অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

সিরিয়ার সর্বশেষ পরিস্থিতি নিয়ে আলোচনা


সিরিয়া পরিস্থিতি নিয়ে নানা পর্যায়ে বিভিন্ন দেশে আলোচনা, সমালোচনা অব্যাহত রয়েছে। প্রেসিডেন্ট ওবামা সিরিয়ায় যুক্তরাষ্ট্রের সামরিক অভিযানের বিষয়ে কংগ্রেস সদস্যদের প্রতি তার বক্তব্য তুলে ধরছেন। ওদিকে রাশিয়া সিরিয়ায় রাসায়ণিক অস্ত্র ব্যবহারের তথ্য প্রমান সম্পর্কে প্রশ্ন তুলেছে। চীনও উদ্বেগ প্রকাশ করেছে।
এই সব বিষয় নিয়ে আমাদের স্টুডিও থেকে রোকেয়া হায়দার টেলিফোনে আলোচনা করছেন ঢাকায় বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট ফর পীস এ্যাণ্ড সিকিউরিটি স্টাডিজের প্রেসিডেন্ট - অবসরপ্রাপ্ত মেজর জেনারেল মনিরুজ্জামানের সঙ্গে।
আমেরিকায় আজ শ্রমিক দিবসের ছুটির দিন হলেও, সিরিয়া পরিস্থিতি নিয়ে প্রেসিডেন্ট ওবামা যুক্তরাষ্ট্রের বিধায়কদের সঙ্গে আলোচনা চালিয়ে যাচ্ছেন। তবে অনেক বিধায়ক সামরিক ব্যবস্থা গ্রহণের বিষয়ে কিছুটা দ্বিধান্বিত এবং তাঁরা পরিস্থিতি ভালভাবে খতিয়ে দেখার কথাই বলছেন। সিরিয়া সরকার রাসায়ণিক অস্ত্র ব্যবহার করছে বলে তথ্য প্রমান পাওয়া গেলেও, আন্তর্জাতিক পর্যায়ে সে দেশে সামরিক ব্যবস্থা গ্রহণের প্রতি তেমন সাড়া পাওয়া যাচ্ছে না।
আমাদের সঙ্গে টেলিফোনে রয়েছেন বাংলাদেশ থেকে অবসরপ্রাপ্ত মেজর জেনারেল মনিরুজ্জামান। জেনারেল মনিরুজ্জামান আপনি কি মনে করেন।
মেজর জেনারেল মনিরুজ্জামান- “আমরা যেটা বিশ্লেষণে দেখতে পাচ্ছি যে, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র যে তথ্য প্রমান দিচ্ছে, সেটা সর্বজনীনভাবে গ্রহণযোগ্য হয়নি। বিশেষ করে অনেক ক্ষেত্রে দেখা যাচ্ছে যে রাসায়ণিক অস্ত্র ব্যবহার করার তথ্যটা অনেক ক্ষেত্রে প্রমানিত হলেও , কারা ব্যবহার করেছে, কিভাবে ব্যবহার করেছে, সে বিষয়ে যুক্তরাষ্ট্র যে প্রমানাদি এখন পর্যন্ত উপস্থাপন করছে, সেটা সর্বজনীনভাবে গৃহিত হয়নি। যুক্তরাজ্যের যে সংসদ আছে তারাও এটাকে গ্রহণ করতে পারেনি……”।
নেটো জোটের মহাসচীব জেনারেল এ্যাণ্ডার্স ফো রাসমুসেন যেমন বলেছেন-
“আমি দৃঢ়ভাবে বিশ্বাস করি যে এই পরিস্থিতিতে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের সাড়া দেওয়া উচিত”। তিনি বলেন, “তা না হলে আমরা গোটা বিশ্বে স্বৈরশাসকদের কাছে এক বিপজ্জনক বার্তা পৌঁছে দেবো যা হলো – তারা যথেচ্ছা রাসায়ণিক অস্ত্র ব্যবহার করতে পারে, এবং আন্তর্জাতিক সমাজের পক্ষ থেকে কোনই প্রতিক্রিয়া দেখা যাবে না”।
জেনারেল মনিরুজ্জামান আপনি কি মনে করেন?
ওদিকে রাশিয়ার পররাষ্ট্র মন্ত্রী বলেছেন – যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট যে কার্যব্যবস্থার কথা ঘোষণা করেছেন তা খুবই হতাশাজনক। তার যথার্থতা কতখানি?
আরব লীগের মহাসচীব বলেছেন, “আরব রাষ্ট্রগুলোর মধ্যে দুই ধরণের মতামত আছে বলে আমি মনে করি না। তবে আমি একথা বলতে পারি যে, লীগের ১৮টি সদস্য দেশের মধ্যে সার্বিক পর্যাযে মনে করা হয় যে, যারা রাসায়ণিক অস্ত্র ব্যবহারের মত অপরাধ করেছে তাদের বিরুদ্দে প্রতরিনিবৃত্তকারী পদক্ষেপ নেওয়া উচিত”।
মেজর জেনারেল মনিরুজ্জামান মনে করেন?
মনিরুজ্জামান – “আমরা মনে করি তথ্য প্রমানে যদি প্রমান করা যায় যে বাশার সরকার এটাকে ব্যবহার করেছে তা হলে অবশ্যই এটা যথার্থ…..”

please wait

No media source currently available

0:00 0:07:35 0:00
সরাসরি লিংক
XS
SM
MD
LG