অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

ভারতে কৃষকদের গাড়িচাপা দেওয়ার ঘটনায় পদত্যাগের সম্ভাবনা উড়িয়ে দিলেন অজয় মিশ্র


ভারতের লাখিমপুর খেরিতে রবিবার কৃষকদের ওপর চালিয়ে দেয়া গাড়ী যা পরে পুড়ে যায়- অক্টোবর ৪, ২০২১- এপি

বিরোধীদের দাবি, অবিলম্বে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের প্রতিমন্ত্রী অজয় মিশ্রকে বরখাস্ত করতে হবে। অভিযোগ, তাঁর ছেলে আশিস মিশ্র উত্তরপ্রদেশের লখিমপুর খেরিতে কৃষকদের ওপরে গাড়ি চালিয়ে দিয়েছিলেন। এর মধ্যে বুধবার অজয় মিশ্রের সঙ্গে দেখা করলেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ।

মঙ্গলবার অজয় মিশ্র পদত্যাগের সম্ভাবনা উড়িয়ে দিয়েছেন। তিনি বলেন, "আমি পদত্যাগ করব কেন? কেউ আমার ওপরে চাপ সৃষ্টি করছে না। লখিমপুর খেরির ঘটনা নিয়ে তদন্ত হবে। যারা ষড়যন্ত্র করেছিল, তারা শাস্তি পাবে।"

মন্ত্রীর বক্তব্য, যে স্পোর্টস ইউটিলিটি ভেহিকলটি চাষিদের চাপা দিয়েছিল, সেটি তাঁর ছেলেই ব্যবহার করেন। তবে চাষিদের চাপা দেওয়ার সময় তিনি গাড়িতে ছিলেন না।

মন্ত্রীর কথায়, "আমরা প্রথম দিন থেকে বলে আসছি, যে মাহিন্দ্রা গাড়িটি চাষিদের চাপা দিয়েছিল, সেটি আমাদের। আমাদের নামেই গাড়িটি রেজিস্ট্রি করা আছে। রবিবার গাড়িটিতে অপর একজনের ওঠার কথা ছিল। আমার ছেলে ওই জায়গায় ছিলই না। ওইদিন বেলা ১১ টা থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত সে অন্য এক সভায় ব্যস্ত ছিল।" মন্ত্রীর দাবি, তাঁর ছেলে যে সভায় উপস্থিত হয়েছিলেন, সেখানে হাজার হাজার লোকের সমাবেশ হয়েছিল। তার ছবি ও ভিডিও আছে। আশিসের মোবাইলের কল রেকর্ড ও লোকেশন দেখলেও সেকথাই প্রমাণিত হবে। হাজার হাজার মানুষ সাক্ষী দেবে, চাষিদের চাপা দিয়ে মারার সময় আশিস সেখানে ছিলেন না।

এরপর মন্ত্রী বলেন, "আমার গাড়ির চালক খুন হয়েছেন। আমাদের দলের দুই কর্মী খুন হয়েছেন। একজন পালিয়ে বেঁচেছেন। আহত হয়েছেন তিনজন।" অজয় মিশ্রের দাবি, তাঁর গাড়িটি পুড়িয়ে দেওয়া হয়েছে। সেই সঙ্গে একটি ফরচুনার গাড়িও পোড়ানো হয়েছে। যারা এই ঘটনা ঘটিয়েছে, তারা কৃষক হতে পারে না। কৃষকদের মধ্যে জঙ্গিরা লুকিয়েছিল।

সোমবার রাত থেকে সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়েছে ২৫ সেকেন্ডের এক ভিডিও ক্লিপ। তাতে দেখা যায়, কৃষকরা সারিবদ্ধভাবে দাঁড়িয়ে স্লোগান দিচ্ছেন। এমন সময় তাঁদের ওপর দিয়ে আচমকাই চালিয়ে দেওয়া হল একটি স্পোর্টস ইউটিলিটি ভেহিকল। ভিডিও-য় দাবি করা হয়েছে, রবিবার লখিমপুর খেরিতে কৃষক বিক্ষোভের সময় ওই ছবি তোলা হয়েছিল। গাড়ির চালকের আসনে কে আছেন, ভিডিওতে বোঝা যায়নি। ওই ভিডিও সত্যিই লখিমপুর খেরির বিক্ষোভের সময় তোলা হয়েছিল কিনা, তা নিশ্চিত করে জানায়নি পুলিশ।

ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে, এসইউভি-র ধাক্কায় কয়েকজন কৃষক মাটিতে পড়ে গিয়েছেন। পালানোর চেষ্টা করছেন অনেকে। অপর একটি গাড়ি সাইরেন বাজিয়ে প্রথম গাড়িটির পিছু পিছু ঢুকে গেল ভিড়ের মধ্যে। কৃষকরা বলেছিলেন, রবিবার গাড়িটি আচমকা পিছন থেকে জমায়েতের মধ্যে ঢুকে পড়ে। ভিডিওতে সেরকমই দেখা গিয়েছে। এসইউভি-র রং-ও কৃষকদের বর্ণনার সঙ্গে মিলে যাচ্ছে।

XS
SM
MD
LG