অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

ইথিওপিয়ার অবরুদ্ধ টিগ্রায়ে ক্ষুধায় মারা যাচ্ছে মানুষ


টিগ্রায় অঞ্চলের উকরো হাসপাতালে উস্ক্রো হাসপাতালে নাসোগ্যাস্ট্রিক টিউব লাগানো অবস্থায় আমানুয়েল মেরহাউই নামের এক বছর আট মাস বয়সী এই শিশুটি তীব্র অপুষ্টিতে ভুগছে।

ইথিওপিয়ার টিগ্রায় অঞ্চলের কিছু অংশে মানুষ এখন দিনের পর দিন শুধু সবুজ পাতা খেয়ে বেঁচে আছে। গত সপ্তাহে একটি স্বাস্থ্য কেন্দ্রে, একজন মা এবং তার মাত্র ১.৭ পাউন্ড ওজনের নবজাতক ক্ষুধায় মারা যায়। ২০টিরও বেশি জেলায় যেখানে মাত্র একটি সাহায্য গোষ্ঠী কাজ করছে, সেখানকার বাসিন্দারা অনাহারে মারা যাচ্ছে।

কয়েক মাস ধরে, জাতিসংঘ উত্তর ইথিওপিয়ার এই উত্তাল কোণে দুর্ভিক্ষের বিষয়ে সতর্ক করে, এটিকে এক দশকের মধ্যে বিশ্বের সবচেয়ে খারাপ ক্ষুধা সংকট বলে অভিহিত করেছে।ইথিওপিয়ার সরকার সেখানে জুন মাসে জাতিসংঘের ভাষায় যে "কার্যতঃ মানবিক সহায়তা অবরোধ" আরোপ করে, সে সময় থেকে ক্ষুধায় মানুষের মৃত্যুর বিবরণ এখন অভ্যন্তরীণ নথিপত্র এবং সাক্ষীদের বিবরণ থেকে জানা যাচ্ছে।

টিগ্রায়ে'র ফ্ল্যাগশিপ আইডার রেফারেল হাসপাতালের প্রাক্তন পরিচালক হায়েলম কেবেদে, এই মাসে ইথিওপিয়ার স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়কে ফোন করে বলেন, “আপনারা মানুষকে হত্যা করছেন,” “তারা জবাব দেয়, 'হ্যাঁ, ঠিক আছে, আমরা এটি প্রধানমন্ত্রীর কাছে পাঠিয়ে দেব।' আমি কি করতে পারি? আমি শুধু কাঁদছি”।

হেইলম বলেন, ওষুধ প্রায় শেষ হয়ে গেছে, হাসপাতালের কর্মীদের জুন থেকে বেতন দেওয়া হয়নি। টিগ্রায়-এর ৬০ লক্ষ মানুষের জন্য অন্য জায়গার অবস্থাও ভালো না।

জুন মাসে, টিগ্রায় যোদ্ধারা এই অঞ্চলটি পুনরুদ্ধার করে এবং ইথিওপিয়া সরকার মানবিক কারণ দেখিয়ে যুদ্ধবিরতি ঘোষণা করলেও, তারা এই অঞ্চলটিকে আগের চেয়ে কঠোরভাবে বন্ধ করে দিয়েছে। তাদের আশঙ্কা, মানবিক সাহায্য টিগ্রায় বাহিনীর কাছে পৌঁছাবে।

সাড়ে ৩ লাখ মেট্রিক টনেরও বেশি খাদ্য সহায়তা ইথিওপিয়ায় অবস্থান করলেও, এর খুব সামান্যই টিগ্রায়ে প্রবেশ করতে পারে। সরকার এতটাই সতর্ক যে এই অঞ্চলে কদাচিৎ ফ্লাইটে আরোহণকারী মানবিক কর্মীদের এমন সব জিনিসের অস্বাভাবিক তালিকা দেওয়া হয়েছে যা তারা আনতে পারে না: যেমন ডেন্টাল ফ্লস, ক্যান ওপেনার, মাল্টিভিটামিন, ওষুধ, এমনকি ব্যক্তিগত ওষুধ।

বার্তা সংস্থা এপি জানিয়েছে, সেখানে সংকটের চিত্র ধারণ একেবারেই নিষিদ্ধ, এমনকি হার্ডড্রাইভ কিংবা ফ্ল্যাশ ড্রাইভও বহন করা বারণ। টিগ্রায় ছবি এবং ভিডিও জুন থেকে সোশ্যাল মিডিয়া থেকে অদৃশ্য হয়ে গেছে। কারণ সাহায্য কর্মী এবং অন্যরা, কর্তৃপক্ষের তীব্র অনুসন্ধানের মুখোমুখি হতে হচ্ছে, তাদের সাথে থাকা ডিভাইস ধরা পড়ার আশঙ্কায় আছে তারা। টিগ্রায়ে অন্ধকার বিরাজ করছে। কোন টেলিযোগাযোগ, ইন্টারনেট, ব্যাংকিং সেবা নেই। আছে খুব সামান্য কিছু সাহায্য।

ইথিওপিয়ার প্রধানমন্ত্রী এবং অন্যান্য ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা অস্বীকার করেছেন যে টাইগ্রায় ক্ষুধা রয়েছে। সরকার সাহায্য বিতরণে সমস্যার জন্য টিগ্রায় বাহিনী এবং নিরাপত্তাহীনতাকে দায়ী করেছে। এছাড়া তারা মানবতাবাদী গোষ্ঠীগুলিকে টিগ্রায় যোদ্ধাদের সমর্থন করার, এমনকি অস্ত্র দেওয়ার অভিযোগও করেছে।

XS
SM
MD
LG