছের পরিচর্যা বন্ধ থাকায় আগামী বছরেও ভাল চা পাওয়া যাবে না বলে চা শিল্পের আশঙ্কা।

XS
SM
MD
LG