অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা নিয়ে বাংলাদেশ ও যুক্তরাষ্ট্রের তিনদিনব্যাপী যৌথ অনুশীলন শুরু


ঢাকায় দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা নিয়ে বাংলাদেশ ও যুক্তরাষ্ট্রের যৌথ অনুশীলনের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন বাংলাদেশের দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী ডা: মো এনামুর রহমান। ছবিঃ আইএসপিআর।

যুক্তরাষ্ট্রের সেনাবাহিনীর সাথে বাংলাদেশ সশস্ত্র বাহিনীর তিনদিনের এক যৌথ অনুশীলন আজ ঢাকায় শুরু হয়েছে। ডিসাস্টার রেসপন্সএক্সারসাইজ এন্ড একচেঞ্জ বাংলাদেশ-২০২১ শীর্ষক অনুশীলনটির মাধ্যমে ভূমিকম্প পরবর্তী অনুসন্ধান ও উদ্ধার কার্যক্রম নিয়ে উভয়দেশের সদস্যরা অনুশীলন করছেন। (আজ) মঙ্গলবার ঢাকার আর্মি গল্ফ ক্লাবে অনুশীলনের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন বাংলাদেশেরদুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী ডা: মো এনামুর রহমান।

আন্তঃবাহিনী জনসংযোগ পরিদপ্তর (আইএসপিআর)-এর সহকারী পরিচালক মোহাম্মদ রেজা-উল করিম শাম্মী এই প্রতিবেদককে জানান,এ অনুশীলনের মূল উদ্দেশ্য হলো- ভূমিকম্প তথা সকল দুর্যোগ ব্যবস্থপনায় আন্তর্জাতিক পদ্ধতির উপর সম্যক ধারণা লাভ, দুর্যোগমোকাবেলায় সমন্বিত প্রয়াস নিশ্চিৎ করতে সবার মধ্যে সমন্বয় বৃদ্ধি, ভূমিকম্প মোকাবেলায় অনুসন্ধান ও উদ্ধার, যোগাযোগ, মেডিক্যালশেল্টার ও ত্রাণ কার্যক্রম ইত্যাদির আলোকে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনার গাইড লাইন চূড়ান্তকরণ ইত্যাদি।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে সশস্ত্র বাহিনী বিভাগের প্রিন্সিপাল স্টাফ অফিসার লেঃ জেনারেল ওয়াকার-উজ-জামান, দুর্যোগ ব্যবস্থপনা ও ত্রাণমন্ত্রণালয়ের সচিব মো: মোহসীন, প্রশান্ত মহাসাগরীয় মার্কিন সেনাবাহিনীর Major General Reginald G.A Neal বক্তব্য রাখেন।

ভূমিকম্প দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা বিষয়ক এ অনুশীলন বিগত ২০১০ সাল থেকে ঢাকায় অনুষ্ঠিত হয়ে আসছে। দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণমন্ত্রণালয়, সশস্ত্র বাহিনী বিভাগ ও ইউএস আর্মি প্যাসিফিক -এর যৌথ উদ্যোগে যথাযথ কোভিড-১৯ প্রটোকল অনুসরণপূর্বকঅনুশীলনটি অনুষ্ঠিত হচ্ছে।

অনুশীলনে ২৩টি দেশের ১৪৭টি সংস্থার ৩০০-এর বেশি সংখ্যক প্রতিনিধি অংশগ্রহণ করছেন। দেশগুলো হচ্ছে- বাংলাদেশ, নেপাল, ভারত, যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য, কানাডা, জাপান, ভূটান, মালদ্বীপ, শ্রীলংকা, অষ্ট্রেলিয়া, ইন্দোনেশিয়া, ফিলিপাইন, তুরস্ক, ফিজি, মঙ্গোলিয়া, লাওস, কেনিয়া, জার্মানী, নিউজিল্যান্ড, সিঙ্গাপুর, নাইজেরিয়া ও চীন।

অংশগ্রহণকারীরা দুর্যোগ ব্যবস্থাপনায় সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন মন্ত্রণালয়, সংস্থা ও এনজিওসমূহের প্রতিনিধিত্ব করছেন। এছাড়া দুর্যোগ ব্যবস্থাপনাসংক্রান্ত বিষয়ে অধ্যয়নরত বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী ও স্বেচ্ছাসেবকরা এ অনুশীলনে অংশ নিচ্ছে। এই ধরনের অনুশীলনভূমিকম্প পরবর্তী দুর্যোগ ব্যবস্থাপনার আন্তর্জাতিক পর্যায়ে পারস্পরিক সহযোগিতা বৃদ্ধিতে সহায়ক হবে বলে মনে করছেন আয়োজকরা।এবারের এই অনুশীলনের মূল প্রতিপাদ্য হচ্ছে ``Resilience Through Preparedness’’.

XS
SM
MD
LG