অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

নাগরিক প্রমাণে ব্যর্থ হওয়ায় ডিটেনশন ক্যাম্পে বন্দি শেখ আসগর


Assam

নাগরিক প্রমাণে ব্যর্থ হওয়ায় ভারতের অসমের ডিটেনশন ক্যাম্পে দু'বছর ধরে বন্দি মধ্য কলকাতার পার্কসার্কাসের চমরু খানসামা লেনের যুবক শেখ আসগর।

গত বছর অসমে এনআরসি চালু হওয়ার পর প্রায় ৪০ লক্ষ মানুষের নাম বাদ পড়েছিল সেই তালিকা থেকে। কলকাতার ভোটার হলেও কাঠের কাজের সুবাদে দীর্ঘদিন অসমে রয়েছেন তিনি। তা হলে কেন তাঁকে আটক করা হল?আসগরের ভাই আরশাদ জানিয়েছেন, তাঁদের বাবার নাম ছিল মহম্মদ জরিফ। কিন্তু তাঁর ডাক নাম মোড়ল হওয়ায় ভোটার তালিকায় বাবার নাম ভুলবশত হয়ে যায় মহম্মদ মোড়ল। পরে আদালতে এফিডেভিট করে বাবার নাম পরিবর্তন করে সরকারিভাবে মহম্মদ জরিফ করা হয়। কিন্তু অসমে নাগরিকপঞ্জির সময় নথিতে সমস্যা দেখা দেয়। আসগর বাবার যে ভোটার কার্ডের প্রতিলিপি জমা দেয় তাতে মহম্মদ মোড়ল লেখা ছিল। সেই সংক্রান্ত হলফনামা জমা দিলেও তা গ্রহণ করেনি অসমের আদালত। তখন আসগরের ঠাঁই হয় গোয়ালপাড়ার ডিটেনশন ক্যাম্পে।দু’বছর ধরে ওই ডিটেনশন ক্যাম্পে বন্দি রয়েছেন আসগর। পরিবার, স্ত্রী-সন্তানকে দেখতে চেয়েও মুক্তি মেলেনি। আদালতের দ্বারস্থ হয়েছেন তিনি। কিন্তু তাতেও কোনও লাভ হয়নি। কলকাতার একটি স্বেচ্ছাসেবী সংস্থা আসগর ও তাঁর পরিবারকে এই আইনি লড়াইয়ে সাহায্য করতে এগিয়ে এসেছে। এখন মুক্তির অপেক্ষায় দিন গুনছেন পার্ক সার্কাসের শেখ আসগর।

কলকাতা সংবাদদাতা পরমাসিষ ঘোষরায়ের প্রতিবেদন।

please wait

No media source currently available

0:00 0:00:54 0:00

XS
SM
MD
LG