অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

আফগান নিরাপত্তা ও প্রতিরক্ষা বাহিনীকে পুনরুজ্জীবিত করার ঘোষণা দিলেন আশরাফ গনি


ফাইল ফটো- আফগানিস্তানের পারওয়ান প্রদেশে আফগান নিরাপত্তা বাহিনীর একজন সদস্য বাগ্রাম মার্কিন বিমান ঘাঁটিতে সেনাবাহিনীর গাড়িতে দাঁড়িয়ে নজর রাখছেন।৫ জুলাই ২০২১।

শনিবার একটি রেকর্ডকৃত বার্তায় প্রেসিডেন্ট আশরাফ গনি আফগানদের বলেছেন যে তিনি এই "চাপিয়ে দেওয়া যুদ্ধ" লড়তে চান।যখন তালিবানরা ধীরে ধীরে রাজধানীর কাছাকাছি চলে আসছে বলে মনে হচ্ছে, তখন যেন নিরাপত্তা বাহিনী তাদের ওপর অর্পিত দায়িত্ব পালন করে তা তিনি নিশ্চিত করবেন বলে জানান ঐ বার্তায়।

শনিবার দুপুরে আড়াই মিনিটের ঐ বার্তাটি আফগান পাবলিক টিভিতে প্রচারিত হয় এবং সরকারি সামাজিক মাধ্যমের অ্যাকাউন্টে শেয়ার করা হয়।

গনি বলেন, "বর্তমান পরিস্থিতিতে, আমাদের সর্বোচ্চ অগ্রাধিকার হচ্ছে আফগান নিরাপত্তা ও প্রতিরক্ষা বাহিনীকে পুনরুজ্জীবিত করা।"

কাবুলে ব্যাপকভাবে যে গুজব ছড়িয়েছিল যে গনি তার পদত্যাগের ঘোষণা দিতে চলেছেন এবং তালিবান যুদ্ধবিরতির ঘোষণা করলে তালিবানকে কাবুলে প্রবেশের অনুমতি দেবে সেই গুজবকে মিথ্যা প্রমাণিত করলো।

গনি বলেছেন যে তিনি আফগানিস্তান এবং আন্তর্জাতিক উভয় ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিদের সঙ্গে পরামর্শ চালিয়ে যাচ্ছেন এবং শীঘ্রই তার ফলাফল জনসাধারণকে জানাবেন।

গনির বার্তা এমন এক সময়ে এলো যখন তালিবান ঐ দেশের ৩৪টি প্রাদেশিক রাজধানীর মধ্যে ১৯টি দখল করে নিয়েছে এবং কাবুলের প্রবেশপথ হিসেবে পরিচিত ময়দান শহর আক্রমণ করছে।ময়দানের প্রাদেশিক রাজধানী ওয়ারদাক আফগান রাজধানী থেকে মাত্র ৪০কিলোমিটার দূরে।

সারা দেশে তালিবানের এমন অগ্রসর আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়কে উদ্বিগ্ন করেছে। সদস্যরা তাদের কাবুল দূতাবাসগুলির জন্য সম্ভাব্য তাৎক্ষণিক পরিকল্পনা করছে বলে মনে করা হচ্ছে।

যুক্তরাষ্ট্র এবং ব্রিটেন উভয়ই তাদের নাগরিকদের বাণিজ্যিক ফ্লাইট ব্যবহার করে আফগানিস্তান ত্যাগ করতে বলেছে। তারা জানিয়েছে জরুরি অবস্থার ক্ষেত্রে তাদের খুব বেশি সহায়তা দেওয়ার উপায় নেই।

দূতাবাস কর্মীদের অধিকাংশকে অন্য দেশে সরিয়ে নিতে সাহায্য করার জন্য যুক্তরাষ্ট্র ৩০০০ সৈন্য পাঠাচ্ছে যদিও দূতাবাস খুব অল্প সংখ্যক কর্মী নিয়ে খোলা থাকবে।

XS
SM
MD
LG