অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

ফাইনাল মারাকানায়, পুলিশের মাইকিং ব্রাহ্মণবাড়িয়ায়


Lionel Messi-Neymar

ইতিহাস-ঐতিহ্যের স্টেডিয়াম মারাকানা। সাত বছর আগে কাঁদিয়েছিল লিওনেল মেসিকে। সেই মারাকানাতেই আগামীকাল ভোরে ফুটবলের ছোট জাদুকর নামছেন আরেকটি ফাইনালে। জিততে পারলে কোপা হবে আর্জেন্টিনার জার্সি গায়ে তার প্রথম শিরোপা। কাজটা কঠিন। কারণ সামনে নেইমার ও ব্রাজিল। শুনতে খানিকটা অবাক লাগতে পারে। ব্রাজিলে যখন ধ্রুপদী লড়াইয়ে মুখামুখি দুই চির প্রতিদ্বন্দ্বী তখন এ নিয়ে মাইকিং হচ্ছে প্রায় পনের হাজার কিলোমিটার দূরের বাংলাদেশের ব্রাহ্মণবাড়িয়ায়। প্রশাসনের পক্ষ থেকে মানুষকে অনুরোধ করা হয়েছে যেন বাইরে বড় পর্দায় খেলা দেখা না হয়। সতর্ক অবস্থান নিয়েছে পুলিশ। কারণ ব্রাজিল-আর্জেন্টিনার সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষে এরইমধ্যে চার জন আহত হয়েছেন। শুধু ব্রাহ্মণবাড়িয়া নয়, কোপার ফাইনাল ঘিরে টান টান উত্তেজনা তৈরি হয়েছে পুরো বাংলাদেশেই।

পতাকা উড়ছে বাড়িতে বাড়িতে। দেশটা দুভাগে বিভক্ত হয়ে গেছে। ১৯৯০ ইতালি বিশ্বকাপে দিয়াগো ম্যারাডোনা এক সাক্ষাৎকারে এই সংবাদদাতাকে বলেছিলেন- বাংলাদেশে ফুটবল নেই, আছে আবেগ। সমর্থকদের উদ্দেশ্যে বলেছিলেন, বাংলাদেশের মানুষের ভালবাসায় আমি মুগ্ধ। এমনটা জেনে মনে হয়, দেশটি আমারই।

সোশ্যাল মিডিয়ায় বিতর্কে মেতেছেন ব্রাজিল-আর্জেন্টিনার সমর্থকরা। গাইবান্ধায় আর্জেন্টিনার পতাকা লাগাতে গিয়ে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে মারা গেছেন এক যুবক। একসময় এদেশে ব্রাজিলের সমর্থক ছিল বেশি। পরে দিয়াগো ম্যারাডোনার প্রতি দেখা যায় অবিশ্বাস্য আবেগ। সে সূত্র ধরেই ব্রাজিল-আর্জেন্টিনায় ভাগ হয়ে যান এ দেশের সমর্থকরা। যদিও দীর্ঘ সময় ধরে বড় কোনো শিরোপা জিতেনি আর্জেন্টিনা। আটাশ বছর পর সুযোগ এসেছে মেসিদের সামনে। চৌদ্দ বছর পর কোপার ফাইনালে মুখোমুখি ফুটবলের অন্যতম ঐতিহ্যবাহী দুই দল। ফাইনালের আগে সতর্ক আর্জেন্টিনার কোচ স্কালোনি। বলছেন, কোনো শিরোপা না জিতলেও মেসি সর্বকালের সেরাই থাকবেন। অন্যদিকে, ব্রাজিল কোচ তিতে বলেছেন, মেসিকে কীভাবে আটকাতে হয় তা জানেন তিনি। কিন্তু সে রহস্য খোলাসা করেননি তিতে। কী হবে কাল? মেসি না নেইমার? শেষ হাসিটা কে হাসবে?

XS
SM
MD
LG