অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

হ্যারিকেন আরমার বিপর্যস্ত ফ্লোরিডায় ফিরতে শুরু করেছেন মানুষেরা


হ্যারিকেন আরমা রবিবার ফ্লোরিডায় আঘাত হেনে নানা ধংস সাধনের পর বিপর্যস্ত ফ্লোরিডার বিভিন্ন অঞ্চলে ফিরতে শুরু করেছেন ঘরবাড়ী ছেড়ে নিরাপদ আশ্রয়ে যাওয়া মানুষেরা। তবে কতৃপক্ষ বলেছে স্বাভাবিক অবস্থায় আসতে অনেক সময় লাগবে।

প্রেসিডেন্ট ডনাল্ড ট্রাম্প টুইটার বার্তায় বলেন যা আশংকা করা হয়েছিল তার চেয়ে ক্ষয়ক্ষতি বেশী হয়েছে এবং সাহায্যকর্মীরা প্রশংসনিয় কাজ করেছেন।

হ্যারিকেন আরমা লন্ডভন্ড করে দিয়েছে ফ্লোরিডার বিভিন্ন অঞ্চল। ক্ষয় ক্ষতির সঠিক হিসাব না পাওয়া গেলেও রাজ্যের অর্ধেক এখনো বিদ্যুৎবিহীন অবস্থায় রয়েছে। আরো কয়েক সপ্তাহ বিদ্যুৎ বিচ্ছিন্ন থাকবে নানা এলাকায়। বন্যার পানিতে সয়লাব হয়ে আছে রাস্তাঘাটসহ বিভিন্ন এলাকা।

রবিবারের হ্যারিকেন আরমার প্রথম আঘাত আসে কি ওয়েস্টে। অনেক আগে থেকেই সতর্ক করার কারনে প্রায় সব অঞ্চলেই নিরাপদে সরিয়ে নেয়া হয় লোকজনকে। নৌবাহিনীর কর্মীরা উদ্ধার ও সহায়তা অভিযান চালাচ্ছে।

তবে আরমায় ফ্লোরিডার সবচেয়ে বেশী মানুষের বসবাস যেখানে এবং সবচেয়ে বড় শহর জ্যাকসনভিলে ১৯৬৪ সালের পর সবচেয়ে মারাত্মক বন্যার সৃষ্টি হয়েছে। শহরের মেয়র আড়াই লক্ষ মানুষকে সরিয়ে নিয়েছিলেন।

ফ্লোরিডায় আরমার আঘাত ৫ জনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে। জর্জিয়া রাজ্যে দুজন এবং সাউথ ক্যারোলাইনায় ২জন মারা গেছে বলে জানা গেছে। গত সপ্তাহে ক্যারিবিয়ান দ্বীপপুঞ্জ থেকে শুরু হওয়া আরমায় মোট ৩৫ জনের প্রানহানি ঘটেছে।

XS
SM
MD
LG