অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

হংকংয়ের নির্বাচনে বেইজিংপন্থী প্রার্থীরা বড় ব্যবধানে জয়লাভ করেছে


স্ট্যানলি এনজি চাউ-পেই, কেন্দ্রের সামনে বেইজিং-পন্থী হংকং ফেডারেশন অফ ট্রেড ইউনিয়নের সদস্যরা হংকংয়ের আইনসভা নির্বাচনে জয়ী হওয়ার পর একটি সংবাদ সম্মেলনে। সোমবার, ২০ ডিসেম্বর, ২০২১।

হংকংয়ের আইনসভা নির্বাচনে আধিপত্য বিস্তার করছে বেইজিংপন্থী প্রার্থীরা। চীন সরকার ঐ শহরের নির্বাচনী আইন সংশোধনের জন্য একটি প্রস্তাব পাস করার পর, শহরের প্রথম জনমত যাচাইয়ে মধ্যপন্থী এবং স্বতন্ত্র প্রার্থীরা পরাজিত হয়।

শুধুমাত্র বেইজিং-পন্থী “দেশপ্রেমিকরা” শহর পরিচালনা করতে পারে, তা নিশ্চিত করার জন্য আইন পরিবর্তন করার পর, বেইজিংয়ের অনুগত প্রার্থীরা রবিবারের নির্বাচনে সংখ্যাগরিষ্ঠ আসনে জয়লাভ করে।

হংকংয়ের নেতা ক্যারি লাম সোমবার এক সংবাদ সম্মেলনে বলেন, ১৯৯৭ সালে ব্রিটিশরা হংকংকে চীনের কাছে হস্তান্তর করার পর এ নাগাদ সর্বনিম্ন ৩০.২% ভোট পড়া সত্ত্বেও, তিনি নির্বাচনে “সন্তুষ্ট”।

তিনি বলেন, নিবন্ধিত ভোটারের সংখ্যা ৯২.৫ শতাংশে পৌঁছেছে, যা ২০১২ এবং ২০১৬ সালের নির্বাচনের তুলনায় সর্বোচ্চ রেকর্ড, সে সময় প্রায় ৭০% ভোটার নিবন্ধিত হয়েছিল।

তিনি আরও বলেন, “এই নির্বাচনে ১.৩৫ মিলিয়ন ভোটার তাদের ভোট দিয়েছেন। নিবন্ধিত ভোটাররা কোনও নির্বাচনে তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করতে চান কিনা, সেই সিদ্ধান্ত নেওয়া এখতিয়ার সম্পূর্ণরূপে তাদের নিজেদের উপর”।

নতুন আইনের অধীনে, সরাসরি নির্বাচিত আইন প্রণেতাদের সংখ্যা ৩৫ থেকে কমিয়ে ২০ জন করা হয়, যদিও আইনসভা ৭০ থেকে ৯০ আসনে সম্প্রসারিত করা হয়। আইনসভার সংখ্যাগরিষ্ঠতা নিশ্চিত করতে, বেশিরভাগ আইন প্রণেতাদের নিযুক্ত করা হয়েছিল মূলত বেইজিংপন্থী সংস্থাগুলি থেকে।

সর্ববৃহৎ গণতন্ত্রপন্থী দল, ডেমোক্রেটিক পার্টি, ১৯৯৭ সালে হস্তান্তরের পর এই প্রথমবারের মতো কোনো প্রার্থী দেয়নি। বিরোধী শিবির এই নির্বাচনের সমালোচনা করেছে।

XS
SM
MD
LG