অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

ভারতের লখিমপুরে কৃষক মৃত্যুর জের, মন্ত্রীর পদত্যাগের দাবিতে রেল অবরোধ


মোদী নগর রেল স্টেশনে ট্রেন চলাচল বন্ধের চেষ্টা কৃষকদের- অক্টোবর ১৮, ২০২১- রয়টার্স

গত ৩ অক্টোবর উত্তরপ্রদেশের লখিমপুর খেরিতে কৃষকদের সমাবেশের মধ্যে ঢুকে পড়ে একটি গাড়ি। চার কৃষক নিহত হন। অভিযোগ, কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী অজয় মিশ্রের ছেলে আশিস মিশ্র গাড়িটি চালাচ্ছিলেন।

অজয় মিশ্রের পদত্যাগের দাবিতে সোমবার ছ'ঘণ্টা রেল অবরোধের ডাক দেয় সংযুক্ত কিষাণ মোর্চা। বেলা ১০ টা থেকে শুরু হয় রেল অবরোধ। কৃষকরা জানিয়েছেন, অবরোধ শান্তিপূর্ণ থাকবে। অন্যদিকে লখনউ পুলিশ জানিয়েছে, যারা রেল রোকো আন্দোলনে অংশ নেবে, তাদের বিরুদ্ধে কড়া ব্যবস্থা নেওয়া হবে। স্বাভাবিক জনজীবন ব্যাহত করলে ন্যাশনাল সিকিউরিটি অ্যাক্টে মামলা হবে।

সংযুক্ত কিষাণ মোর্চা থেকে বিবৃতি দিয়ে বলা হয়েছে, "অজয় মিশ্র ঘৃণা ছড়ান। তিনি হিন্দু ও শিখদের মধ্যে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি নষ্ট করতে চাইছেন। তাঁর গাড়িই আন্দোলনরত কৃষকদের চাপা দিয়েছিল। পুলিশ তাঁর ছেলেকে তলব করা সত্ত্বেও তিনি ছেলে ও তার কয়েকজন বন্ধুকে আশ্রয় দিয়েছিলেন।"

আশিস মিশ্র গত সপ্তাহে গ্রেপ্তার হন। বৃহস্পতিবার ঘটনার পুনর্গঠন করার জন্য তাঁকে লখিমপুর-খেরিতে নিয়ে যায় পুলিশ। আশিসের সঙ্গে ছিলেন তাঁর বন্ধু অঙ্কিত দাস। পুলিশের গাড়ির সাহায্যে সেদিনের ঘটনার পুনর্গঠন করা হয়।

সাংবাদিকদের তোলা পুনর্গঠনের ভিডিও ছবিতে দেখা যায়, পুলিশের একটি জিপ প্রচণ্ড গতিতে কয়েকটি ডামিকে ধাক্কা মারছে। একটি ছবিতে দেখা যায়, ঘটনাস্থল ঘিরে দিয়েছে পুলিশ। অনেকে প্রশ্ন তোলেন, ঘটনার পরেই পুলিশ এলাকাটি ঘিরে দেয়নি কেন? ৩ অক্টোবরের পরে অন্তত ৪৮ ঘণ্টা ধরে অনেকেই সেখানে গিয়েছেন।

গত বুধবার কংগ্রেস নেতা রাহুল গান্ধীর নেতৃত্বে তাঁর দলের কয়েকজন প্রতিনিধি রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দের সঙ্গে দেখা করেন। তাঁরা রাষ্ট্রপতির কাছে অনুরোধ করেন, তিনি যেন লখিমপুরের ঘটনা নিয়ে সরকারের সঙ্গে কথা বলেন।

পরে কংগ্রেস নেত্রী প্রিয়াঙ্কা গান্ধী বলেন, রাষ্ট্রপতিকে আমরা জানিয়েছি, "লখিমপুরে মৃতদের পরিবার মনে করে, যতদিন আশিসের বাবা ক্ষমতায় রয়েছেন, ততদিন ন্যায়বিচার হওয়া সম্ভব নয়। তাই সারা দেশের শুভবুদ্ধিসম্পন্ন মানুষ মনে করেন, অজয় মিশ্রের পদত্যাগ করা উচিত।"

লখিমপুরের ঘটনায় এখন তদন্ত করছে উত্তরপ্রদেশ পুলিশের একটি স্পেশাল ইনভেস্টিগেটিং টিম। কিন্তু রাষ্ট্রপতির কাছে রাহুল দাবি জানিয়েছেন, সুপ্রিম কোর্টের দু'জন বিচারপতিকে দিয়ে তদন্ত করানো হোক। অজয় মিশ্র সংবাদ মাধ্যমকে বলেছেন, যে গাড়িটি কৃষকদের চাপা দিয়েছিল, সেটি তাঁদের পরিবারের সম্পত্তি। কিন্তু আশিস বা তাঁদের পরিবারের অপর কেউ ঘটনার সময় গাড়িতে ছিলেন না। কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ ইতিমধ্যে স্পষ্ট জানিয়ে দিয়েছেন, অজয় মিশ্রের পদত্যাগ করার সম্ভাবনা নেই।

XS
SM
MD
LG