অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

ইরাকের যুদ্ধ বিধ্বস্ত মসুল সফর করেছেন ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট ম্যাক্রোঁ


ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাক্রোঁ ইরাকে মসুলের একটি গির্জা ঘুরে দেখছেন। আগষ্ট ২৯, ২০২১।

ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাক্রোঁ রবিবার ইরাকের উত্তরাঞ্চলীয় শহর মসুল সফর করেছেন। ঐ শহরটি ২০১৭ সালে ইসলামিক স্টেটকে পরাজিত করার যুদ্ধে ব্যাপকভাবে ধ্বংসপ্রাপ্ত হয়। ম্যাক্রোঁ সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে আঞ্চলিক সরকারগুলোর পাশাপাশি লড়াই করার অঙ্গীকার করেন।

ম্যাক্রোঁ বলেন, আইএস সিরিয়া ও ইরাকের কিছু অংশে স্বঘোষিত খেলাফত থেকে সারা বিশ্বে মারাত্মক হামলা চালিয়েছে। চরমপন্থীরা অনেক মুসলমানকেও হত্যা করেছে- এমন মন্তব্য করে তিনি বলেন, আইএস যখন হত্যার জন্য আসে, তখন তারা মানুষের ধর্ম, জাতীয়তা, কোনো কিছুই বিবেচনা করে না।

চরমপন্থীরা ধ্বংস করেছে এমন একটি নিদর্শনমূলক মসজিদ পরিদর্শনের পর ম্যাক্রোঁ ইংরেজিতে বলেন, 'আমরা, এই অঞ্চলের সরকারগুলো এবং ইরাকের সরকারের সঙ্গে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে যা কিছু করতে পারি, তা করবো। আমরা শান্তি ফিরিয়ে আনতে সার্বভৌম সরকারগুলোর পাশে থাকবো'।

ম্যাক্রোঁ বলেন, ফ্রান্স পারস্পরিক শ্রদ্ধার পাশাপাশি স্মৃতিস্তম্ভ, গির্জা, স্কুল ও মসজিদ এবং সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ 'অর্থনৈতিক সুযোগ' পুনর্নির্মাণে সহায়তা করবে।

আইএস ইরাক ও সিরিয়ার যুদ্ধক্ষেত্রে পরাজিত হলেও, গ্রুপটির স্লিপার সেলগুলো এখনও উভয় দেশেই মারাত্মক হামলা চালায়। এই গ্রুপের একটি সহযোগী অংশ, আফগানিস্তানে কাবুলের বিমানবন্দরে বৃহস্পতিবার যে হামলা হয়, তার দায় স্বীকার করে। ঐ হামলায় অনেক মানুষ নিহত হয়।

ম্যাক্রোঁ মসুলে তাঁর সফর শুরু করেছিলেন 'আওয়ার লেডি অব দ্যা আওয়ার চার্চ' নামের একটি ক্যাথলিক গির্জা ঘুরে দেখার মধ্য দিয়ে। ঐ গির্জাটি আইএস এর শাসনকালে মারাত্মকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছিল। চরমপন্থীদের শাসনকাল ২০১৪ থেকে শুরু করে পরাজিত হওয়া পর্যন্ত তিন বছর স্থায়ী ছিল।

ম্যাক্রোঁর আগমনে ইরাকী শিশুরা সাদা পোশাক পরে ইরাক ও ফ্রান্সের পতাকা নাড়িয়ে গান করছিল।

XS
SM
MD
LG