অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

সৌদি আরবের সমালোচনায় লেবাননের হেজবুল্লাহ নেতা 


ফাইল ছবি, আল মানার টিভিতে তোলা এক ছবিতে হেজবুল্লাহ নেতাকে ভাষণ দিতে দেখা যাচ্ছে , ৮ই জুন, ২০২১, ছবি/ আল মানার/এএফপি

লেবাননের হেজবুল্লাহ মিলিশিয়া দলের নেতা সোমবার তার সান্ধ্য ভাষণে সৌদি আরবকে দোষারোপ করে বলেন, উপসাগরীয় রাজতন্ত্রটি সারা বিশ্বজুড়ে ইসলামী উগ্রবাদী বিস্তারে সহায়তা করছে এবং লেবাননকে জিম্মি করে রেখেছে। বিশ্লেষকরা জানান, সৌদি আরবের সঙ্গে হেজবুল্লাহ দলের বিরোধ লেবাননকে আর্থিক সাহায্য থেকে বঞ্চিত করছে।

ইরান সমর্থিত হেজবুল্লাহ প্রধান, হাসান নাসরাল্লাহ লিখিত ভাষায় টেলিভিশনে সৌদি বাদশাহরবিরুদ্ধে এই মন্তব্য করেন,“ মহামান্য বাদশাহ, যে সন্ত্রাসী দলটি বিশ্বে দায়েশ মতাদর্শ প্রচার করেছে সেটা আপনাদের”। নাসরাল্লাহ আরবি নামে পরিচিত ইসলামিক স্টেট গ্ৰুপটির কথা বলেন। এছাড়াও তিনি সৌদি আরবকে সিরিয়া, ইরাক এমনকি ইয়েমেনের যুদ্ধে আত্মঘাতী হামলাকারী পাঠানোর দোষারোপ করেন।

গত সপ্তাহে সৌদি বাদশাহ সালমান লেবাননকে তাঁর ভাষায়, "সন্ত্রাসী হেজবুল্লাহ'র নিয়ন্ত্রণ" বন্ধের আবেদন জানান। লেবাননে অনেকের ধারণা ছিল তাদের প্রাক্তন তথ্য মন্ত্রীর পদত্যাগের সঙ্গে সঙ্গে হয়তোবা দুটি দেশে বাক-যুদ্ধ দূর হবে, তবে নাসরাল্লাহ সেই পুরোনো ক্ষতকে জাগিয়ে তুললেন। নাসরাল্লাহ বলেন, বিশেষত ইরাকে সৌদি আরব সুন্নি উগ্রবাদ ও দায়েশদের সমর্থন দিয়ে যাচ্ছে।

লেবানিজ আমেরিকান বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক, হাবিব মালিক বলেন, শিয়া হেজবুল্লাহরা ফল রপ্তানির নাম করে উপসাগরীয় অঞ্চলে মাদকের ব্যবহার বৃদ্ধিতে সহায়তা করেছে।তিনি ভয়েস অব আমেরিকাকে জানান, হেজবুল্লাহ দল এছাড়াও সৌদিদের বিরুদ্ধে হুথি বিদ্রোহীদের সহায়তায় নিয়মিতভাবে প্রশিক্ষক, অস্ত্র-শস্ত্র ও জনবল পাঠিয়েছে এবং লেবাননে তারা ইরানের আদেশ পালন করে থাকে।

তিনি জানান, "হেজবুল্লাহ লেবানন বা তাঁর স্বার্থের পরোয়া করে না। হেজবুল্লাহ শুধুমাত্র বিদেশী একটি শক্তির নির্দেশাবলী পালন করে যায়, যার লক্ষ্য, যে কোনো মূল্যে এই অঞ্চলে তাদের প্রভাব বিস্তার করা"।


XS
SM
MD
LG